একদম স্বল্প পুঁজিতে শুরু করুন এই দুর্দান্ত ও সিক্রেট ব্যবসা, লাভের মুখ দেখবেন ১২ মাস গ্যারান্টি!

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে মানুষের মধ্যে সংগ্রাম আর প্রতিযোগিতার দুটোই যেন এক ধাক্কাতে প্রায় কয়েক গুণ বেড়ে গিয়েছে। বিশেষ করে করোনা আবহের পর থেকেই দেশের বহু সরকারি আর বেসরকারি কর্মক্ষেত্র অচল হয়ে পড়েছে। যার ফলস্বরূপ একদিকে যেমন বেকার যুবক-যুবতীরা কোনভাবেই কাজ পাচ্ছেন না ঠিক তেমনভাবেই কিন্তু কাজ হারিয়ে বসে রয়েছেন বহু পুরনো দিনের কর্মচারী। চাকরির কোন বিশেষ আশা না থাকায় শেষ পর্যন্ত আজকাল অনেকেই অর্থ উপার্জনের জন্য ব্যবসার দিকে ঝুকে চলেছেন।।

কিন্তু তাতেই যে সমস্যার শেষ হয়ে যাবে এমনটা কিন্তু নয়। কারণ ব্যবসা করতে গেলে একটা স্পষ্ট ধারণা এবং ব্যবসায়িক বুদ্ধি থাকা দরকার যা সাধারনত নতুন ব্যবসায়ীদের মধ্যে কিন্তু একেবারেই থাকে না। আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে একেবারে স্বল্প খরচে একটি ইউনিক বিজনেস আইডিয়া শেয়ার করে নিতে চলেছি যা নতুন ব্যবসায়ীরা খুব সহজেই শুরু করতে পারেন।

ব্যবসা করতে গেলে যে একটি ভালো অংকের মূলধন প্রয়োজন তা কিন্তু কম বেশি সকলেই জানেন। কিন্তু সবার ক্ষেত্রে তো আর প্রচুর পরিমাণে অর্থ দিয়ে ব্যবসা শুরু করা সম্ভব হয় না। তাই অবশ্যই প্রয়োজন বিকল্প পদ্ধতি। এবার আর সময় নষ্ট না করে আমাদের আজকের এই প্রতিবেদন আর সঙ্গে থাকা ভিডিওটা দেখে নেওয়া যাক।

কি ধরনের ব্যবসা শুরু করবেন:

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের বলব মোমবাতির ব্যবসার কথা যার বাজার চাহিদা ঠিক কতটা সেটা হয়তো আলাদা করে বলার প্রয়োজন নেই।। দৈনন্দিন বিভিন্ন জায়গা থেকে শুরু করে পূজোর সময় এই মোমবাতির চাহিদা থাকে ব্যাপক পরিমাণে। সব থেকে বড় ব্যাপার এই মোমবাতির ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনাদের যে বড় অংকের অর্থ মূলধন হিসেবে খরচ করতে হবে এমনটাও কিন্তু নয়। একেবারে স্বল্প বিনিয়োগেই কিন্তু আপনারা নিজেদের স্বপ্নের ফ্যাক্টরি তৈরি করে নিতে পারবেন।

এই ব্যবসা শুরু করতে কত মূলধন প্রয়োজন এবং কিভাবে শুরু করবেন?

মোটামুটি ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা হাতে নিয়েই আপনারা এই মোমবাতির ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। অনেক জায়গাতেই ডাইস থেকে কিভাবে মোমবাতি তৈরি করে সেটাকে বাজারজাত করা যেতে পারে সেটা ট্রেনিং দেওয়া হয়ে থাকে। আমরা আজকে আপনাদের এমন একটি ঠিকানার কথা ও বলে দেবো যেখান থেকে ব্যবসা শুরু করতে চাইলে আপনারা প্রশিক্ষণ নিয়ে নিতে পারবেন।

প্রত্যেকটি সাইজের মোমবাতির জন্য এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে আপনাদের আলাদা ধরনের ডাইস কিনতে হবে। মোমবাতির উপরে চাইলে আপনার ডিজাইন করতে পারবেন। দেখবেন বাজারের সাধারণত দুই ধরনের মোমবাতি বিক্রি হয়ে থাকে যার মধ্যে একটা একটু প্যাচানো ধরনের এবং আর একটা সম্পূর্ণ সমতল। এছাড়াও কাঁচামাল হিসেবে আরো একটি জিনিস প্রয়োজন হবে তাহলে মোমবাতির সুতো যেটা কাটিং করে আপনাদের ডাইসে পরিয়ে দিতে হবে।।

মোমবাতির ব্যবসা শুরু করতে চাইলে কোথায় যোগাযোগ করবেন?

আজ আমরা যে বিশেষ ব্যবসাটির কথা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিলাম যদি এটি আপনারা শুরু করতে চান সেক্ষেত্রে ডাইস এবং অন্যান্য কাঁচামালের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন কলকাতার সোনারপুরে অবস্থিত Super art factory তে। শুধুমাত্র কাঁচামাল নয় এখানে আপনারা কিন্তু একেবারে উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করার জন্য সম্পূর্ণ সাহায্য আর প্রশিক্ষণ পেয়ে যাবেন। সুতরাং আর সময় নষ্ট না করে যদি আপনারা এই ব্যবসার কাজে হাত দিতে চান সেক্ষেত্রে 9002886369/8335815276 এই দুটি নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।।

Back to top button