ঘাস, পাতা এখন অতীত! সিগারেটে টান দিয়ে রাতারাতি ভাইরাল ছাগল, দেখুন সেই ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রতিনিয়ত ডিজিটাল মিডিয়ার যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে মানুষ কিন্তু এখন নিজেকে অনেকটাই আপডেট করে তুলেছে। যদি আপনারা কয়েক দশক পেছনে ফিরে তাকান, তবে লক্ষ্য করে দেখবেন তখন কিন্তু ইন্টারনেটের এত প্রভাব ছিল না। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ার এতটা বাড়বাড়ন্তও লক্ষ্য করা যেত না। আসলে সোশ্যাল মিডিয়ার কারণেই মানুষ এতটা আপডেট হয়েছে।

এখন facebook এবং whatsapp-এর পাশাপাশি ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এবং ইউটিউবের মতন এপ্লিকেশনগুলি মানুষের জীবনে দারুন প্রভাব বিস্তার করে ফেলেছে। সোশ্যাল মিডিয়া এখন জনসংযোগের প্রধান হাতিয়ার হিসেবে ধরা দিয়েছে। ৮ থেকে ৮০ সকলেই কিন্তু এখন নেট মাধ্যমের বাসিন্দা। ঘুম থেকে ওঠা থেকে শুরু করে ঘুমোতে যাওয়ার সময় পর্যন্ত একবার যেন সোশ্যাল মিডিয়ার চোখ না রাখলে মানুষের চলেই না। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে পশু পাখি সবকিছুর ভিডিওই এই নেট মাধ্যমে আমরা দেখতে পাই।

কমবেশি আমাদের অনেকের বাড়িতেই কিন্তু গৃহপালিত পশু হিসেবে গরু আর ছাগল প্রতিপালন করা হয়ে থাকে। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলের দিকে অথবা মফস্বলের শহরে এগুলো একটু বেশি রকমেরই দেখতে পাওয়া যায়। গরু এবং ছাগল নিয়ে অনেকেই কিন্তু ফার্ম তৈরি করে থাকেন কারণ এটা খুব বেশি রকমের লাভজনক ব্যবসা । তবে ছাগল পালনের সময় কিছু বিষয় কিন্তু মাথায় রাখা প্রয়োজন। শুধুমাত্র বাড়িতে একটা পশু রেখে সেটা থেকে উপার্জনের কথা ভাবলেই তো হয় না।

সেই পশুটাকে কিভাবে রোগব্যাধি থেকে বাঁচানো যাবে এবং যত্ন করা হবে সেটাও বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। বর্ষাকাল এবং শীতকালে ছাগলের শরীরে একপ্রকার রোগ দেখা যায় সেটা হল পিপিআর রোগ। তবে আপনারা যদি সঠিকভাবে যত্ন করতে পারেন তাহলে কিন্তু এই সমস্যা কোন ভাবেই আসবে না। সম্প্রতি অন্যান্য পশু পাখিদের মতন ছাগল নিয়ে এই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে যা দেখে রীতিমতন অবাক সকলে। এরকম ঘটনা যে ঘটতে পারে সেটাই কেউ ধারণা করতে পারছেন না।

আসলে ছাগলের প্রধান খাবার ঘাস, পাতা প্রভৃতি হলেও যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে উঠেছে সেখানে দেখা যাচ্ছে নিজের খাবারের বদলে ছাগল খাচ্ছে সিগারেট, চা, বিড়ি। নিশ্চয়ই প্রতিবেদনটি এতদূর পড়ার পর আপনারাও অবাক হয়ে উঠেছেন। আসলে মানুষের মতন পশুপাখিও যেভাবে সিগারেট খেতে পারে সেটাইতো আশ্চর্যের বিষয়।

ভাইরাল ভিডিওটি দেখে অনেকেই ইতিমধ্যেই নিজেদের নানান ধরনের মতামত জানিয়েছেন। এক ব্যক্তি তো এটাকে ঘোর কলি যুগ বলে উল্লেখ করেছেন যেখানে মানুষের মতন ছাগল ও বিড়ি-সিগারেট খাচ্ছে। চাইলে আপনারাও এই মজাদার ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন। প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করে দেবেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এটা প্রথমবার নয় যে ইন্টারনেটে পশুপাখি সংক্রান্ত কোন ভিডিও এতটা ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এর আগেও একটি শালিক পাখিকে কথা বলতে শোনা গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ভাইরাল ভিডিওতে। হুবহু তোতা পাখির মত একটি মানুষকে কপি করে কথা বলছিল পাখিটি।

যদিও অনেকেই এই ভিডিওটি দেখার পর তা এডিটেড কিনা সেটা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন। তবে নিঃসন্দেহে এই ভিডিওটি দর্শকদের মনোরঞ্জন করতে সাহায্য করেছিল বলাই যায়। হয়তো একজন রেগুলার ইন্টারনেট ইউজার হিসেবে আপনারাও সেই ভিডিওটি দেখেছেন।

Back to top button