রান্নার স্বাদ দ্বিগুন করতে বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন ম্যাজিক মসলার এই দুর্দান্ত রেসিপিটি, রইলো পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাড়ির প্রায় প্রত্যেকটি রান্নার সাথেই কিন্তু নানান ধরনের মসলার প্রয়োগ করতে হয়। এই মসলার প্রয়োগের কারণেই কিন্তু যে কোন খাবার অত্যন্ত স্বাদযুক্ত হয়ে ওঠে। তবে সব সময় কিন্তু বাইরে থেকে খাবার কিনে খাওয়া একেবারেই সম্ভবপর হয় না। আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনের তাই আপনাদের উদ্দেশ্যে শেয়ার করে নিতে চলেছি এমন একটি ম্যাজিক মসলার রেসিপি যার সাহায্যে খুব সহজেই কিন্তু যে কোন রান্না আপনারা চটজলদি তৈরি করে নিতে পারবেন।

শিশুদের কিন্তু সবজি খাওয়াতে গিয়ে আমাদের বেশ অসুবিধার মুখোমুখি হতে হয়। বিশেষত একঘেয়ে ভাবে কোন রান্না তৈরি করলে কিন্তু স্বাভাবিকভাবেই তাদের মধ্যে একটা অরুচি চলে আসে। তাই অবশ্যই আপনাদের কিন্তু মাঝেসাঝে অবশ্যই রান্নার ধরনের পরিবর্তন করা দরকার ‌। চলুন আর দেরি না করে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক। আজকের এই প্রতিবেদনে কিন্তু আমরা আপনাদের একটি রান্নার রেসিপি শেয়ার করে দেখাবো তাহলেই আপনারা বুঝে যাবেন এই মসলা কিভাবে প্রয়োগ করতে হবে

  • মসলা তৈরির পদ্ধতি:

এর জন্য আপনাদের প্রথমেই নিয়ে নিতে হবে পরিমাণ মতন কিছুটা ভেন্ডি। এবার যতটা সম্ভব ভালো করে ধুয়ে নিয়ে আপনাদের এটাকে একটু চিরে নিতে হবে। এবার একটি আলাদা পাত্রের মধ্যে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কিছুটা পরিমাণ লবণ হলুদ গুঁড়ো,ধনে গুঁড়ো, শিমলা মির্চ গুড়ো নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

এরপর করাইতে সামান্য পরিমাণে আপনাদের তেল নিয়ে নিতে হবে। তারপর ওই তেলের মধ্যে দিয়ে দিন সামান্য কিছুটা পরিমাণে জিরে। এবারে কিছুটা হলুদ গুঁড়ো দিয়ে আপনাদের যে ভেন্ডি গুলোকে মশলা মাখিয়ে রেখেছিলেন সেটাকে এই তেলে দিয়ে দিতে হবে। এবারে লো টু মিডিয়াম ফ্লেমে আপনাদের কিন্তু ভালোভাবে ভেন্ডি গুলিকে ভেজে নিতে হবে।

ঠিক একইরকম ভাবে কড়াইতে আবারো তেল গরম করে হলুদ গুঁড়ো, হিং আর কিছুটা পরিমাণ জিরে দিয়ে দিতে হবে। তারপর ফুলকপি গুলিকে ভালো করে দিয়ে দিন এর মধ্যে। কিছুটা পরিমাণ আলুও দিয়ে দিতে ভুলবেন না। স্বাদমতন লবণ যোগ করে নাড়াচাড়া করতে থাকুন।

এবার মসলা তৈরির জন্য আপনাদেরকে একটি প্যানের মধ্যে নিয়ে নিতে হবে তিন টেবিল চামচ সাবু ধনে, এক চা চামচ জিরে,এক চা চামচ মৌরি, চারটে শুকনো লঙ্কা, একটি ছোট দারচিনি টুকরো, সামান্য মেথি দানা, জায়ফল, সামান্য পরিমাণে এলাচ, ২০ থেকে ২৫ টা গোলমরিচ। তারপর এটাকে শুকনো খোলায় আপনাদের রোস্ট করে নিতে হবে। চাইলে আপনারা কিন্তু কিছুটা লবঙ্গ এর মধ্যে দিয়ে দিতে পারেন। শুকনো খোলায় ভাজা হয়ে গেলে আপনাদের এটাকে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিয়ে ঠান্ডা হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

এরপর এই সমস্ত উপকরণকে আপনাদের ব্লেন্ডারের মধ্যে নিয়ে তাতে আরো কিছু যোগ করে দিতে হবে। হলুদ গুঁড়ো, আধা চামচ চিনি, চার থেকে ছটা লবঙ্গ, এক চা চামচ আমচুর পাউডার, এক টেবিল চামচ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, স্বাদমতো লবণ এবং সামান্য পরিমাণে কর্নফ্লাওয়ার এর মধ্যে দিয়ে দিন। এছাড়াও আপনারা দিতে পারেন আধা টেবিল চামচ রসুন পাউডার, লেমন পাউডার, অনিয়ন পাউডার এবং আদা পাউডার।

এবারের সমস্ত উপকরণ গুলিকে আপনাদের একসাথে ভালো করে গ্রাইন্ড করে মিশিয়ে নিতে হবে। ব্যাস সমস্ত উপকরণ ভালোভাবে মিশে মিহি মিশ্রণ তৈরি হয়ে গেলেই কিন্তু তৈরি হয়ে যাবে এই জাদুকরি মসলা। এরপর কড়াইতে যে রান্নাটি বসিয়ে রেখেছিলেন তাতে সামান্য লঙ্কার গুঁড়ো আর ধনে গুঁড়ো ছড়িয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে এই জাদুকরি মসলা তাতে ছড়িয়ে দিন।

কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করলেই তৈরি হয়ে যাবে ফুলকপি আর আলুর তরকারি। ঠিক একই রকম ভাবে আপনারা প্রথমে যে ভেন্ডি কেটে রেখেছিলেন সেটাকে কিন্তু এই ম্যাজিক মসলা দিয়ে আপনাদের রান্না করে নিতে হবে। কোনরকম অসুবিধা হলে অবশ্যই আমাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিন, সেখানে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা রয়েছে।

Back to top button