“মাইকে এরা গলা ফাটিয়ে চিল্লাচ্ছে!”, ফেসবুক লাইভে এসে আজান পড়া নিয়ে বিস্ফোরক দাবি সুদীপার, ফের উঠলো বিতর্ক

নিজস্ব প্রতিবেদন: জি বাংলার রান্নাঘর অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জিকে আপনারা কম বেশি অনেকেই চেনেন। প্রায় সময় বিভিন্ন বিতর্কের কারণে সংবাদ শিরোনামে উঠে আসেন তিনি। সম্প্রতি কিছুদিন আগেই আগস্ট মাসে ডেলিভারি বয়দের কেন্দ্র করে একটি তির্যক মন্তব্য করার কারণে সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশের ক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন সুদীপা। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো বিতর্কের সম্মুখীন এই সঞ্চালিকা। সঞ্চালিকা কাজ করলেও তার নিজস্ব একটি বুটিক রয়েছে যেখান থেকে নানান ধরনের শাড়ি আর গয়না বিক্রি করে থাকেন তিনি।

ফেসবুকে লাইক করে প্রায় সময় শাড়ি বা গয়নার কালেকশন তাই সকলকে দেখাতে হয় তাকে।এদিন তিনি দুপুর থেকে লাইভ করতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত সন্ধ্যেবেলা লাইভ করতে দেখা যায় তাকে। কারণ হিসেবে তিনি জানান তার দোকানে কর্মচারীদের জন্যই দেরি হয়েছে তার। কিন্তু এরপরেই লাইভ চলাকালীন তিনি এমন একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন যা আবারো তাকে সমালোচনার সামনে ফেলে দিয়েছে। ফেসবুকে লাইভ শুরু করার পরে সুদীপা প্রথমে কর্মচারীদের প্রসঙ্গ তুলে তারপর জানান তিনি নিজেই ঘুমিয়ে পড়েছিলেন তাই লাইভের সময় ঠিক থাকে নি।

এরপর বেশ কয়েকবার তিনি মুখে আলো পড়ছে না বলে লাইভে অভিযোগ জানান। তারপর সব দিক ঠিকঠাক রেখে যখন লাইভে তিনি শাড়ি দেখানো শুরু করেন তখন আবারো হঠাৎ অন্যমনস্ক হয়ে একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন যা অনেকটা এমন, “এখানে সবাই মাইক্রোফোনে খুব চেঁচামেচি করছে জানিনা কখন বন্ধ হবে”! প্রসঙ্গত উল্লেখ্য বিকেলের এই সময়টা ছিল আজানের সময়।

এই অবস্থায় ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ড দিয়েও কিন্তু আযানের ব্যাপক আওয়াজ আসছিল। যদিও তাতে সুদিপার কথা শোনা যাতে কোন সমস্যা হয়নি বলেই জানিয়েছেন দর্শকেরা। তিনি যে আজানকে উদ্দেশ্য করেই এই বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সেটা নিয়ে ইতিমধ্যেই ঝড় উঠে গিয়েছে নেট নাগরিকদের মাঝে। এমনিতেই সাধারণ মানুষের মধ্যে সুদীপা চ্যাটার্জির অহংকারী রূপে ইমেজ ছড়িয়ে রয়েছে।

এমতাবস্থায় তার এই ধরনের মন্তব্য তাকে ঠিক আবারো কোন অপমানের মুখে ফেলবে সেটা বলা যাচ্ছে না। ইতিমধ্যেই অনেকে কিন্তু নানান ধরনের কটাক্ষ করতে শুরু করে দিয়েছেন তাকে। অনেকেই তার রান্নাঘর অনুষ্ঠানটি বয়কটের কথাও বলেছেন। সুদীপার এই মন্তব্যের প্রসঙ্গে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। বিনোদন জগত সম্পর্কিত এ ধরনের আরও আপডেট পেতে চাইলে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button