নিরামিষের দিনে বাড়িতেই খুব সহজ এই ঘরোয়া পদ্ধতিতে বানান বাঁধাকপির মহারাণী, খেলে চেয়ে নেবেন বারবার

নিজস্ব প্রতিবেদন: শীতকালের একটি অত্যন্ত পছন্দের সবজি হল বাঁধাকপি। অনেকেই এটা খেতে অত্যন্ত পছন্দ করেন। তবে আজ আমরা বাঁধাকপি দিয়ে এমন একটা রেসিপি শেয়ার করে নিতে চলেছি যা একবার খেলে বারবার খাবার ইচ্ছে হবে। সম্প্রতি ইসকন মায়াপুর কর্তৃপক্ষের এটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই রেসিপিটি ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে আমাদের সামনে। আশা করছি এই রেসিপি আপনাদের রসনা তৃপ্তি করতে সাহায্য করবে অনেকটাই। চলুন তাহলে কিভাবে এটি তৈরি করতে পারবেন জেনে নেওয়া যাক।

এই রেসিপিটি তৈরি করার জন্য প্রথমেই গ্যাসে একটা কড়াই বসিয়ে তাতে কিছুটা পরিমাণ জল দিয়ে দিতে হবে। এবার এই জলের মধ্যে সামান্য পরিমাণে লবণ, হলুদ আর কাঁচা সর্ষের তেল যোগ করে দিন। এবার পরিমাণ মতো বাঁধাকপি ছোট টুকরো করে কেটে এই জলের মধ্যে দিয়ে দিন। ঢাকা দিয়ে কিছুক্ষণ বাঁধাকপি টাকে ভাপিয়ে নিতে হবে। সেদ্ধ হয়ে গেলে ছেকে আপনাদের একটা পাত্রে তুলে নিতে হবে। এবার গ্যাসে একটা করায় বসিয়ে তাতে কিছুটা পরিমাণ তেল দিয়ে বাঁধাকপি তাতে যোগ করুন। হালকা করে ভেজে ফেলুন উল্টে পাল্টে। তারপর আবার এগুলোকে একটা অন্য পাত্রে তুলে রাখুন।

এবার ওই তেলের মধ্যেই একটু শুকনো লঙ্কা, পাঁচফোড়ন, জিরে, হিং আর তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে দিন। একটু নাড়াচাড়া করে নিয়ে আদা বাটা, হলুদ, জিরেগুঁড়ো ও লবণ যোগ করুন। ভালো করে নাড়াচাড়া করে সামান্য পরিমাণে চিনি মিশিয়ে নিন। এবার আগে থেকে টক দই কাজুবাদাম আর চারমগজ বাটা তৈরি করে রাখবেন এবং সেই পেস্টটা রান্নার এই পর্যায়ে দিয়ে দেবেন। ভালোভাবে মশলার সাথে এই পেস্ট মিশিয়ে আপনাদের আরো একটা উপকরণ রান্নায় দিতে হবে সেটা হল টমেটো পিউরি।

সামান্য পরিমাণ মেথি পাতা যোগ করে দিন ফ্লেভার আসার জন্য। ভালোভাবে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। এবার কড়াই ধোয়ার জল আপনাকে এর মধ্যে যোগ করতে হবে। জল দেওয়ার আগে সামান্য পরিমাণ কাশ্মীরি লাল লঙ্কার গুঁড়ো মিশিয়ে নিতে পারেন যাতে সুন্দর রং আসে। এরপর বেশ কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নেওয়ার পরে আপনাদের একটু পোস্ত ছড়িয়ে দিতে হবে। পাঁচ থেকে ছয় মিনিট পর্যন্ত এটা হালকা কুক করে নিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে পারেন।। বাঁধাকপি মহারানীর এই বিশেষ ভোগের রেসিপি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই কিন্তু কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button