সংসারে নেমে এসেছে আর্থিক সংকট! বাড়ির এইদিকে লাগান অ্যালোভেরা গাছ, ঘুরবে ভাগ্যের চাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন: অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী গাছের মধ্যে কত গুনাগুন রয়েছে তা হয়তো আপনাদের অনেকেরই অজানা! রূপচর্চা থেকে শুরু করে চুলের যত্ন সবেতেই মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে এই গাছ। পাশাপাশি বাস্তুশাস্ত্রবিদদের মতানুযায়ী, এই গাছ কিন্তু বাড়িতে সুখ আর সমৃদ্ধি নিয়ে আসতেও সাহায্য করে থাকে। ভাগ্য পরিবর্তনে এই কাজ ব্যাপক ভূমিকা পালন করে থাকে।

তবে তার জন্য অবশ্যই আপনাকে বাড়িতে এই গাছ নিয়ে আসতে হবে এবং তা সঠিক জায়গায় রেখে লালন-পালন করতে হবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা ভাগ্য নির্ণায়ক এই গাছ বাড়িতে লাগানোর উপায় এবং অন্যান্য তথ্য জেনে নেব। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই প্রতিবেদনের মূল পর্বে যাওয়া যাক।

অ্যালোভেরা গাছ কোথায় লাগাবেন?

১) বাড়ির পূর্ব অথবা উত্তর দিকে সবসময় এই গাছ লাগাতে হয়।উত্তর বা পূর্ব দিকে খোলা মাটিতে অথবা টবের মধ্যে খুব সহজেই আপনারা এই গাছ রাখতে পারেন। তবে অন্য কোন বড় গাছ যেন এই গাছকে আড়াল করে না দিতে পারে সেদিকে কিন্তু আপনাদের বিশেষ ভাবে নজর দিতে হবে।

২)এই গাছ কিন্তু অবশ্যই উত্তর-পূর্ব দিকে মুখ করেই রাখবেন। নয়তো এটা কিন্তু বিপরীত প্রতিক্রিয়াও সৃষ্টি করতে পারে। গাছ যাতে জল আর সূর্যের আলো সঠিকভাবে পায়।

৩) তাইলে আপনারা এলোভেরা বা ঘৃতকুমারী গাছ কিন্তু ঘরের ভেতরেও রেখে দিতে পারেন। এই গাছ ঘর থেকে নেগেটিভ এনার্জি দূর করে এবং অক্সিজেনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। সুতরাং অবশ্যই এলোভেরা গাছ বাড়িতে এনে লাগাতে পারেন।

অ্যালোভেরার উপকারিতা:

এই গাছের এত পরিমানে উপকারী দিক রয়েছে যা হয়তো বলে শেষ করা যাবে না।অ্যালোভেরার রস ত্বক এবং চুলের জন্য ভীষণভাবে কার্যকরী। নানান ধরনের টোটকার মাধ্যমে এটাকে চুল এবং ত্বকে লাগানো যেতে পারে। পাশাপাশি এর সাহায্যে আপনারা কিন্তু শরবত বানিয়েও খেতে পারেন।

উপরিয়োক্ত বিষয়গুলি ছাড়াও এই গাছের রস খুশকি, গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল, ডায়াবেটিস, ক্যান্সার, কিডনিতে পাথরের মতো সমস্যা দূর করে দেয়। সুতরাং আর কোনো রকমের ভাবনা-চিন্তা না করে বাস্তুশাস্ত্র অনুযায়ী বাড়ির পরিবার সঠিক রাখতে এবং নিজেদের সুস্থ অবস্থায় রাখতে আজি বাড়িতে নিয়ে চলে আসুন অ্যালোভেরা গাছ। আজকের এই প্রতিবেদনে শেয়ার করা বিশেষ টিপসগুলি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button