নামমাত্র পুঁজি দিয়ে শুরু করুন এই দুর্দান্ত ও ইউনিক ব্যবসা! মাসে হবে যা ইনকাম তা কল্পনার বাইরে

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাচ্চা থেকে বড় সকলেই কিন্তু চিপস খেতে অত্যন্ত পছন্দ করে থাকেন। এটি এতটাই মুখরোচক খাবার যে কোন মানুষ কিন্তু সহজে এটিকে এড়িয়ে চলতে পারেন না। বিভিন্ন বাজার চলতি দামি ব্র্যান্ডের চিপস কিন্তু খুব সহজেই বিক্রয় হয়ে থাকে।

কিন্তু আপনারা জানেন কি আজকাল অনেক ছোটখাট কোম্পানিও নিজেদের ব্র্যান্ডের চিপস তৈরি শুরু করেছে যা একটি উল্লেখযোগ্য ব্যবসা। খুব সামান্য খরচে আপনারাও কিন্তু এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এই ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনার সবিশেষ মূলধনের প্রয়োজন হবে না। অল্প কিছু টাকা খরচ করে খুব সহজেই এই ব্যবসা আপনারা শুরু করতে পারেন এবং এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন।

তবে এই ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রথমেই আপনাকে চিপস তৈরির মাল মসলা এবং একটি মেশিন কিনতে হবে। এই মেশিনটি স্বয়ংক্রিয় অর্থাৎ আলাদা করে আপনার কিন্তু কোন শ্রমিকের প্রয়োজন পড়বে না। চাইলে বাড়ির কোন একটি ঘর ব্যবহার করেই আপনারা এই চিপস তৈরির ব্যবসা শুরু করতে পারেন সহজেই।

সাধারণত বাজারে সাধারণ আলু ১২০০ টাকা প্রতি কুইন্টাল, যদি আপনি মিষ্টি আলুর চিপস বানাতে চান এর জন্য আপনাকে একটু বেশি টাকা দিয়ে মিষ্টি আলু কিনতে হতে পারে, যেখানে মিষ্টি আলুর দাম ৪ হাজার ৬০০ টাকা প্রতি কুইন্টাল।আবার লবন, ১৮ থেকে ২০ টাকা প্রতি কিলোগ্রাম এবং লঙ্কার গুঁড়ো ১৮০ থেকে ২০০ টাকা প্রতি কিলোগ্রাম। চিপস তৈরির উপকরণ কেনার জন্য এই সাধারণ খরচটুকু আপনাকে কিন্তু করতেই হবে।।

এবারে আসা যাক মেশিনের কথায়। চিপস বানানোর সবচেয়ে ছোট যে মেশিনটি সেই মেশিনের দাম ৩৫,০০০-৫০,০০০ টাকা। আপনি যদি চান এর থেকেও বেশি দাম দিয়ে মেশিন কিনতে পারেন। সেটা আপনার সুবিধামতো নিতে পারবেন আপনি।আপনি যদি এই ব্যবসার জন্য মেশিন ব্যবহার করতে চান, তাহলে আপনার প্রায় ২০০ বর্গমিটার জায়গার প্রয়োজন পড়বে। তাছাড়া আপনি আপনার ঘরেতেও মেশিন বসিয়ে এই কাজ করতে পারেন।তাছাড়া এই মেশিন সম্পূর্ণ অটোমেটিক সিস্টেম হয়ে থাকে। ২০০ বর্গমিটার জায়গার মধ্যে আপনি এই ব্যবসার সম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

Back to top button