মেয়েদের শার্টের বোতাম বামদিকে ও ছেলেদের ডানদিকে থাকে কেন? ৯৯% মানুষ জানেন না

নিজস্ব প্রতিবেদন : Men and Women Shirt Difference পুরুষ ও মহিলা ভিত্তিতে পোশাক তৈরির ব্যাপারটি অত্যন্ত প্রাচীন। প্রাচীন যুগে পোশাকের ধরন ছিল একেবারেই আলাদা। পুরুষরা পড়তো এক রকমের পোশাক ও মহিলাদের জন্য ছিল একেবারে ভিন্ন ধরনের পোশাক যার সাথে পুরুষদের পোশাকের কোনো মিল ছিল না।

তাছাড়া ইচ্ছে খুশি পোশাক পরার স্বাধীনতাও ছিল না সে যুগের মহিলাদের। তবে বর্তমান যুগ অনেক আলাদা। এখন পোশাকের ধরন পুরুষ ও মহিলা উভয়ের ক্ষেত্রেই অনেক ক্ষেত্রে একই রকম। এখন শুধু পুরুষরা নয় পুরুষদের পাশাপাশি মহিলারাও প্যান্ট-শার্ট পরেন এবং পুরুষরাও অনেক ক্ষেত্রে স্কার্ট বা পাটিয়ালা প্যান্ট পড়েন।

শার্টের ক্ষেত্রে মেয়েদের শার্ট ও ছেলেদের শার্টের মধ্যে একটি বিশেষ পার্থক্য লক্ষ্য করেছেন কি! মহিলাদের শার্টের বোতাম ও পুরুষদের শার্টের বোতাম একই দিকে থাকে না। মহিলাদের শার্টের বোতাম থাকে বামদিকে এবং পুরুষের শার্টের বোতাম থাকে ডানদিকে। এমনটা কেন করা হয়েছে? এর পিছনে কি কোন প্রাচীন তত্ত্ব লুকিয়ে রয়েছে? এই নিয়ে কৌতুহল জেগেছে একদল মানুষের মনে।

জানা গিয়েছে, এর পিছনে কোনো প্রাচীন তত্ত্ব বা বাস্তবসম্মত কোনো কারণ নেই।বিভিন্ন জ্ঞানীবিদরা মনে করেন, পুরুষদের বোতাম ডান দিকে থাকার একটি ঐতিহাসিক কারণ রয়েছে। প্রাচীন যুগে যুদ্ধের সময় পুরুষদের ডান হাত দিয়ে পোশাক খুলে চট জলদি লুকোনো অস্ত্র বের করতে সুবিধা হতো। প্রাচীন বিশেষজ্ঞরা মূলত এই কারণ কেই দায়ী করেছে পুরুষদের শার্টের বোতাম ডান দিকে থাকার কারণ হিসেবে।

এছাড়া প্রাচীন যুগে উচ্চবিত্ত মহিলাদের ঘরে তাঁদের সাজিয়ে দেওয়া ও পোশাক পরানোর জন্যও লোক নিয়োগ করা থাকতো। তাই সেই মহিলাদের কখনওই নিজের জামা-কাপড় নিজেকে পরতে হত না। যারা সাজিয়ে দিত তাদের সামনে থেকে জামার বোতাম বামদিক থেকে আটকাতে বেশি সুবিধে হতো। সম্ভাব্য এটিও একটি কারণ মেয়েদের শার্টের বোতাম বামদিকে থাকার।

Leave a Comment