শীতের সবরকম সবজি দিয়ে খুব সহজেই এইভাবে একবার বানিয়ে দেখুন দুর্দান্ত স্বাদের এই নিরামিষ রেসিপি, খেলে আবার চেয়ে নেবেন!

নিজস্ব প্রতিবেদন: নিরামিষ দিনগুলোতে ঠিক কি ধরনের রান্না করা হবে যেটা বাচ্চা থেকে বড়রা সকলেই মজা করে খাবে সেটা নিয়ে কিন্তু গৃহিণীরা প্রায় সময় চিন্তায় পড়ে থাকেন। আজ সেই সমস্যার সমাধান করতে সম্পূর্ণ বাটা মসলায় শীতের সবজি দিয়ে দারুন টেস্টি একটা নিরামিষ রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব। আশা করছি এই রেসিপিটা আপনাদের ভালো লাগবে। ভাত থেকে শুরু করে রুটি, অথবা পরোটা সবকিছু সাথেই এই রেসিপিটা কিন্তু আপনারা পরিবেশন করতে পারবেন। এজন্য অতিরিক্ত কোন উপকরণের প্রয়োজন নেই। ঘরে থাকা সাধারণ উপকরণ দিয়েই রান্না শুরু করবেন।

প্রথমেই গ্যাসে একটা প্যান বসিয়ে সেখানে কিছুটা পরিমাণ সরষের তেল গরম করে তাতে লবণ আর হলুদ দিয়ে দিন। এবার কয়েকটা আলুর টুকরো নিয়ে এই গরম তেলের মধ্যে ভেজে নেবেন। এগুলো ভেজে তুলে নিয়ে ওই তেলের মধ্যেই কয়েকটি ফুলকপি টুকরো দিয়ে একই রকম করে ভেজে নিতে হবে। সামান্য পরিমাণে লবণ ছড়িয়ে দিন এবং অনবরত নাড়াচাড়া করতে থাকুন।

ফুলকপির ফুলগুলোকেও ভাজা হয়ে গেলে তুলে ফেলুন। এই তেলের মধ্যেই আবারো কিছুটা পরিমাণ সিম দিয়ে ভেজে তুলে নিন। ঠিক একই রকম ভাবে এর মধ্যে আপনাদের বেগুনের টুকরো ভাজতে হবে।মনে রাখবেন এভাবে প্রত্যেকটা সবজির মধ্যে সামান্য লবণ দিয়ে ভেজে রান্না করলে কিন্তু অসাধারণ স্বাদ হয়। সমস্ত সবজি ভাজা হয়ে গেলে শেষে এই তেলের মধ্যেই আপনাদের একটু বড়ি ভেজে নিতে হবে।

সবকিছু ভেজে নেবার পর কড়াইতে আরো কিছুটা পরিমাণ সরষের তেল যোগ করুন। এবার এই তেলের মধ্যে সামান্য পাঁচফোড়ন, একটা তেজপাতা এবং একটা শুকনো লঙ্কা দিয়ে দিন। কয়েক সেকেন্ড এগুলোকে ফ্রাই করে নেবেন তারপর আদা, কাঁচালঙ্কা, জিরে আর ধনে বাটার একটা পেস্ট এতে যোগ করুন। একটু নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে কয়েক টুকরো টমেটো, সামান্য পরিমাণে হলুদ গুঁড়ো, সামান্য কাশ্মীরি লাল লঙ্কার গুঁড়ো,স্বাদ লবণ আর অল্প চিনি যোগ করুন। কিছুটা পরিমাণ জল যোগ করে মিডিয়াম ফ্লেমে সমস্ত মসলা কষিয়ে নেবেন। মসলা কষানো হয়ে গেলে ভেজে রাখা আলু আর ফুলকপি এর মধ্যে যোগ করবেন।

বেশ কিছুক্ষণ আলু আর ফুলকপির সাথে মশলা ভালো করে মাখিয়ে কষিয়ে নিতে হবে। এরপর রান্না টার মধ্যে আপনাদের আরো জল যোগ করতে হবে। এই রান্না একটু পাতলা হয় তাই জল বেশি করে দেবেন। আর হ্যাঁ অবশ্যই উষ্ণ গরম জল ব্যবহার করবেন। সবকিছু ভালোভাবে মেশানো হয়ে গেলে গ্যাসের আঁচ মিডিয়ামে রেখে দুই থেকে তিন মিনিট পর্যন্ত কুক করে নিতে হবে।

নির্ধারিত সময় পর ঢাকনা খুলে এর মধ্যে ভেজে রাখা সিম আর বড়ি যোগ করুন। একটু নাড়াচাড়া করে সবার শেষে বেগুনের টুকরো গুলো যোগ করে দেবেন। বেগুন যেহেতু নরম হয়ে থাকে তাই সবার শেষেই এটা দিতে হবে না হলে গলে যাবে। আরো কয়েক মিনিট ফুটিয়ে সবশেষে ধনে পাতা কুঠি ছড়িয়ে গরম গরম ভাতের সাথে এই নিরামিষ সবজি পরিবেশন করুন। কেমন খেতে লাগলো অবশ্যই একটা কমেন্ট করে জানানোর অনুরোধ রইলো।।

Back to top button