সংসারের অপচয় কমাতে ব্যবহার করুন এই কয়েকটি সহজ ও ঘরোয়া কিচেন টিপস, কাজ দেবে ১০০%

নিজস্ব প্রতিবেদন: সংসারের যেকোনো কাজ সহজ করে তোলার জন্য গৃহিণীরা কিন্তু নানান ধরনের টিপস ট্রাই করে থাকেন। তবে যারা নতুন গৃহিণী রয়েছেন তাদের এই সম্পর্কে কোন স্পষ্ট ধারণা থাকে না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই এমন কিছু প্রয়োজনীয় টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব যেগুলো খুব সহজেই আপনাদের সময় বাঁচাবে। তাই অবশ্যই বিস্তারিত জানতে হলে প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়ে নিন।

১) অনেক সময় বাড়িতে একসঙ্গে বেশি করে লেবু কিনে নিয়ে আসা হয়ে থাকে। তবে দীর্ঘদিন পর্যন্ত এই লেবু রেখে দিলে কিন্তু শুকিয়ে যায়। সেই সমস্যা থেকে বাঁচতে আপনারা যদি একটা কন্টেনার নিয়ে তার মধ্যে টিস্যু পেপার পেতে প্রথমে লেবুগুলোকে রাখেন এবং এর উপরে আবারও একটা টিস্যু দিয়ে ঢাকা দিয়ে দেন। তারপর ঢাকনা বন্ধ করে এই বক্সটাকে ফ্রিজের নরমাল চেম্বারে রেখে দেন তবে কিন্তু আর লেবু শুকিয়ে যাবে না এবং বহুদিন পরেও ব্যবহার করতে পারবেন।

২) রান্নাঘরের সিঙ্ক পরিষ্কার করা নিয়ে কমবেশি অনেকেই চিন্তায় পড়ে থাকেন। সঠিক সময়ে এটা পরিষ্কার না করলে কিন্তু দুর্গন্ধ হয়ে যায়। এর জন্য একটা স্ক্রাবার এর মধ্যে কিছু পরিমাণ টুথপেস্ট নিয়ে ভালোভাবে সিঙ্ক ঘষে নেবেন।শেষে জল দিয়ে ধুয়ে নিলেই কিন্তু একেবারে পরিষ্কার আর দুর্গন্ধ মুক্ত হয়ে যাবে।

৩) শীতের দিনে অনেকের বাড়িতেই কিন্তু ইলেকট্রিক কেটলি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এটি পরিষ্কার করার জন্যও কিন্তু আপনারা টুথপেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। যেহেতু এটা ইলেকট্রনিক জিনিস তাই জল ব্যবহার না করে এভাবে টুথপেস্ট দিয়ে হালকা ঘষে পরিষ্কার করে নেওয়াই ভালো।

৪) শীতকালের একটি অন্যতম সবজির মধ্যে রয়েছে টমেটো যা ফ্রিজে খুব বেশিদিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যায় না। যদি নরমাল অবস্থায় আপনারা এটাকে ফ্রিজে রাখেন তাহলে কিন্তু পেকে যাবে। যদি টমেটো তাড়াতাড়ি নষ্ট হওয়ার সমস্যা থেকে বাঁচতে চান সেক্ষেত্রে এর বোটার অংশটাই সেলোটেপ লাগিয়ে দেবেন। আসলে এখান থেকেই পচন শুরু হয়। সুতরাং এই জায়গাটা যদি আপনি এভাবে আটকে রাখতে পারেন তাহলে প্রায় সাত থেকে আট দিন পর্যন্ত টমেটো ভালো রাখা যাবে।

৫) রুটি বেলার সময় অনেকেরই কিন্তু বেলন চাকির মধ্যে সেটা চিপে যায়। বিশেষ করে নতুন গৃহিণীদের এই সমস্যা ব্যাপক পরিমাণে দেখা যায়। এটার হাত থেকে বাঁচতে কিছুক্ষণের জন্য আপনারা রুটি বেলার আগে এগুলোকে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। তাহলেই কিন্তু আর এই সমস্যা হবে না।

৬) রুটি তৈরি করার সময় তাড়াতাড়ি পুড়ে যায় অনেকক্ষেত্রেই। সেক্ষেত্রে রুটি সেকার ঠিক আগে তাওয়া বসানোর পরেই এর উপরে এক চিমটে লবণ ছড়িয়ে দেবেন। লবণটা গরম হয়ে গেলে, তাওয়াল দিয়ে এটাকে মুছে নেবেন। এরপর রুটি ভাজলে কিন্তু আর কোনরকম করেই পুড়ে যাবে না। আজকের এই শেয়ার করার টিপস গুলোর মধ্যে কোনটা আপনার সব থেকে বেশি ভালো লাগলো তা অবশ্যই কিন্তু একটা কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button