“অন্যের বউয়ের সাথে নোং-রামি করতে লজ্জা লাগে না”,- শুভশ্রীর সাথে ঘ’নি’ষ্ঠ নাচে ট্রল জিৎ , ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- একসময় এই মানুষটা বাংলা ইন্ডাস্ট্রিকে আবার তুলে ধরেছিল বিশ্বদরবারে । প্রাণ সঞ্চার করেছিল বাংলা ইন্ডাস্ট্রির মধ্যে। কিন্তু তবুও এতটা বছর পেরিয়ে এসে তাকে শেষমেষ এই ধরনের কটাক্ষ শুনতে হলো তার অনুরাগীদের থেকে । বাংলার অভিনয় জগতে একজন জনপ্রিয় অভিনেতা হলেন জিৎ । ২০০২ সালে সাথী সিনেমার মাধ্যমে তার আগমন ঘটে এই অভিনয় জগতে বলাবাহুল্য সেই সময় বাংলা ইন্ডাস্ট্রির দুর্দশা সকলের জানা কিন্তু সেই সাথী সিনেমার মাধ্যমে পুনরায় বাংলা ইন্ডাস্ট্রি আবার উঠে দাঁড়াতে পেরেছিল একথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই ।

এবং যার জন্য এমনটা হয়েছিল তিনি হলেন অভিনেতা জিত। দুর্ধর্ষ অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করে নিলেন প্রথম প্রচেষ্টাতেই। নাটের গুরু সিনেমার শুটিং চলাকালীন জিৎ কোয়েল মল্লিকের প্রেমে পড়েছেন । কিন্তু কোয়েল মল্লিক রঞ্জিত কে পাত্তা দিত না । তারপরও সাতপাকে বাধা সিনেমাটির শুটিং করার সময় কোয়েল মল্লিক জিতের প্রেমে পড়ে যায় । কিন্তু সেই সময় তাদের সম্পর্কে বাঁধা হয়ে আসে তার বাবা ।

অবশেষে ২০১৩ সালে মোহন নামে একজনকে বিয়ে করেন অভিনেতা জিত । তাদেরকে ছোট্ট কন্যা সন্তান রয়েছে । তবে জীবন নেই সবকিছু পেলেও মাঝেমধ্যে কটাক্ষের শিকার হতে হয় তাকে । পুনরায় আরো একবার সেই চিত্র দেখা গেল সম্প্রতি । আমরা জানি যে এই মুহূর্তে জিৎ মে দেখা যাচ্ছে ডান্স বাংলা ডান্সের শুটিং ফ্লোরে বিচারকের আসনে । তার সাথে সাথে রয়েছে তা অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী । তার পাশাপাশি আমরা এমন তো জানি যে অভিনয় করার জন্য বিভিন্ন সময় ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত তৈরি হয় । এমনকি অভিনেতা এবং অভিনেত্রী একে অপরের খুব কাছাকাছি চলে আসেন ।

কিন্তু সেগুলো শুধুমাত্র অভিনয় করার জন্য । বাস্তবের কোনো অস্তিত্ব থাকে না । ঠিক তেমনি ঐদিন ডান্স বাংলা ডান্সের ফ্লোরে তাদেরই ছবির একটি গানের সাথে নাচ করছিলেন অভিনেতা জিৎ এবং শুভশ্রী । কিন্তু তারা একটু বেশি ঘনিষ্ঠ হয়ে গিয়েছিল শু-টিং ফ্লোরে । তা দেখে নেটিজেনরা সমালোচনার ঝড় শুরু করে দেয় । এমনকি এক নেটিজেন জিৎ কে উদ্দেশ্য করে বলতে থাকে যে বাড়িতে বউ-বাচ্চা থাকার পরও অন্য বউকে নিয়ে মাখামাখি করতে লজ্জা লাগে না? যদিও কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি অভিনেতার কাছ থেকে । তবে এই ধরনের মন্তব্য নিতান্তই কাম্য নয় ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button