স্বামী রোশন এখন পুরোনো, নতুন প্রিয় মানুষের সাথে আনন্দে কেক কাটলেন শ্রাবন্তী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ক্রমশ শ্রাবন্তীর জীবন থেকে ভোকাট্টা হয়ে যাচ্ছে রোশন সিং জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে তাদের বিবাহ হলেও এক বছরের বেশি সম্পর্ক টেকেনি। ম-নোমা-লিন্যের জে-রে ভে-ঙে গেছে এই সম্পর্ক। । যদিও শ্রাবন্তীর জীবনে পুনরায় ফিরতে চেয়েছিলেন কিন্তু অভিনেত্রী আর রাজী নন । কারণ তিনি মনে করেন যে বিষয়টির দিকে একবার বেরিয়ে আসা গেছে সে বিষয়ে আর নতুন করে ফেরা উচিত নয়। কিন্তু এ কথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই যে শ্রাবন্তীর পুনরায় নতুন প্রেমে লিপ্ত হয়েছে ।

আমরা শ্রাবন্তীর জীবন কাহিনী সম্পর্কে প্রত্যেকে অবগত । কবে বিয়ে হয়েছে কিভাবে বিয়ে হয়েছে এবং কাকে কাকে বিয়ে করেছে সবটাই আমি-আপনি জানি । মডেলার কিষাণ-কে বিয়ে করে বিচ্ছেদের পর ২০১৯ সালে জাঁকজমকভাবে বিয়ে করেন তিনি ব্যবসায়ী রোশন কে । কিন্তু গত বছর দুর্গা পুজোর সময় থেকে তারা আলাদা থাকতে শুরু করে । এ বিষয়ে রশান জানায় যে শ্রাবন্তী তার কাছ থেকে কিছু সময় চেয়েছিল একা থাকার জন্য । সেই সূত্রেই তারা দুর্গাপূজা থেকে আলাদা থাকতে শুরু করছে । কিন্তু মাঝখানে এত দূরত্ব বেড়ে যাবে তিনি কখনোই বুঝতে পারেনি ।

এমনকি তার পাঞ্জাবের বাড়ির মানুষ জন্য এখনো এসব কিছু জানেনা তবে এইসব বিষয়ে একেবারে বিন্দুমাত্র ওয়াকিবহাল নয় শ্রাবন্তী তিনি ফিরেছেন নিজের ছন্দে । এই সমস্ত ক-টাক্ষ স-মালোচনা কে পিছনে ফেলে ক্যারিয়ার জীবনে মন দিয়েছেন শ্রাবন্তী । তার পাশাপাশি রাজনৈতিক জগতে পদার্পণ ঘটেছে তার । কিন্তু সম্প্রতি কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে শ্রাবন্তী নাকি পুনরায় প্রেমে লি-প্ত হয়েছে তারই আবাসনে এক ব্যবসায়ী সাথে যার নাম অভিরুপ নাগ চৌধুরী ।এবং এই সম্পর্ক পরিবারের সম্মতিতে হয়েছে এমনটা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই ।

সম্পর্কের এক মাস পূর্ণ হয়ে গেছে । ইতিমধ্যে তার প্রেমিকের জন্মদিন চলে এসেছে । তাই জন্মদিনের দিন প্রেমিককে উপহার হিসেবে হীরের প্লাটিনামের আংটি উপহার দিয়েছেন শ্রাবন্তী । সম্প্রতি একটি ভিডিও শ্রাবন্তী পোস্ট করেছে। ভিডিও দেখা যাচ্ছে শ্রাবন্তী হট চকলেট কেকের সামনে বসে লোলুপ দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে কেকের দিকে।সেখানে শ্রাবন্তীকে লাল রঙের একটি শর্ট ড্রেস পড়ে থাকতে দেখা গেছে। আর এই ছবি দেখে আফসোসে প্রায় ফেটে পড়েছে রোশান। বুঝতে পারছেন পরিস্থিতি মোটেই সুবিধাজনক নয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button