ডাল রান্না করতে গিয়ে নুন বেশি হয়ে গেছে! চিন্তা নেই! করুন শুধু এই একটি সহজ ছোট্ট কাজ, ডাল হবে একদম পারফেক্ট

নিজস্ব প্রতিবেদন: মোটামুটি আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকাতেই অনেক সময় ডাল রাখা হয়ে থাকে। ডালে নুন দেওয়ার সময় বেশি হয়ে গেলে তাই সমস্যার সৃষ্টি হয়। পুরনো গৃহিণীরা একটা নির্দিষ্ট আন্দাজ অনুযায়ী এই লবণের ব্যবহার করে থাকেন। তবে সমস্যা সৃষ্টি হয় নতুন গৃহিণীদের ক্ষেত্রে। যদি ভুল করে রান্না করার সময় লবণ বেশি পড়ে গিয়ে থাকে সেটাকে ঠিক করার জন্য আজকের এই প্রতিবেদনে আমরা কিছু বিশেষ টিপস শেয়ার করে নিতে চলেছি। অতএব এই প্রতিবেদনটির শেষ পর্যন্ত পড়ে নিজেদের মতামত আমাদের জানিয়ে দিতে পারেন।

ডালে লবণ বেশি হয়ে গেলে কিভাবে তা ঠিক করবেন?

১) জলের পরিমাণ বাড়ান:
যদি ভুলবশত ডালে নুনের পরিমান বেশি হয়ে গিয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে জল ব্যবহার করেও আপনারা এটাকে ঠিক করে নিতে পারেন। তার জন্য প্রথমেই একটি ঘুটনি দিয়ে ঘুটে নেবেন। এরপর এতে পরিমান মতো জল দিয়ে দেবেন। ভালো করে ২টি বলক তুলে নিতে হবে। ব্যাস দেখবেন লবণের আর কোনরকম অতিরিক্ত স্বাদ বোঝা যাচ্ছে না।

২) বেরেস্তা যোগ করুন: ডাল রান্নার সময় যদি লবণ বেশি হয়ে গিয়ে থাকে তাহলে বেরেস্তা যোগ করেও সেটাকে ঠিক করতে পারেন। তার জন্য একটা পাত্রের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ তেল দিয়ে সেটাকে গরম করে ফেলুন। এবার এখানে সামান্য পিঁয়াজ কুচি আর রসুন কুচি যোগ করে বেরেস্তা তৈরি করে নিন। হালকা ভাজা হয়ে গেলে এটাকে ডালে যোগ করে ভালোভাবে নাড়াচাড়া করে একটু বলক তুলে নেবেন।

৩) কাঁচা পেঁয়াজ ব্যবহার:
যদি প্রথমেই রান্নার সময় বুঝতে পারেন যে লবণ বেশি দিয়ে ফেলেছেন তাহলে একটু কাঁচা পেঁয়াজ কুচি করে ডালে দিয়ে দেবেন। ডালের সাথে পেঁয়াজ সেদ্ধ হয়ে গেলে লবণের পরিমাণটা সামঞ্জস্য পেয়ে যাবে।

৪)টক জাতীয় ফলের ব্যবহার:
প্রত্যেক সিজনেই কিন্তু আপনারা যে কোন টক জাতীয় ফল পেয়ে যাবেন।যেকোন টক জাতীয় ফল যেমন- কাচা আম, জলপাই, চালতা, ইত্যাদি দিয়ে দিতে পারেন নুন বেশি পড়ে যাওয়া ডালে।। এতে ডাল সেদ্ধ হয়ে যাওয়ার পর খেতে যেমন সুস্বাদু হবে ঠিক তেমনভাবেই কিন্তু এর মধ্যে থাকা অতিরিক্ত লবণ সহজেই ব্যালান্স হয়ে যাবে।

৫) অতিরিক্ত ডাল দিয়ে দিন:
যদি কোন কারণে উপরিউক্ত কোন জিনিস আপনাদের কাছে না থাকে ডালে দেওয়ার জন্য সে ক্ষেত্রে আপনারা কিন্তু এই পদ্ধতিটাও ট্রাই করতে পারেন। অন্য একটা পাত্রে কিছুটা পরিমাণ ডাল নিয়ে সেদ্ধ করে যেই ডালের লবণ বেশি হয়েছে তাতে মিশিয়ে হালকা ফুটিয়ে নেবেন। ব্যাস তাহলেই হয়ে যাবে আপনাদের অতিরিক্ত লবণ সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান।

৬) টমেটোর ব্যবহার:
ডালে কোনো কারণে লবণের ব্যবহার পরিমাণ বেশি হয়ে গেলে আপনারা কিন্তু টমেটো ব্যবহার করতে পারেন। অনেকেই টমেটো দিয়ে ডাল রান্না করে থাকেন তাই এতে অসুবিধার কিছু নেই। টমেটোর প্রয়োগে ডাল যেমন খেতে সুস্বাদু হবে ঠিক তেমনভাবেই লবণের পরিমাণ সঠিক হয়ে যাবে।

৭) আটার বলের ব্যবহার করতে পারেন :
এটা একটা সম্পূর্ণ গোপন টিপস। হাতের কাছে যদি ডালের অতিরিক্ত লবণ ঠিক করার মত কোন বস্তু না থাকে সেক্ষেত্রে কিছু আটা নিয়ে নিন এবং জল মিশিয়ে ছোট ছোট বলের মতো করে নিয়ে তা ডালের মধ্যে দিয়ে দিন। কিছু সময় ফুটিয়ে নিয়ে আটার বলগুলো তুলে ফেলে দেবেন। অতিরিক্ত লবণ কত সহজে গায়েব হয়ে যাবে আপনারা বুঝতেও পারবেন না।

৮) ধনেপাতার ব্যবহার:

শীতকালের একটি অন্যতম সবজির মধ্যে রয়েছে ধনেপাতা। বিভিন্ন রান্নায় ফ্লেভার যোগ করার জন্য এর ব্যবহার অন্যতম। যদি কোন কারনে আপনার ডালে অতিরিক্ত লবণ পড়ে গিয়ে থাকে সেক্ষেত্রে এই ধনেপাতা কুচি করে যোগ করতে পারেন।দেখবেন ডালের মধ্যে সুন্দর একটা ঘ্রাণ চলে এসেছে। যা ডালের টেস্ট আরো বাড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি লবণের টেস্ট কেও খুব সহজেই ব্যালেন্স করে দেবে।

Back to top button