ঘরের মধ্যে খাটে বসেছিলেন মহিলা! হঠাৎ খাটের নীচ থেকে তেড়ে এলো বিশালাকার কোবরা, ঘটলো বিপত্তি, রইলো ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: সাপ সংক্রান্ত বিভিন্ন ঘটনাই ইন্টারনেট জগতে খুব দ্রুত গতিতে ভাইরাল হয়ে থাকে। আসলে বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট জগতে এমন একটা প্লাটফর্ম যা আমাদের মনোরঞ্জন থেকে শুরু করে বিভিন্ন খবরা খবর জানার জন্য বা প্রতিভার বিকাশের জন্যও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যাদের হয়তো খুব একটা আর্থিক সঙ্গতি থাকে না টেলিভিশন বা রেডিওর মাধ্যমে নিজের প্রতিভার বিকাশ করার জন্য তারাও এই সোশ্যাল মিডিয়ায় চলে আসতে পারেন।।

এই নেটওয়ার্কের সাহায্যে কিন্তু আমরা রানু মন্ডল থেকে শুরু করে ভুবন বাধ্যকরদের মতন প্রতিভাদের পেয়েছি। যারা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই সেলিব্রিটির তকমা পেয়েছেন। তবে আমাদেরকে এই সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন ভিডিওর মধ্যে সবথেকে অবাক করে রেখে দেয় নানান ধরনের সাপের ভিডিও। কমবেশি অনেকেই কিন্তু সাপ দেখে ভয় পান। তাই এই ধরনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠে আসলে কিন্তু মানুষের মধ্যে তা দেখার হুড়োহুড়ি পড়ে যায়।

সম্প্রতি এরকমই একটি ভিডিও ইন্টারনেট জগতে উঠে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি বাড়ির বাগানে কোনভাবে একটা বিষধর সাপ ঢুকে গিয়েছে।সাপটি পুরো গুটিয়ে ছিল আর অনেক রেগেও ছিল সাপটি সেটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে। সাপটির বর্ণ হালকা সোনালী রঙের এবং যখনই সাপটিকে উদ্ধার করতে যাওয়ার চেষ্টা চলছিল তখন এটা ফনা তুলে ছোবল মারার চেষ্টা করে। আসলে সাপটা এমন ভাবে বাগানের কোনায় ঢুকেছিল যে বারবার চেষ্টা করার পরেও ওটাকে সহজ পদ্ধতিতে বের করা সম্ভব হচ্ছিল না কিছুতেই।

তবে শেষ পর্যন্ত উপস্থিত সকলকে অবাক করে দিয়ে অনেক চেষ্টা সহকারে ওই সাপটিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন সর্পরক্ষক যুবক। যা দেখে যাদের বাড়িতে সাপ ঢুকেছিল তারা সহ উপস্থিত সকলেই অবাক হয়ে যায়। একটি লোহার রডের সাহায্যে সাপটিকে বের করে নিয়ে আসা হয়।লোহার রডটা করে একটা একটা কাপড়ের ব্যাগ জড়িয়ে মুরে ধরা হয় আর সেটার মধ্যেও সাপটা খুব জোরে আক্রমণ করতে যায়।

এতটাই জোরে ছোবল মারতে যায় যেটা আপনারা নিজের চোখে দেখলে বেশি মজা পাবেন। তারপরে ওই ব্যগটাকে কামড়ে ধরে সাপটা তারমানে ভাবুনতো সাপটা কতটা রেগে রয়েছে যখন তখনো ও কাউকে আক্রমণ করতে পারে। সাপটা যখন রেগে যাচ্ছে তখন ওর পুরো শরীরটাই ফুলে উঠছে।

এবার আসুন পাঠকদের আমরা এই সাপটি সম্পর্কে কিছু জানিয়ে রাখি। এটি হলো রাসেল সাপ। ভুল করেও যদি কোন ব্যক্তিকে এই সাপ একবার দংশন করে থাকে তাহলে সেই ব্যক্তির মৃত্যু একেবারেই নিশ্চিত ধরে নিন। এই সাপটির বিষ হয় হোমো টক্সিক প্রকৃতির। অনেক সময় এই সাপ কামড়ানোর সাথে সাথে বোঝা যায় না। যে জায়গাটায় সব কামড়িয়েছে সেই জায়গাটা চুলকাতে শুরু করে।

ভাইরাল এই ভিডিওতে যে মহিলাকে সাপটি কামড়ে দিয়েছিল তাকে সাথে সাথে হসপিটালে নিয়ে যাওয়ার কারণে তার কোন ক্ষতি হয়নি।। তাই অবশ্যই কোনদিন আপনাকে কোন বিষধর সাপ কামড়ালে তন্ত্র মন্ত্র বা ঝাড়ফুকের সাহায্য না নিয়ে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের কাছে যাবেন। মির্জা মোহাম্মদ আরিফ নামের একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে যা এখনো পর্যন্ত প্রায় লক্ষাধিক মানুষ দেখে ফেলেছেন।

Back to top button