রান্নাঘরের জেদি তেল চিটচিটে ভাব নিমেষেই হবে পরিষ্কার! শুধু ব্যবহার করুন এই দুর্দান্ত কার্যকরী ট্রিকস

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাথরুম এমন একটি জায়গা যেটি অত্যন্ত সহজে নোংরা হয়ে থাকে। পরিষ্কার করা হলেও দেখবেন মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই কিন্তু বাথরুমের টাইলস এবং অন্যান্য অংশ নোংরা হয়ে যায়। আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন না এই টাইলস পরিষ্কার করার বিশেষ কিছু পদ্ধতি রয়েছে; যেভাবে পরিষ্কার করলে কখনোই কিন্তু অল্প সময়ের মধ্যে আবারও বাথরুম ময়লা হয়ে উঠবে না।

আমরা সকলেই বাজার চলতি নানান ধরনের রাসায়নিক জিনিস বাথরুম পরিষ্কার করার কাজে ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু সেগুলি ব্যবহার করার পরেও কিন্তু বাথরুমের পিচ্ছিল ভাব বা ময়লা সম্পূর্ণরূপে দূর হয় না। টাইলস নোংরা হয়ে গেলে যেমন দেখতে খারাপ লাগে ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু অত্যন্ত পিচ্ছিল হয়ে গেলে একটা পড়ে যাওয়ার ভয় থাকে। তাই অবশ্যই নির্দিষ্ট সময় অন্তর আপনাদের টাইলস পরিষ্কার করে নেওয়া প্রয়োজন।

বাথরুম বা রান্না ঘরের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য এবার সর্বপ্রথম আপনাদেরকে একটি পাত্রে জল গরম করে নিতে হবে।। জল গরম হয়ে যাওয়ার পর এতে কিছুটা পরিমাণ লেবুর রস দিয়ে দিন। চাইলে আপনারা কিন্তু লেবু ব্যবহার করার পর সেই খোসাও এতে ব্যবহার করতে পারেন। লেবুর রস বা লেবুর খোসা জলটিকে কিছুক্ষণ গরম করে নেওয়ার পর তা একটি অন্য পাত্রের মধ্যে তুলে রাখুন। তারপর নিয়ে নিন কিছুটা পরিমাণে বেকিং সোডা। যেকোনো জিনিস পরিষ্কার করার কাজেই কিন্তু বেকিং সোডা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

লেবুর খোসার সহ জলটির মধ্যে বেকিং সোডা ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পর কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে থাকুন। ভালোভাবে উপকরণ দুটি মিশে গেলে একটি স্প্রে বোতলে এই মিশ্রণটিকে ভরে নিন। ঝাকুনি দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করে সম্পূর্ণ বাথরুম বা রান্নাঘরের টাইলসে এই মিশ্রণটি স্প্রে করে দিতে থাকুন।। এবারে মিনিট পাঁচেক সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করে ঝাটার সাহায্যে সমস্ত বাথরুম ভালো করে ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অন্ততপক্ষে সপ্তাহে একবার এই পদ্ধতি অবলম্বন করে বাথরুম বা রান্নাঘরের টাইলস পরিষ্কার করতে পারলে দেখবেন কখনোই এতে কালো দাগ পড়বে না বা টাইলস হলদেটে হয়ে যাবে না। পাশাপাশি এভাবে যদি আপনারা টাইলস পরিষ্কার করেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু এটি অনেকটাই জীবাণুমুক্ত থাকবে। বেকিং সোডা এবং লেবুর খোসা যেহেতু সহজলভ্য তাই এর জন্য খুব একটা অর্থ খরচের প্রয়োজন নেই আপনাদের। বাজারচলতি বিভিন্ন দামি জিনিস ব্যবহার করার থেকে সম্পূর্ণ ঘরোয়া এই পদ্ধতিটি কিন্তু অনেকটাই কার্যকরী তার প্রমাণ আপনারা একবার ট্রাই করলে হাতেনাতেই পাবেন।

Back to top button