বেকার না বসে থেকে অল্প পুঁজিতে শুরু করুন এই দুর্দান্ত ব্যবসা, রিস্ক কমের সাথে লাভও হবে প্রচুর

নিজস্ব প্রতিবেদন: অর্থ উপার্জনের জন্য মানুষ যে সমস্ত পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকেন তার মধ্যে একদম সবার প্রথমেই রয়েছে ব্যবসা। এতদিন পর্যন্ত অনেকেই বিভিন্ন উচ্চস্তরীয় সরকারি আর বেসরকারি চাকরির উপর নির্ভরশীল ছিলেন। তবে বিগত কিছু সময় ধরে প্রায় প্রতিটি চাকরির ক্ষেত্রেই নিয়োগ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। ফলস্বরূপ সাধারণ মানুষের কাছে আর ব্যবসার রাস্তা ধরা ছাড়া উপায় নাই।

যারা পুরনো ব্যবসায়ী রয়েছেন তাদের এই ক্ষেত্রে কোন রকমের সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় না। তবে নতুন ব্যবসায়ীরা কিন্তু প্রায় সময় এই বিষয়গুলি নিয়ে চিন্তায় পড়ে থাকেন।। কোন ধরনের ব্যবসা করলে সেটা মার্কেটে চলবে এই বিষয়ে প্রথমেই কিন্তু আপনাদের স্পষ্ট ধারণা তৈরি করে নেওয়া প্রয়োজন। না হলে আপনার ব্যবসা কখনোই সঠিক রাস্তা ধরতে পারবে না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে একদম স্বল্প খরচের মধ্যে একটা ইউনিক বিজনেস আইডিয়া আপনাদের সাথে শেয়ার করব। এই ধরনের ব্যবসা শুরু করতে পারলে আপনাদের কিন্তু আর ভবিষ্যতের জন্য চিন্তা করতে হবে না।

কটন উইকের ব্যবসার আইডিয়া:

আপনারা যারা ইউনিক ব্যবসার আইডিয়া খুঁজছেন তাদের জন্য এই কটন উইকের ব্যবসার আইডিয়া সব থেকে আদর্শ হতে পারে। তবে তার আগে আপনাকে অবশ্যই এই ব্যবসা সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জেনে নিতে হবে। কটন উইক এর ব্যবসা হল আসলে তুলো দিয়ে সলতের ব্যবসা।

বিভিন্ন পুজো পার্বণের কাজে এটি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আগেকার দিনে সাধারণত এটি বাড়িতে তৈরি করা হতো। তবে যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে সবকিছুতে যেমন পরিবর্তন এসেছে ঠিক তেমনভাবেই এসেছে এই সলতে তৈরীর ক্ষেত্রে। খুব সহজেই মেশিনের মাধ্যমে আপনারা কিন্তু আজকাল সলতে তৈরি করে নিতে পারবেন। একদম সরু এবং লম্বাটে ধরনের এই সলতেগুলো হয়ে থাকে যা বাজারে বেশ ভালো দামে বিক্রি করা যেতে পারে।

কটন উইক তৈরির জন্য দুই ধরনের মেশিন পাওয়া যায় একটা হল অটোমেটিক এবং অপরটি হল সেমি অটোমেটিক। সেমি অটোমেটিক মেশিনের ক্ষেত্রে আপনাদের তুলোগুলো হাত দিয়ে কাটিং করে মেশিনে দিয়ে দিতে হবে। অন্যদিকে অটোমেটিক মেশিনের ক্ষেত্রে কিন্তু সেটাও করার প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র কাঁচামাল গুলো মেশিনে দিলেই কিন্তু সলতে তৈরি হয়ে বেরিয়ে আসবে। সেমি অটোমেটিক মেশিন চালালে আপনাদের চার থেকে পাঁচ ঘন্টায় প্রায় ৫ কেজি পর্যন্ত প্রোডাকশন হবে। অন্যদিকে অটোমেটিক মেশিনের ক্ষেত্রে কিন্তু ৮ ঘণ্টায় প্রায় ১০ থেকে ১২ কেজি পর্যন্ত প্রোডাকশন সহজেই হয়ে যাবে।

এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে আপনাদের প্রথমেই ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট থেকে মেশিন কিনতে হবে। যদি ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট থেকে মেশিন কেনেন সেক্ষেত্রে কিন্তু খরচ অনেকটাই কম পড়বে। সেমি অটোমেটিক মেশিনের দাম ৩০ হাজার টাকা এবং ফুললি অটোমেটিক মেশিনের দাম পড়বে ৮০ হাজার টাকা।

যদি সেমি অটোমেটিক মেশিন কেনেন সেক্ষেত্রে মোটামুটি ৫০ হাজার টাকার মধ্যেই কিন্তু আপনার ব্যবসা শুরু হয়ে যাবে। কটন উইক প্যাকেজিং করতে হলে আপনাদের কিন্তু ছোট ট্রান্সপারেন্ট প্লাস্টিকের কাগজ কিনতে হবে। এগুলো খুব সহজেই লোকাল মার্কেটে পেয়ে যাবেন আপনারা। সুতরাং আজই দেরি না করে শুরু করে দিন এই ব্যবসা।

মেশিন কোথা থেকে কিনবেন?

কটন উইকের ব্যবসা শুরু করতে চাইলে যদি আপনারা মেশিন কিনতে আগ্রহী হন সেক্ষেত্রে নিচের দেওয়া ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারেন। মেশিন আর কাঁচামাল দুটোই সহজলভ্য দামে এখানে পেয়ে যাবেন।
Royal machinery
Eser mineral complex
Muragacha,jugberia, Sodepur road , opposite lokenath mandir, Madhyamgram.
Kolkata – 700110
Contact :7980111516/8910085500

Back to top button