গোপন অঙ্গের কালো দাগ পরিষ্কার করতে আজই ব্যবহার করুন এই ঘরোয়া জিনিস, কালো দাগ হবে নিমেষেই উধাও

নিজস্ব প্রতিবেদন: মহিলাদের ক্ষেত্রে ত্বক বা চুলের যত্ন নেওয়া হচ্ছে একটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। নিয়মিত বিভিন্ন ট্রিটমেন্ট এর সাহায্যে অথবা নানান ধরনের ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করে মহিলারা নিজেদের ত্বকের যত্ন নিয়ে থাকেন। কিন্তু লক্ষ্য করে দেখবেন এই ত্বকের যত্নের মতন কিন্তু মহিলাদের গোপন অঙ্গের যত্ন সমানভাবে প্রয়োজন রয়েছে। অনেকেই লজ্জার কারণে এই বিষয়টাকে এড়িয়ে চলেন যা একেবারেই উচিত নয়।।

কারণ ইনটিমেট পার্ট বা গোপন অঙ্গের যত্ন অথবা সেটাকে যদি আপনি পরিষ্কার করার চেষ্টা না করেন তাহলে একটা সময় কিন্তু আপনাদের রোগব্যাধি ছড়িয়ে পড়তে পারে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে চলেছি এমন কয়েকটি বিশেষ পদ্ধতি যার সাহায্যে আপনারা স্টেপ বাই স্টেপ খুব সহজেই গোপনাঙ্গের কালো দাগ নেমে এসেই দূর করে নিতে পারবেন। এর জন্য যে আপনাদের অতিরিক্ত অর্থ খরচ করতে হবে এমনটাও কিন্তু নয়। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।।

গোপনাঙ্গের কালো দাগ পরিষ্কার করার বিশেষ কয়েকটি টিপস:

অনেক সময় অতিরিক্ত হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার করার জন্যও কিন্তু মহিলাদের গোপনাঙ্গে এই কালো দাগ হয়ে থাকে। তাই আজকের এই প্রতিবেদনের শুরুতেই আমরা আপনাদের সাথে এমন একটি হেয়ার রিমুভাল ক্রিমের কথা শেয়ার করে নেব যা অত্যন্ত কার্যকরী এবং সুন্দর গন্ধযুক্ত।। পাশাপাশি এটি কিন্তু কোন রকমের কালো দাগ সৃষ্টি করবে না।

এটি হলো এভারগ্রিন বিকিনি হেয়ার রিমুভাল ক্রিম। মাত্র ১৫০ টাকার মধ্যে বাজারের যেকোনো কসমেটিক্স এর দোকানে আপনারা এটা পেয়ে যাবেন। প্রথমে আপনাদের গোপনাঙ্গে এই ক্রিমটা স্প্যাচুলার সাহায্য নিয়ে মিনিট পাঁচেক সময় পর্যন্ত লাগিয়ে রাখবেন এবং তারপর জল দিয়ে ধুয়ে নেবেন। হেয়ার রিমুভাল ক্রিমের কাজ হয়ে যাওয়ার পর এবার আমরা আপনাদের বলব একটি বিশেষ প্যাকের কথা। চলুন এই প্যাকটি কিভাবে তৈরি করবেন সেই বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

এই অংশের স্কিন এক্সপোলিয়েট করার জন্য আপনাদের প্রথমেই এই প্যাক তৈরি করতে হবে। তার জন্য একটা ছোট পাত্রের মধ্যে এক চামচ পরিমাণ কফি পাউডার আর সামান্য পরিমাণে হলুদ নিয়ে নিন। তারপর আপনাদের নিয়ে নিতে হবে দুই থেকে তিন চামচ টক দই ও একটু পাতিলেবুর রস। ব্যাস ভালো করে সমস্ত উপকরণ মিশিয়ে নিলেই এই স্কিনলাইটনিং প্যাকটি তৈরি হয়ে যাবে।

ব্যাস এবার আপনাদের গোপনাঙ্গের ত্বকে এটাকে লাগিয়ে রেখে দিন বেশ কিছুক্ষণ সময় পর্যন্ত। অন্ততপক্ষে পাঁচ থেকে সাত মিনিট পর কিছুটা শুকিয়ে আসলে ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে নেবেন।। সপ্তাহে একবার যদি আপনি এই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন তাহলে মাসখানেকের মধ্যেই আপনি ফলাফল দেখতে পেয়ে যাবেন।

তবে অবশ্যই সাথে চেষ্টা করবেন বাজার চলতি যে কোন হেয়ার রিমুভাল ক্রিম বা রেজার গোপনাঙ্গে না ব্যবহার করার। কারণ যেকোনো জিনিস কিন্তু এই অংশে ব্যবহার করলে তা ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। এই ধরনের আরও নানান টিপস পেতে আমাদের পরবর্তী প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button