বেকার না বসে থেকে মাত্র ৩ হাজার টাকায় শুরু করুন এই দুর্দান্ত ব্যবসা, প্রতিদিন ইনকাম হবে হাজার গ্যারান্টি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিগত বছরগুলোতে বহু মানুষ কিন্তু ব্যবসা শুরু করার প্রতি বিশেষ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। যারা চাকরি করেন তারাও কিন্তু এই ব্যবসার কাজে ঢুকেছেন। আসলে নিজস্ব একটি স্বাধীন ব্যবসার মধ্যে যে আনন্দ রয়েছে সেটা কিন্তু পরের অধীনতায় চাকরি করে নেই।। সত্যি কথা বলতে গেলে বিগত কয়েক যুগ ধরেই যেভাবে সরকারি আর বেসরকারি চাকরিতে নিয়োগ বন্ধ হয়ে গিয়েছে তাতে সাধারণ মানুষের কাছে কিন্তু ব্যবসা ছাড়া আর দ্বিতীয় কোন বিকল্প নেই।।

প্রতিদ্বন্দ্বিতার বাজারে ঠিক কোন ধরনের পণ্য নিয়ে ব্যবসা শুরু করা লাভজনক সেটা নিয়েই অনেকের মাথায় নানান ধরনের প্রশ্ন রয়েছে। আজ আমরা সেই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর নিয়ে এই একটি মাত্র প্রতিবেদনে হাজির হয়েছি। প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনাকে জীবনে কিন্তু আর কখনো ব্যবসা করা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

সিল্ক স্ক্রিন প্রিন্টিংয়ের ব্যবসা কিভাবে শুরু করবেন?:
কমবেশি সকলেই চেষ্টা করেন একেবারে অল্প মূলধনের মধ্যে ব্যবসার কাজ শুরু করার। কিন্তু বর্তমান বাজারে কি আদৌ কম পুঁজিতে ব্যবসা সম্ভব? অবশ্যই যদি সঠিক পণ্য আর সঠিক ক্ষেত্রে বেছে নেওয়া যায়।আপনারা চাইলে কম পুজিতে স্ক্রিন প্রিন্টিং এর ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে অনেকেই রয়েছেন যারা এই ব্যবসা সম্পর্কে কিছু জানেন না। স্ক্রিন প্রিন্টিং হল এমন একটি ব্যবসা যার মাধ্যমে আপনারা বিভিন্ন ধরনের প্রিন্টিং এর কাজ করতে পারবেন।

নানান ধরনের প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে শুরু করে নন ওভেন ব্যাগ, ভিজিটিং কার্ড অথবা বিয়ের কার্ড, কোন খাম থেকে শুরু করে অনেক কিছুর উপরেই প্রিন্টিং করা যেতে পারে এর সাহায্যে। এই ব্যবসার ক্ষেত্রে কিন্তু প্রতিদ্বন্দ্বিতা এখনও ভীষণই কম। সুতরাং নিশ্চিন্তে আপনারা এই কাজে অংশগ্রহণ করতে পারেন। স্ক্রিন প্রিন্টিং এর ব্যবসা দুরকম ভাবে শুরু করা যেতে পারে। প্রথমত যদি আপনারা চান মেশিনের মাধ্যমে শুরু করতে পারেন।

তবে মেশিন কেনার মতন মূলধন যদি আপনার কাছে না থাকে সেক্ষেত্রে সাধারণ কেমিক্যাল ব্যবহার করেও কিন্তু প্রিন্টিং এর এই কাজ করা যেতে পারে। কেমিক্যাল ব্যবহার করে কিভাবে প্রিন্ট করা হবে সেটা জানার জন্য আপনারা প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটা দেখে নিতে পারেন।

যেহেতু এর থেকে বিভিন্ন প্রিন্টিং এর কাজ করা হচ্ছে, তাই বাজারে এই ধরনের ব্যবসার কিন্তু ব্যাপক প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলা যায়। কারণ বিভিন্ন জিনিস প্রিন্টিং ছাড়া কিন্তু কোন মতেই ব্যবহার করা যাবে না। কোন দোকানের নাম লেখানো হোক বা বিয়ের কার্ড ছাপানো সবকিছুতেই তো প্রয়োজন প্রিন্টিং এর।

যদি আপনার পুঁজি বেশি থাকে সেক্ষেত্রে ভালো করে মূলধন বিনিয়োগ করে আপনারা মেশিনের সাহায্যেও কিন্তু নিজেদের কাজ শুরু করতে পারেন। যদি আপনার এই ব্যবসা শুরু করতে চান সেক্ষেত্রে কোথায় মেশিন বা কাঁচামাল কিনবেন তার জন্য একটি ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিটের ঠিকানা আমরা আপনাদের প্রতিবেদনের একদম শেষে দিয়ে দেবো।

ব্যবসা শুরু করতে আগ্রহী থাকলে আপনারা এখানে যোগাযোগ করে নিতে পারেন। মোটামুটি আপনাদের 3500 টাকা মত খরচ পড়বে প্রশিক্ষণ নিতে গেলে। এর মধ্যেই কিন্তু আপনারা কাঁচামালও সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। মেশিন কিনলে ইনস্টলেশন এবং অন্যান্য সুবিধা দেওয়া হবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

Sonarpur Super Art
Prop – Mr.Alokesh Roy
Khirish tala, Sonarpur.
Kolkata – 700150
Contact – 9002886369/8335815276.

Back to top button