দারুণ লাভজনক ৭ টি চমৎকার ব্যবসার আইডিয়া, অল্প বিনিয়োগ করেই শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরি পছন্দ করেন না । তাই ছোটবেলা থেকেই ব্যবসার উপর মনস্থির করে থাকে । সামান্য পরিমাণ বড় হলে ব্যবসায় নিযুক্ত হয়ে যায় তারা । কিন্তু কি ধরনের ব্যবসা করলে অধিক লাভ হবে সে বিষয়ে থাকছে অনেকগুলো প্রশ্ন । তাই আজকের প্রতিবেদন আপনাদেরকে এমন কয়েকটি ব্যবসার কথা বলতে চলেছি যেগুলিতে অধিক পরিমাণে লাভ থাকবে আসুন জেনে নেই সেগুলো কি কি।

বাচ্চাদের বিনোদনের সামগ্রী :-বর্তমান যুগের বাচ্চাদেরকে বিভিন্ন উপহার দেওয়া বা খেলনা ইত্যাদি বিনোদনের জন্য জিনিসপত্র কেনার প্রবণতা বেড়েই চলেছে অভিভাবকদের প্রতি । আগেকার যুগে এতটা পরিমাণে দেখা যেত না । কিন্ত আমরা যত আধুনিক হচ্ছি তত বাড়ছে এর চাহিদা । গ্রাম থেকে শহরে সকল জায়গাতে এর চাহিদা প্রায় একইরকম । তাই এই ধরনের ব্যবসার সাথে নিযুক্ত হতে পারলে আপনার নাম হতে পারে অনেকখানি ।

খেলাধুলার সামগ্রী:- এখনকার যুগের ছেলে মেয়েরা খেলাধুলার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত । বিভিন্ন ট্রেনিং সেন্টার থেকে তারা প্রশিক্ষণ নিচ্ছে আগেকার যুগে কিন্তু খেলাধুলার সামগ্রী হিসেবে বিশেষ কিছু কেনাকাটা করা হতো না । কিন্তু এখন তার প্রবণতা বেড়েছে অনেকটাই । তাই এই ধরনের ব্যবসা শুরু করতে পারেন । যেখানে ব্যাট বল উইকেট জার্সি বা বিভিন্ন ধরনের খেলার বিভিন্ন সামগ্রী পাওয়া যেতে পারে এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে।

উপহারের দোকান: আমরা যখন ভালো কোনো উপহার কিনতে চাই তখন সত্যিকারের ভালো মানের উপহার খুঁজে পাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। প্রত্যেকে চায় তার প্রিজনকে সুন্দর উপহার দিতে। সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে নিত্য নতুন গিফট আইটেমের শপ হতে পারে একটি আদর্শ মাঝারি ব্যবসা। আপনার লোকেশন যদি হয় কোনো স্কুল কলেজের পাশে তাহলে তা হবে উত্তম জায়গা। আপনি দর কষাকষি পছন্দ না করলে এই ধরনের ব্যবসা ফিক্সড প্রাইস করে নিতে পারেন।

ইলেকট্রিক পণ্যের ব্যবসা: ইলেকট্রিক পণ্যের ব্যবসা ছোট শহরে খুব একটা দেখা যায় না। তাই গ্রামে এবং গ্রামীণ বাজারে এমন একটি ইলেকট্রিক পণ্যের ব্যবসা দেয়া যেতে পারে। শুধুমাত্র একটি গ্রামকে কেন্দ্র করে একটি ইলেকট্রিক পণ্যের দোকান চলতে পারে।

ডিজিটাল পণ্য :- এখনকার যুগে প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে স্মার্টফোন বা ইলেকট্রনিক ডিভাইসের চাহিদা । সেই অর্থে বাড়ছে তার আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র চাহিদা যেমন ধরুন এখন যদি কেউ একটি স্মার্ট ফোন কেনে তাহলে তার সাথে অতি অবশ্যই একটি মেমোরি কার্ড হেডফোন ব্যাক কাভার গ্লাস প্রটেক্টর ইত্যাদি কিনবে । কাজেই এই ধরনের সরঞ্জামের ব্যবসা শুরু করতে পারেন ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button