হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা খুব সাবধান! ছোট্ট একটি ভুলেই হতে পারেন সর্বস্বান্ত! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-প্রযুক্তির সাথে সাথে বেড়ে চলেছে প্রতারকদের সংখ্যা ।এবং আমাদের আশেপাশে প্রতারণার ঘটনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে বর্তমান সময়ে অনেক বেশি পরিমাণে ।একটা সমীক্ষা জানা যাচ্ছে যে এই বছর 120 শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে প্রতারকদের সংখ্যা । তার পাশাপাশি বৃদ্ধি পেয়েছে প্রতারণার সংখ্যা ।এমতাবস্থায় দাঁড়িয়ে সবথেকে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটস অ্যাপ কে মূল কেন্দ্রবিন্দু করছে প্রতারকরা।

বর্তমানে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করো না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া সম্ভব নয় । যার কাছে একটি স্মার্টফোন রয়েছে তারা কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন । এই হোয়াটসঅ্যাপে নতুন কিছু ফিচার এনামেল করা হয়েছে যেমন আপনি হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কাউকে পেমেন্ট করতে পারবেন ।

সেক্ষেত্রে আপনাকে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংযুক্ত করতে হবে । কিন্তু এই সুযোগটি কাজে লাগাচ্ছে প্রতারকরা ।সিম ক্লোনিং পদ্ধতির মাধ্যমে তারা আপনার নাম্বার এবং যাবতীয় তথ্য চুরি করছে ।পাশাপাশি মুহূর্তের মধ্যে করে দিতে পারে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি।এই সিম ক্লোনিং কি ।এই জালিয়াতির জন্য, প্রথমে স্ক্যামাররা ব্যবহারকারীদের ফোন নম্বর ক্লোন করে এবং তারপর ক্লোন করা সেই নম্বর একটি নতুন সিমে অ্যাসাইন করে।

সিম নম্বর ট্রান্সফারের এই কাজ একবার সম্পন্ন হয়ে গেলেই, নেপথ্যে থাকা ব্যক্তিটি আপনার পরিচয়পত্র, পাসওয়ার্ড এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণ সহজেই অ্যাক্সেস করতে পারবে। কেননা যেকোনো সংস্থা দ্বারা প্রেরিত ওয়ান-টাইম-পাসওয়ার্ড বা OTP, তখন সরাসরি ক্লোন করা নম্বরে চলে আসবে।এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি থেকে নিজেকে মুক্ত করে রাখার জন্য অতি অবশ্যই আপনাকে সতর্ক হতে হবে ।যেকোনো অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো কোন লিঙ্ক এ ক্লিক করবেন না ।

তার পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপের টু স্টেপ অথেন্টিকেশন এনাবেল রাখবেন ।সেক্ষেত্রে, টু-স্টেপ অথেন্টিকেশন এনাবল করতে, আপনাকে প্রথমেই হোয়াটসঅ্যাপ সেটিংসে যেতে হবে। তারপরে অ্যাকাউন্ট অপশনে ট্যাপ করুন। এখানে আপনি টু-স্টেপ অথেন্টিকেশন বিকল্প দেখতে পারবেন। এখানে ‘এনাবল’ লেখা একটি বাটন পাবেন, এতে ট্যাপ করলেই এই দ্বি-স্তরীয় নিরাপত্তা ফিচারটি অ্যাক্টিভ হয়ে যাবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button