পয়সা দিয়ে দরকার নেই কেনার! প্লাস্টিক দিয়ে বাড়িতেই বিনা ঝামেলায় এই সহজ উপায়ে তৈরি করুন পেট্রোল, কাজ দেবে গ্যারান্টি

নিজস্ব প্রতিবেদন: আধুনিক যুগে দাঁড়িয়ে প্রত্যেক বাড়িতেই কিন্তু যানবাহন রয়েছে। দু চাকা হোক বা চার চাকা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই যানবাহন গুলি চালানোর জন্য প্রয়োজন পেট্রোল। কিন্তু যদি বাড়ি থেকে আপনার পেট্রোল পাম্প অত্যন্ত দূরে হয় তাহলে কি করবেন? আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমরা আপনাদের এই সমস্যার সমাধান করতে চলেছি। আজ আমরা বাড়িতেই ধাপে ধাপে পেট্রোল তৈরির পদ্ধতি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব। তাহলে আর অপেক্ষা কেন? শুরু করা যাক আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন।

পেট্রোল তৈরিতে কি কি উপকরণ লাগবে?

১. প্রেসার কুকার (Pressure Cooker)
২. বল ভাল্ভ (Ball Valve)
৩. ব্রাশ টি বার্ব (Brass Tee Barb)
৪. গ্যাস পাইপ (Gas Pipe)
৫. গ্যাস উনুন (Gas Stove)
৬. হোস ক্ল্যাম্প (Hose Clamp)
৭. গ্যাস কন্টেনার (Gas Container)
৮. একটি কালো টায়ার

কিভাবে তৈরি করবেন?

একটা সাড়ে ছয় লিটারের প্রেসার কুকার নিয়ে নিন প্রথমেই। তারপর হোস ক্ল্যাম্পের সাহায্যে কুকারের মুখে একটা গ্যাস পাইপ লাগিয়ে ফেলুন। এবার একটা খালি কন্টেনার আর একটি জলভর্তি প্লাস্টিকের বোতল নিয়ে, প্রত্যেকটিতে দুটো করে ফুটো করে, প্রত্যেকটা ফুটোতে তামার পাইপ লাগাতে হবে।

খেয়াল রাখবেন পাইপ গুলো যেন এমন ভাবে লাগানো হয় যাতে প্রেসার কুকার, প্লাস্টিক কন্টেনার ও প্লাস্টিক বোতল একে অপরের সঙ্গে সংযুক্ত অবস্থায় থাকে। তারপর একটা ব্রাশ টি বার্ব নিয়ে নেবেন এবং এর মুখে প্লাস্টিকের বোতল থেকে যে পাইপ বেরিয়ে আসছে সেটাকে লাগিয়ে ফেলুন।

অন্য যে মুখটা রয়েছে তাতে টায়ার থেকে বেরিয়ে আসা গ্যাস পাইপ লাগিয়ে ফেলুন। আরেকটা মুখ বাকি থাকবে যেখানে আপনাদের এমন একটি গ্যাস পাইপ লাগাতে হবে মুখ বল ভাল্ভের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে এবং সেটি উন্মুক্তভাবে থাকবে। তারপর আপনাদের প্রেসার কুকারের মধ্যে প্লাস্টিক ভরে দিতে হবে। গ্যাস ওভেন এবারে অন করে দিন। অল্প সময়ের মধ্যেই প্লাস্টিকের বোতলের জল কমে যাবে এবং কালো টায়ারটি ধীরে ধীরে ফুলে উঠবে।

এই অবস্থায় মোটামুটি আধ ঘন্টা সময়ের মধ্যেই প্রেসার কুকারের মুখ থেকে পাইপ বয়ে রঙিন তরল পদার্থ প্লাস্টিক কন্টেনারে জমা হতে শুরু করবে। যদি কোন রকম সন্দেহ থাকে সেক্ষেত্রে পরীক্ষা করার জন্য কোন একটি কাগজ নিয়ে তাতে এটা ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেখে নিতে পারেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন আপনাদের কেমন লাগলো তা জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button