রান্নাঘরে থাকা শিলপাটাতে ধার কমে গেছে! চিন্তা নেই! শুধু ব্যবহার করুন চোখের সামনে থাকা এই একটি দুর্দান্ত জিনিস, ধার আসবে নতুনের মতো

নিজস্ব প্রতিবেদন: আগেকার দিনে যখন খুব একটা আধুনিক প্রযুক্তি ছিল না মসলা বাটা থেকে শুরু করে যে কোন বাটনার কাজেই আমাদের সবার প্রথমেই মনে পড়তো শিলনোড়ার কথা। শিলনোড়াতে বাটা মসলার স্বাদ যেন এক কথায় আলাদাই হয়। তবে সময়ের সাথে সাথে মিক্সার গ্রাইন্ডার থেকে শুরু করে অন্যান্য জিনিসের বেশি ব্যবহারের কারণে কিন্তু আজকাল অনেকেই শিলনোড়া ব্যবহার করেন না।

এবার এই কারণে যে সমস্যাটা সবথেকে বেশি দেখা যায় তা হল যখন শিলনোড়ায় ধার চলে যায় তখন সেটা আর ধার করার জন্য লোক পাওয়া যায় না। পূর্ববর্তী সময়ে এরা বাড়িতে এসেই ধারের কাজ করে যেত। তবে যেহেতু এখন আর সেই দিন নেই সুতরাং আপনাদের ঘরের মধ্যেই এই শিলপাটা ধার করার ব্যবস্থা করে নিতে হবে। সহজেই আপনারা কিন্তু এই কাজটা বাড়িতে করতে পারেন। শিলনোরা ধার করার দুটো অভিনব কৌশল আমরা আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব। চলুন আর দেরি না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

শিলনোড়া ধার করার দুটো অভিনব কৌশল:

প্রথম পদ্ধতি : শিলনোড়া ধার করার জন্য প্রথম যে পদ্ধতিটি আমরা শেয়ার করব তাতে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে ডিমের খোসা এবং কিছুটা পরিমাণ মোটা দানার লবণ। শীলের উপরে কিছুটা পরিমাণ ডিমের খোসার সাথে এই মোটা দানা লবণ রেখে আপনারা নোড়া দিয়ে ভাল করে মিহি করে বেটে নিন।

ঠিক যেমনভাবে মসলা বাটার কাজটি করা হয় তেমনভাবেই এই কাজটা করবেন। এই ডিমের খোসা আর লবণ খুব ধারালো হয়ে থাকে যা শিলের পুরনো ধার ফেরত আনতে আপনাদের সাহায্য করবে। দীর্ঘ সময় ধরে মসলা বাটার কারণে শিলের ছিদ্রগুলো বুঝে যায় যার ফলস্বরূপ এর ধার চলে যায়।

দ্বিতীয় পদ্ধতি: শিলনোরা ধার করার যে দ্বিতীয় পদ্ধতিটির কথা আমরা আপনাদের বলব তাতে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে একটি নারকেলের মালা। নারকেল বের করে শুধুমাত্র মালা অংশটি নিয়ে নেবেন এবং একটা সুতির কাপড় দিয়ে ঢাকনা চাপা দেবেন।

এবার শীলের ওপরে রাখা এই মালাকে আপনাদের একটা কাঠের টুকরো বা নোড়ার সাহায্যে টুকরো করে ভেঙে নিতে হবে এবং তারপর কিছুক্ষণ মসলা বাটার মতন করে বাঠতে হবে। এই মালা খুব ধারালো আর শক্ত হয়ে থাকে তাই কখনোই মিহি করে গুড়ো হবে না কিন্তু এর ধারালো ভাব খুব সহজেই আপনার শিলনোড়ার ফেরত নিয়ে আসবে।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা যে দুটি পদ্ধতি আলোচনা করলাম দুটোই কিন্তু অত্যন্ত কার্যকরী আর অল্প সময়ের মধ্যে করা যাবে। সুতরাং বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়েও যদি আপনি শিলনোড়া ব্যবহার করে থাকেন রান্নার কাজে এবং ধার করতে গিয়ে আপনাদের সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তাহলে অবশ্যই আমাদের আজকের দেওয়া এই দুটি টিপস পালন করুন। এই ধরনের আরও কিচেন টিপস পেতে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button