বাড়িতেই এবার খুব সহজ এই ঘরোয়া পদ্ধতিতে বানিয়ে ফেলুন হোটেল, রেস্টুরেন্টের সিক্রেট গরম মশলা, যেকোনো রান্না হবে দ্বিগুণ টেস্টি!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- নিরামিষ হোক বা আমিষ মসলা ব্যবহার না করলে কিন্তু খাবারে যেন স্বাদ আসতে চায় না। বিশেষ করে গরম মসলার ব্যবহারে যেন খাবারে একপ্রকার আলাদাই সুগন্ধ সৃষ্টি হয়ে থাকে। বিভিন্ন খাবার অনুযায়ী কিন্তু মার্কেটে নানান ধরনের গরম মসলা কিনতে পাওয়া যায়। তবে খাটনি কমানোর জন্য সেই সমস্ত গরম মসলায় নানান ধরনের উপাদান মেশানো হয় ভেজাল হিসেবে। এতে মসলার খুব সুন্দর গন্ধ হলেও সম্পূর্ণ গরম মসলাই কিন্তু ভেজাল হয়ে যায়। খাঁটি মসলা বলে আর এর মধ্যে কিছু থাকে না।

আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনের তাই আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে চলেছি গরম মসলার একটি রেসিপি। আপনারা যারা নিয়মিত রান্না নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে ভালোবাসেন তারা কিন্তু অবশ্যই বাড়িতে একটু সময় করে এই গরম মশলা তৈরি করে নিতে পারেন। এতে যেমন আপনাদের রান্না অত্যন্ত সুন্দর হয়ে উঠবে ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু কোন রকমের ভেজাল মসলা আর আপনাদের খেতে হবে না। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

  • রেস্টুরেন্ট স্পেশাল গরম মসলার সিক্রেট রেসিপি:

১) সবার প্রথমেই একটি প্যানের মধ্যে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে দশটি বড় এলাচ, চারটি দারচিনি স্টিক, তিন টেবিল চামচ গোল মরিচ, তিন টেবিল চামচ গোটা ধনে, দুই টেবিল চামচ গোটা জিরে, ২ টেবিল চামচ শাহজিরা, ২ টেবিল চামচ লবঙ্গ, পাঁচটি জয়িত্রী, আধা কাপ শুকনো গোলাপের পাপড়ি। এরপর এই প্রত্যেকটা মসলাকে আপনাদের একেবারে স্লো ফ্লেমে রোস্ট করে নিতে হবে।

ভালো করে এদেরকে ডিহাইড্রেট করে নিতে হবে যাতে বেটে নেওয়ার সময় কোন রকমের দানাদার ভাব না থাকে। হালকা নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে তিন টেবিল চামচ ছোট এলাচ। এরপর এগুলি অন্য একটি পাত্রে তুলে রেখে আপনাদেরকে ওই প্যানের মধ্যেই দিয়ে দিতে হবে ১২ থেকে ১৫ টাকা কাশ্মীরি লাল লঙ্কা। একই রকম ভাবে এটা কেও ড্রাই রোস্ট করে নিন। লঙ্কা তুলে রাখার পরে আপনাদেরকে কয়েকটি তেজপাতা নিয়েও ঠিক একই রকম ভাবে শুকনো খোলায় ভেজে নিতে হবে।

২) তারপর এই লঙ্কা আর তেজপাতা আপনাদের কে ওই মসলার মধ্যে মিশিয়ে দিতে হবে। তারপর সমস্ত উপকরণ গুলিকে আরো একবার শুকনো খোলায় রোস্ট করে নিন। এটাকে কিন্তু আপনারা খুব বেশি কড়া করে ভাজবেন না তাহলে মসলার সুগন্ধ চলে যাবে।যতটা সম্ভব এগুলিকে আপনাদের মুচমুচে করে নিতে হবে।সমস্ত মসলাগুলো এবার মুচমুচে হয়ে গেলে পরিষ্কার থালায় তুলে রাখুন। এরপর এটি পাত্রের মধ্যে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কিছুটা পরিমাণ পোস্ত গাছের শিকর। এটাকে প্রথমে ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে শুকনো করে নিতে হবে। অনেক সময় এর মধ্যে কিন্তু মাটি লেগে থাকে। এটি ব্যবহার করলে গরম মসলার স্বাদ কয়েক গুণ পর্যন্ত বেড়ে যাবে।

৩) যাইহোক এই উপকরণ অর্থাৎ পোস্ত গাছের শিকর আপনাদের একই রকম ভাবে কিন্তু প্যানে ড্রাই রোস্ট করে নিতে হবে। যেকোনো মুদির দোকানে বা অনলাইন এপ্লিকেশন যেমন আমাজনে আপনারা এটি পেয়ে যাবেন। তারপর এই উপকরণ গুলিকে আপনাদের কিছুক্ষণ সময় ঠান্ডা করে নিতে হবে। ব্যাস এরপরে মিক্সার গ্রাইন্ডার এর সাহায্যে খুব ভালো করে এগুলিকে পেস্ট করে নিন।

একেবারে মিহি করে বেটে নিলেই তৈরি হয়ে গেল রেস্টুরেন্ট স্পেশাল গরম মসলার সিক্রেট রেসিপি। অবশ্যই এই মসলার প্রয়োগ করে যে কোন রান্না তৈরি করার পরে তার স্বাদের পরিবর্তন আমাদের সাথে কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button