শুধুমাত্র বোতল দিয়ে শিল পাটাতে মাত্র ১০ মিনিটেই দিন ধার, মেনে চলুন এই গোপন ঘরোয়া ট্রিকস

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজকাল মিক্সার গ্রাইন্ডার থেকে শুরু করে নানান ধরনের আধুনিক মেশিন বা যন্ত্রপাতি থাকলেও কিন্তু অনেকেই একেবারেই আগেকার সময়ের মতো রান্নার মসলা বাটার ক্ষেত্রে শীল পাটা ব্যবহার করে থাকেন।।শীল পাটায় বেটে নেওয়া মসলার কিন্তু স্বাদের দিক থেকে জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই যে সমস্যাটা দেখা দেয় তাহলে শিল পাটা ধার কমে গেলে তা ধার করা সম্ভব হয় না। বাজারের অনেক দোকানে এই কাজ করা হয়ে থাকলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তার সময়ের অভাবে বা নানান ধরনের কারণে হয়ে ওঠে না।।

আর বাড়িতে উপযুক্ত জিনিস না থাকার কারণে আমরা এই কাজ করে উঠতে পারি না। তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এমন একটি পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করতে চলেছি যেখানে আপনারা খুব সহজেই বাড়িতে শিল পাটা ধার করে নিতে পারবেন। একেবারে অল্প সময়ের মধ্যেই বাড়িতে থাকা জিনিস ব্যবহার করে এই কাজ আপনারা করে নিতে পারবেন সুতরাং অতিরিক্ত কোন অর্থ খরচের প্রয়োজন হবে না।

এর জন্য প্রথমেই আপনাদের একটি বাজারের বড় ব্যাগ বা যে কোন বড় ব্যাগ নিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই ব্যাগের মধ্যে শিলনোড়াটিকে ভরে রাখুন। তারপর ব্যাগের ভেতরের অংশে শিলনোড়ার উপরে একটি কাঁচের বোতল রেখে ব্যাগের উপর থেকে ভারী কিছু সাহায্যে সেই বোতলটিকে ভেঙে গুঁড়ো করে দিন।। এই সময় হাতে আপনারা অবশ্যই গ্লাভস পড়ে নিতে ভুলবেন না নয়তো কাচের গুড়ো লেগে যেতে পারে। প্রায় বেশ কিছুক্ষণ সময় ধরে এই কাচের বোতলটিকে গুঁড়ো করে নেওয়ার পর একবার ব্যাগ খুলে দেখে নিতে হবে সেটি একেবারে মিহি হয়ে গিয়েছে কিনা!

যদি মিহি হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে শীলপাটাটিকে বের করে ভালো করে অনেকটা মশলা বাটার মত কাচের গুড়িগুলোকে বাটতে শুরু করুন। এই কাঁচের টুকরো গুলি এতটাই ধার হবে যে খুব সহজেই আপনার শিল পাটা ধার হয়ে যাবে। অন্ততপক্ষে মাসে একবার যদি আপনারা এভাবে শিলনোড়া ধার করে নিতে পারেন তাহলে কিন্তু আর মসলা বাটার সময় কোনরকম সমস্যাই হবে না। শুধুমাত্র কাচের বোতল নয় ওষুধের খাপের সাহায্যেও কিন্তু আপনারা শিল পাটা ধার করে নিতে পারেন।।

ওষুধের খারাপ ব্যবহার করে শিলনোড়া ধার করতে চাইলে প্রথমেই ওষুধের কাপগুলিকে এক জায়গায় জড়ো করে পারলে ছোট ছোট টুকরো করে নিন।। এর মত এই খাপ গুলিও কিন্তু সাধারণত খুব ধারালো হয়ে থাকে। এবারে একইভাবে নোড়ার সাহায্যে মসলা বাটার মত করে বাটতে থাকুন। দেখবেন অল্প সময়ের মধ্যেই কোনরকম খরচা ছাড়া আপনার শিল পাটা ধার হয়ে যাচ্ছে। এই ধরনের আরো ছোট-বড় টিপস সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পরবর্তী প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে পারেন।

Back to top button