চা বানানোর সময় এবার থেকে মাথায় রাখুন এই কয়েকটি টিপস, চায়ের স্বাদ বাড়বে আগের থেকে দ্বিগুণ!

নিজস্ব প্রতিবেদন: চা আমাদের সকলেরই কিন্তু অত্যন্ত পছন্দের একটি পানীয়। সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত কম বেশি অনেকেই কিন্তু প্রচুর পরিমাণে চা পান করে থাকেন। বাড়িতে অতিথি আসলে অন্য কোন খাবার না থাকলেও কিন্তু আপ্যায়নের উদ্দেশ্যে চা পরিবেশন করা হয়। বলতে গেলে মানুষের সুখে – দুঃখে, আনন্দে আপ্যায়নের সব জায়গাতেই রয়েছে চা।

তবে চা তৈরি করতে গিয়ে কিন্তু প্রায় সময় সমস্যায় ভুগে থাকেন গৃহিণীরা। হাজার চেষ্টার পরেও দেখবেন একেবারে পারফেক্ট ভাবে চা তৈরি করা যায় না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা কয়েকটি বিষয় উল্লেখ করে দেবো যেগুলি লক্ষ্য রাখলে আপনাদের চা কিন্তু একেবারে পারফেক্ট পদ্ধতিতে এবং অত্যন্ত সুস্বাদু হবে তৈরি হবে।।

চা বানানোর বিশেষ কয়েকটি টিপস এবং সঠিক পদ্ধতি:

চা বানানোর সময় কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই এর কনসিসটেন্সি ঠিক অবস্থায় থাকে না। এর জন্য আপনাদের বিশেষ কয়েকটি ব্যাপার মাথায় রাখতে হবে। তৈরির আগে আপনাদের ফ্রিজ থেকে দুধ বের করে বেশ কিছুক্ষণ বাইরে রেখে দিতে হবে। তিন কাপ চায়ের জন্য আপনাদের প্রয়োজন হবে মোটামুটি দেড় কাপ পরিমাণ দুধ। আপনাদের চায়ের ফ্লেভার হিসেবে নিয়ে নিতে হবে এলাচ এবং আদা। আদা কিন্তু পিষে দেবেন না হালকা থেঁতো করে ব্যবহার করবেন।

যদি গরম কালে আপনারা মশলাটা তৈরি করছেন সে ক্ষেত্রে লবঙ্গ এবং শীতকালে তৈরি করলে অবশ্যই গোলমরিচ ব্যবহার করতে ভুলবেন না। এরপর গ্যাস অন করে একটি পাত্র বসিয়ে এতে আপনাদের তিনকাপ পরিমাণ জল দিয়ে গরম করে নিতে হবে। জল কিছুটা গরম হয়ে যাওয়ার পর আঁচ কমিয়ে এর মধ্যে আপনাদের এলাচ, আদা এবং লবঙ্গ দিয়ে দিতে হবে। বেশ কিছুক্ষণ এবার জলটাকে ফুটিয়ে নিন। দেখবেন এর ফলে জলের রং অনেকটাই পরিবর্তিত হয়ে গিয়েছে।

এবার আপনাদের দ্বিতীয় ধাপের শুরুতেই পরিমাণ মতন চা পাতা নিয়ে জলে দিয়ে দিতে হবে। চা কিছুটা ফুটে আসলে এর মধ্যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে পরিমাণ মতন চিনি। চিনি কিন্তু আপনারা জলের সাথেই দেবেন এবং যে যতটা মিষ্টি খান ঠিক ততটাই ব্যবহার করবেন। এবার মিডিয়াম লো ফ্লেমে তিন মিনিট পর্যন্ত আপনাদের চা আবারও ফুটাতে হবে। চামচ দিয়ে হালকা নাড়াচাড়া করে নিতে পারেন। এবার আপনাদের এই চায়ের মধ্যে যোগ করে দিতে হবে দুধ।

এবার ভালো করে একটি চামচের সাহায্যে সম্পূর্ণ মিশ্রণটিকে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। এবার যতক্ষণ পর্যন্ত না বলক আসছে আপনাদের ভালো করে এটাকে ফুটিয়ে নিতে হবে। চা তৈরীর সময় নিয়মিত এই পর্যায়ে যদি আপনারা চামচ দিয়ে নাড়াচাড়া করতে থাকেন তাহলে কিন্তু এর তাপমাত্রা সঠিকভাবে বজায় থাকবে। ব্যাস এরপর ছাকনির সাহায্যে ছেঁকে নিয়ে গরম গরম আপনারা  পরিবেশন করতে পারেন। সুগন্ধের জন্য দারচিনি এবং এলাচ গুঁড়ো ছড়িয়ে নিতে ভুলবেন না। স্টেপ বাই স্টেপ ফলো করে যদি আপনারা এই পদ্ধতিতে চা বানাতে পারেন তাহলে কিন্তু বাড়ির সদস্য থেকে শুরু করে সমস্ত অতিথিরাই আপনার চায়ের একেবারে ভক্ত হয়ে যাবে।

Back to top button