বাড়িতেই এই সহজ ও গোপন ট্রিকসে লাগান পেয়ারা গাছ, অল্পদিনেই গাছ বাড়বে দারুণভাবে

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমাদের সকলের একটি অত্যন্ত পছন্দের ফল পেয়ারা। অনেকেই কিন্তু বাড়ির বাগানে এই ফলের গাছ লাগিয়ে থাকেন। আবার অনেকেই পরীক্ষামূলক পদ্ধতিতে বাড়িতে পেয়ারা গাছের চাষ করেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুধুমাত্র তাদের জন্য যারা বাড়িতে বাগান করতে ভালোবাসেন বা বাড়িতে গাছপালা লাগিয়ে চাষবাস করেন।

কাটিং পদ্ধতিতে আলু সাহায্য নিয়ে কিভাবে বাড়িতে পেয়ারা গাছ বড় করে তোলা সম্ভব তা নিয়েই আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আলোচনা করতে চলেছি।। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

প্রথমেই আপনাদের একটা পরিণত পেয়ারা ডাল নিয়ে নিতে হবে। এরপর একটা ছুরির সাহায্যে এর নিচের অংশটা কাটিং করে নিতে হবে এবং তারপর চেঁচে নিতে হবে। এরপর আপনাদের একটা খোসা শুদ্ধ আলু নিয়ে সেটাকে মাঝ বরাবর কাটতে হবে। সেই আলুর মাঝের অংশে এই পেয়ারা গাছের ডালটা ঢুকিয়ে দিন। কোন জায়গা বুঝতে অসুবিধা হলে আপনারা প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

এবার একটা টবের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ কোকোপিট নিয়ে তাদের জল দিয়ে মিশিয়ে নিন। এরপর সেই কোকোপিট থেকে কিছুটা অংশ নিয়ে একটা পলিথিনের মধ্যে রাখুন এবং তাতে আলু সহ পেয়ারা গাছটাকে মুড়িয়ে নিন। এবার আপনাকে একটা সুতোর সাহায্যে পলিথিনটাকে বেঁধে নিতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপে একটা বোতল নিয়ে তার উপরের অংশটাকে চাকুর সাহায্যে কেটে নিন এবং যে পেয়ারা গাছটাকে আপনারা নিয়েছেন তার পাতাগুলো এই বোতলের কাঁটা অংশ দিয়ে ভেতরে ঢুকিয়ে নিন। বোতলের ঢাকনা বন্ধ করে মোটামুটি আপনাদের কিছুদিন পর্যন্ত ফেলে রাখতে হবে। এরপর কয়েক দিনের মধ্যেই কিন্তু এই কাটিং থেকে আপনারা পেয়ারা চারা পেয়ে যাবেন। চারা টাকে কোন বড় টবে স্থানান্তর করে পরিমাণ মতো জল দিয়ে ধীরে ধীরে আপনাদের বড় করে তুলতে হবে।

আপনারা কিন্তু চাইলে জলের সাহায্যেও এই অঙ্কুরোদগমের কাজটা সম্পূর্ণ করতে পারেন।। জন্য একটি পরিণত পেয়ারা গাছের ডাল কিছুটা চেঁচে তাতে একটা প্লাস্টিকের গ্লাস লাগিয়ে নিন। সুতো দিয়ে জায়গাটাকে বেঁধে গ্লাসটাকে জলে পরিপূর্ণ করে দেবেন।

এই পদ্ধতিতে মোটামুটি কুড়ি দিনের মধ্যেই কিন্তু আপনারা সেই ডালের শেকড় দেখতে পেয়ে যাবেন। এই অবস্থায় ডালটাকে কেটে অন্য টবে বা মাটিতে স্থানান্তর করে পরিচর্যা সহ পেয়ারা গাছ আপনাদের বড় করে তুলতে হবে। গাছপালা সংক্রান্ত এই ধরনের আরো টিপস পেতে চাইলে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button