নিরামিষের দিনে কি বানাবেন! এই সহজ ঘরোয়া পদ্ধতিতে বানিয়ে দেখুন দুর্দান্ত স্বাদের এই নিরামিষ ইউনিক রেসিপি, খেলেই জুড়িয়ে যাবে মনপ্রাণ!

নিজস্ব প্রতিবেদন: সকালের জলখাবার থেকে শুরু করে রাতের ডিনারে অনেকেই কিন্তু রুটি বা পরোটা খেয়ে থাকেন। তবে রুটি বা পরোটার সাথে খাওয়ার জন্য পছন্দসই কোন রেসিপি চট করে পাওয়া যায় না। বিশেষ করে নিরামিষ দিনগুলোতে কিন্তু এর জন্য প্রচুর সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে গৃহিণীদের এই সমস্যার সমাধান করতে আমরা নিয়ে চলে এসেছি সম্পূর্ণ নিরামিষ পদ্ধতিতে তৈরি একটি ইউনিক রেসিপি। সহজেই বাড়িতে থাকা সাধারণ উপকরণ দিয়ে আপনারা এই রান্নাটা তৈরি করে নিতে পারবেন।

এই নিরামিষ রেসিপিটি তৈরি করার জন্য আপনাদের কয়েক টুকরো পাকা কুমড়ো নিয়ে নিতে হবে। অবশ্যই এর খোসা ছাড়িয়ে নেবেন। তারপর ধৈর্য ধরে এই কুমড়ো গুলোকে গ্রেটারের সাহায্যে গ্রেট করে নিতে হবে। এবার গ্যাসে একটা করাই বসিয়ে তাতে কিছুটা পরিমাণ সরষের তেল গরম করে নিন। সামান্য পরিমাণ বাদাম এই তেলের মধ্যে দিয়ে ভেজে ফেলুন। বাদাম ভেজে তুলে নেবার পর একই রকম ভাবে অল্প করে বড়ি ভেজে নিতে হবে। বড়ি ভেজে তুলে নিয়ে যে তেল বেচে থাকবে তার মধ্যে সামান্য পরিমাণে কালো জিরে আর শুকনো লঙ্কা ফোঁড়ন দিয়ে দিন। সামান্য পরিমাণে তেজপাতা আর অল্প একটু হিং যোগ করে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। তারপর গ্রেট করে নেওয়া কুমড়ো এতে যোগ করে দেবেন।

স্বাদমতো লবণ যোগ করে গ্যাসের আঁচ মিডিয়ামে রেখে এটাকে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। এরপর তিন থেকে চার মিনিটের জন্য ঢাকা দিয়ে কুমড়োটাকে একটু রান্না করে নিতে হবে যাতে এটা নরম হয়ে যায়। এই সময় আপনাদের রান্নার মসলা তৈরি করে নিতে হবে। তার জন্য মিক্সিং জারের মধ্যে এক টেবিল চামচ কালো সরষে, এক টেবিল চামচ সাদা তিল এবং এক চামচ পোস্ত যোগ করে দিন। কোনরকম জল ব্যবহার না করেই মসলাটাকে গুঁড়ো করে ফেলুন। তারপর এর মধ্যে দুটো কাঁচা লঙ্কা, লবণ,হলুদ ও জল মিশিয়ে ভালো করে আরো একবার পেস্ট করে নিতে হবে।

অন্যদিকে কড়াইতে রান্নার ঢাকনা খুলে এবার আপনাদের ভেজে রাখা বাদাম, সামান্য হলুদের গুঁড়ো এবং চিনি যোগ করে দিন। এই রান্নাটা কিন্তু সামান্য চিনি না যোগ করলে একেবারেই ভালো লাগবে না। সবকিছু ভালোভাবে নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে যে পেস্ট তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে মিশিয়ে দিতে হবে। একটু নাড়াচাড়া করে মিক্সিং জার ধুয়ে রান্নাটাতে জল যোগ করে দেবেন। ভালো করে মিশিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করে নেওয়ার পর এর মধ্যে একে একে কাঁচা লঙ্কা আর বড়ি যোগ করে দেবেন। তবে বড়ি কিন্তু গোটা অবস্থায় না যোগ করে একটু ভেঙে দিতে হবে। আরো কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে সামান্য পরিমাণ গরম মসলার গুঁড়ো আর ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে গরম গরম এই রেসিপিটা আপনারা সহজেই পরিবেশন করতে পারেন।

Back to top button