মাত্র ২টি ডিম ও ১টি আলু দিয়ে খুব সহজেই এইভাবে বানিয়ে ফেলুন এই দুর্দান্ত স্বাদের রেসিপি, খাবেন চেটেপুটে

নিজস্ব প্রতিবেদন: সকালের জলখাবার নিয়ে কমবেশি অনেকেই কিন্তু বেশ চিন্তায় পড়ে থাকেন। বিশেষ করে বাচ্চারা কিন্তু প্রতিদিন একঘেয়ে খাবার একেবারেই খেতে চায় না। তাই মাঝে সাজেই গৃহিণীদের একটু নিত্যনতুন রান্না ট্রাই করে দেখতে হয়। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে সেই সমস্ত গৃহিণীদের উদ্দেশ্যেই আমরা দুটি ডিম এবং একটি আলু দিয়ে দারুন স্বাদের একটা জলখাবারের রেসিপি বানানোর পদ্ধতি শেয়ার করতে চলেছি। আশা করছি প্রতিবেদনটা আপনাদের ভালো লাগবে। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আজকের এই প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

কিভাবে রেসিপিটি বানাবেন?

রেসিপিটি তৈরি করার জন্য প্রথমেই আপনাদের দুটো ডিম আর একটা বড় সাইজের আলুর খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। আলুকে একটু মোটা গ্রেটার দিয়ে গ্রেট করে নেবেন।। বেশ কিছুক্ষণ আলুকে এবার জলের মধ্যে রেখে দেবেন যাতে সেটা কালো না হয়ে যায়। বেশ কয়েকবার জল পাল্টে ভালো করে আলু ধুয়ে নিয়ে ছাঁকনিতে নিয়ে নিন। কিছুক্ষণ এভাবে রাখলেই কিন্তু আলুর মধ্যে থাকা অতিরিক্ত জল ঝরে যাবে। এবার চটপট ছোট সাইজের দুটো পেঁয়াজ কুচিয়ে নিন। এবার পেয়াজ ধনেপাতা,কাঁচা লঙ্কা আর টমেটো ছোট করে কুচিয়ে নিন।

তারপর গ্যাসে একটা প্যান বসিয়ে তাতে এক চামচ তেল দিয়ে দিন। অল্প একটু লবণ দিয়ে যে আলুগুলোকে গ্রেট করে রেখেছিলেন সেটাকে প্যানে দিয়ে দেবেন। লবণের সাথে ভালো করে আলু কে মিশিয়ে নিয়ে নাড়াচাড়া করুন। কিছুক্ষণ এভাবে নাড়াচাড়া করার পর দেখবেন আলুর রং অনেকটা বদল হয়ে গেছে।

এই অবস্থায় আলু একটা অন্য পাত্রে নামিয়ে নেবেন এবং গ্যাস বন্ধ করে দেবেন। এবার একটা ছোট বাটির মধ্যে দুটো ডিম ফেটিয়ে নিন এবং তার মধ্যে পেঁয়াজ কুচি, ধনেপাতা কুচি আর টমেটো কুচি যোগ করুন। সামান্য পরিমাণে লবণ আর লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে এই উপকরণগুলোকে ডিমের সাথে মিশিয়ে নিন। কিছুক্ষণ ডিম আপনাদের ফেটিয়ে নিতে হবে।

ভালো করে মিশিয়ে নেওয়া হয়ে গেলে আগে থেকে ভেজে রাখা আলু এর মধ্যে যোগ করে দেবেন।। এবার গ্যাসের মধ্যে আবারো প্যান বসিয়ে তাতে এক টেবিল চামচ বাটার যোগ করে দিন। সামান্য পরিমাণে রসুন কুচি যোগ করে কয়েক সেকেন্ড নাড়াচাড়া করুন। দেখবেন রসুনের কাঁচা গন্ধ চলে গেছে আর হালকা রং ধরে গেছে। ডিম আর আলুর যে মিশ্রণটা তৈরি করে রেখেছিলেন এবারে এই প্যানে যোগ করে দেবেন।

দেখবেন এর পেছনের অংশটা কিছুটা ভাপিয়ে নেওয়া হয়ে গেলে একটু হালকা করে উল্টে দিলেই কিন্তু সামনের দিকটাও ভাজা হয়ে যাবে। সহজেই আপনারা ডিম আর আলু দিয়ে তৈরি এই রেসিপিটা বাচ্চাদের জলখাবারে পরিবেশন করতে পারবেন আবার টিফিন হিসেবেও দিতে পারবেন। খেতে কেমন লাগলো তা অবশ্যই একটা কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button