অপ্রয়োজনীয় ফেলে দেওয়া জিনিস দিয়ে বানিয়ে ফেলুন বাসন মাজার লিকুইড ডিস ওয়াশ, জানুন পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- বাসন মাজার লিকুইড ডিশ ওয়াশ ঘরে বানিয়ে ফেলতে পারেন খুব সহজে। অনেক সময় সাবান শেষ হয়ে গেলে সার্ফ দিয়ে অনেকেই আমরা বাসন ধুয়ে থাকি। কিন্তু এখন থেকে এরকম ঘটলে সার্ফ ব্যবহার না করে মাত্র ৫ মিনিটে বানিয়ে নিন এক বোতল লিকুইড ডিশ ওয়াশ। বিশ্বাস করুন একবার এটা বানিয়ে ব্যবহার করতে শুরু করলে আর সাবান কিনবেন কিনা সন্দেহ আছে।

বাসন মাজার লিকুইড ডিশ ওয়াশ বানাতে যা যা লাগবেঃ
বাসন মাজার সাবান বা লিকুইড ডিশ ওয়াশ বানাতে যা লাগবে তা আপনার রান্নাঘরে অবস্থিত। আর এটা বানাতে সময় লাগবে মাত্র ৫ মিনিট। বিশ্বাস না হলে সামান্য পরিমান বানিয়ে নিয়ে দেখুন। অবাক হতে বাধ্য হবেন!

পাতিলেবুর খোসা ৮ পিস-
দুই চামচ বেকিং সোডা-
সার্ফ ৪ চা চামচ-
এক গ্লাস জল-

খাওয়ার পাতের পাতিলেবুর খোসা বা রান্নায় ব্যবহারের পর ফেলে দেওয়া খোসা দিয়ে লেমন ফ্লেভারের লিকুইড ডিশ ওয়াশ বানিয়ে নিন। আসলে লেবুতে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড তেলতেলে বাসনকে ঝকঝকে চকচকে করতে পারে নিমেষে। আমরা যে বাসন মাজার সাবান বা লিকুইড ডিশ ওয়াশ ব্যবহার করি তাতে লেবু থাকে। যদি বোতলের গায়ে চোখ রাখেন তাহলে দেখবেন লেবুর কথা উল্লেখ করা থাকে তাতে। যাই হোক চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে বানাতে হয়।

বাসন মাজার লিকুইড ডিশ ওয়াশ কিভাবে বানাবেনঃ

লেবুর খোসা সেদ্ধ করুনঃ

ফেলে দেওয়া লেবুর খোসা ভালো করে ধুয়ে একটি বাটিতে রাখুন। এবার একটি পাত্রে এক গ্লাস জল ঢালুন। তারমধ্যে লেবুর খোসা দিয়ে ২ মিনিট বেশি আঁচে ফোটান। চাইলে মাইক্রোওয়েভে লেবুর খোসা দিয়ে ২ মিনিট গরম করলেও হবে। এক মিনিট ফ্যানের নিচে রেখে লেবুর খোসা ঠাণ্ডা করে নিন।

পেস্ট বানান জল মিশিয়েঃ

ঠাণ্ডা করার পর মিক্সিতে সবকটা লেবুর খোসা পেস্ট করুন। সেদ্ধ করে নেওয়ার জন্য খুব স্মুদ একটা পেস্ট তৈরি হয়ে যাবে। এবার একটি বড় বাটিতে লেবুর পেস্টটা ঢালুন। লেবু সেদ্ধ করার জলটা এতে মেশান। যদি মাইক্রোওয়েভে লেবু সেদ্ধ করেন তাহলে এক গ্লাস জল হালকা গরম করে নেবেন। লেবুর পেস্ট আর জল ভালো করে মেশান। তারপর অপর একটি পাত্রে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে এটা ঢালুন।

লিকুইড ডিশ ওয়াশ বানানোর শেষ ধাপঃ

এবার এতে দুই চামচ বেকিং সোডা ও ৪ চামচ সার্ফ মিশিয়ে দিন। হালকা ফ্যানা আসা অব্দি মেশাতে থাকুন। রেডি আপনার ঘরোয়া বাসন মাজার সাবান বা লিকুইড ডিশ ওয়াশ। একটি পরিষ্কার বোতলে ভরে রাখুন।

Leave a Comment