শীতের সন্ধ্যায় খুব সহজেই এইভাবে বানিয়ে দেখুন দুর্দান্ত স্বাদের সুজির নরম তুলতুলে চিতই পিঠা, খেলেই বলবেন অসাধারণ!

নিজস্ব প্রতিবেদন: আর মাত্র কয়েক দিনের মধ্যেই রয়েছে পৌষ পার্বণ বা পৌষ সংক্রান্তির উৎসব। এই দিনের বিশেষত্ব হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের সুস্বাদু পিঠে। সাধারণত গ্রাম বাংলার বিভিন্ন জায়গাতে এই পিঠে তৈরি করা হয়ে থাকে। শহরের যান্ত্রিকতার ভিড়ে আজকাল অনেকেই পৌষ পার্বণ পালন করা ছেড়ে দিয়েছেন।

এদিকে বিভিন্ন মিষ্টির দোকানে সামান্য কিছু অর্থ খরচ করলেই যেহেতু পিঠে পাওয়া যাচ্ছে তাই আর কোন সমস্যাও নেই। বাড়িতে এগুলো বানানোর ঝামেলা আজকাল আর অনেকেই নিতে চান না। তবে যারা নিত্য নতুন রান্না ট্রাই করতে ভালোবাসেন, তাদের উদ্দেশ্যে আজ আমরা নিয়ে চলে এসেছি পৌষ সংক্রান্তি স্পেশাল সুজির নরম তুলতুলে চিতই পিঠার রেসিপি। খুব সহজেই এটা তৈরি করা যাবে। আসুন স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি জেনে নেওয়া যাক।

সুজির চিতই পিঠার রেসিপি:

১) একটা মিক্সিং যার নিয়ে তার মধ্যে মেজারমেন্ট কাপের পরিমাপ করে সুজি দিয়ে দিন। ঠিক যতটা সুজি দিয়েছেন ততটাই আপনাকে এবার জল দিতে হবে। সামান্য পরিমাণ লবণ যোগ করে এটাকে একটা মিহি পেস্ট তৈরি করে ফেলুন।পেস্ট করা হয়ে গেলে এটাকে একটা পাত্রে নিয়ে নিন।

এক চিমটে বেকিং পাউডার দিয়ে হ্যান্ড মিক্সার এর সাহায্যে মিশ্রণটাকে ফেটিয়ে নিন। বেকিং পাউডার অবশ্যই ব্যবহার করবেন কারন পিঠে গুলো ফলে নরম আর ফুলকো হবে। এবার এই সুজির মিশ্রণটাকে এক সাইডে রেখে দিয়ে অন্য একটা বাটি নিয়ে ফেলুন। তার মধ্যে হাফ চামচ সাদা তেল আর কিছুটা জল যোগ করবেন। তেল আর জলটা ভালো হবে মিশে গেলে এটা কেউ রাখুন একধারে।

২) এবার দ্বিতীয় ধাপে আপনাকে একটা নতুন মাটির ছাঁচ নিয়ে নিতে হবে। তেল আর জলের মিশ্রণটাকে এই মাটির ছাঁচের মধ্যে ব্রাশ করে ফেলুন। এবার যে সুজির মিশ্রণটা তৈরি করে রেখেছেন সেটাকে আরও একটু ফেটিয়ে নিয়ে প্রত্যেকটা ছাঁচের মধ্যে দিয়ে দিন। এবার ছাঁচের ঢাকনা বন্ধ করে পাঁচ মিনিট পর্যন্ত রাখুন। যদি আপনাদের কাছে সার্চ না থাকে সে ক্ষেত্রে উত্তপম বানানোর জন্য যে প্যান থাকে সেটাও ব্যবহার করতে পারেন।

এটার মধ্যেও একই রকম ভাবে তেল আর জলের মিশ্রণ ব্রাশ করে পিঠের মিশ্রণটাকে দিয়ে দিতে হবে। মাটির ছাচে হোক বা এই প্যানে আপনাদের অন্ততপক্ষে তিন থেকে চার মিনিট ঢাকনা চাপা দিয়ে রাখতে হবে। তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে চিতই পিঠা। ইচ্ছে হলে একটু উল্টে অপর দিকটা কেউ ভাপিয়ে নিতে পারেন। অবশ্যই এই রেসিপিটি খেতে কেমন লাগলো তা আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

Back to top button