মাত্র ২৩০ টাকায় পেয়ে যান খাঁটি রেশম জামদানি! এখান থেকে কিনে ব্যবসা শুরু করলে লাভ হবে দুর্দান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদন: অর্থ উপার্জনের জন্য বর্তমান সময়ে মানুষের কাছে যে সমস্ত ব্যবসা সবথেকে বেশি জনপ্রিয় তার মধ্যে একেবারে উপরের তালিকায় রয়েছে শাড়ির ব্যবসা। দেশের প্রতিটি অংশের মহিলারাই কিন্তু দৈনন্দিন ব্যবহার থেকে শুরু করে বিভিন্ন উৎসবের দিনগুলোতে শাড়ি পরতে পছন্দ করে থাকেন।।

বলতে গেলে প্রাচীনকাল থেকেই মহিলাদের শাড়ির প্রতি এক প্রকার আলাদা ভালোবাসা রয়েছে। আর এই ভালোবাসা কখনোই শেষ হওয়ার মত নয়। সুতরাং আপনারা যদি এই ব্যবসা শুরু করেন সেক্ষেত্রে কিন্তু কখনোই অর্থ উপার্জন নিয়ে সমস্যার মুখোমুখি পড়তে হবে না। সব সময় মাথায় রাখবেন বাজারে যে সমস্ত প্রোডাক্টের চাহিদা কখনোই শেষ হয় না ,সেই সমস্ত প্রোডাক্টের ব্যবসা কিন্তু কখনোই লোকসান হয় না।

শাড়ির ব্যবসা কিভাবে শুরু করবেন?

শাড়ির ব্যবসা শুরু করার অনেক উপায় রয়েছে তবে প্রধানত আপনাকে অনলাইন আর অফলাইন দুটো মার্কেটকে টার্গেট করে এই ব্যবসা শুরু করতে হবে। আপনারা যারা শাড়ির ব্যবসা করতে চান তারা প্রথমেই একটা পাইকারি দোকানের ঠিকানা সংগ্রহ করে নেবেন। যেখান থেকে একেবারে সুলভ মূল্যে আপনারা শাড়ি কিনতে পারবেন। অবশ্যই গুণগতমানের উপর আপনাকে নজর রাখতে হবে, যাতে ক্রেতারা বেশি করে আপনার প্রোডাক্ট এর প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করে।

বাজারের বহু বিক্রেতাদের মধ্যে যাতে ক্রেতারা আপনার কাছ থেকেই শাড়ি কেনে, তাই কিছু আলাদা বিশেষত্ব তো রাখতেই হবে। একেবারে খাটি জিনিস দেওয়ার পাশাপাশি সব সময় চেষ্টা করবেন একটু হাল ফ্যাশনের ট্রেন্ডি জিনিস নিজের দোকানের কালেকশনে রাখতে। যাতে সকল বয়সের মহিলারাই আপনার দোকানের শাড়ি কিনতে আগ্রহী হয়ে থাকে।

শাড়ির ব্যবসা শুরু করতে চান তাদের জন্য আজ আমরা এমন একটি ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট বা দোকানে ঠিকানা শেয়ার করে নেব যার মাধ্যমে ২৩০ টাকা থেকে সম্পূর্ণ রেশম কোয়ালিটির জামদানি আপনারা পেয়ে যাবেন। ২৩০ টাকা থেকে এখানে কালেকশন স্টার্ট হচ্ছে এবং সেখান থেকে বিভিন্ন দামের মধ্যে শাড়ি আপনারা পেয়ে যাচ্ছেন। এই প্রত্যেকটা শাড়ি কিন্তু আলাদা আলাদা রকমের রং আর ডিজাইন অর্থাৎ বিভিন্ন ভ্যারাইটিতে তৈরি করা হয়েছে।

সবথেকে বড় সুবিধা হচ্ছে যদি আপনারা এখান থেকে শাড়ি কেনেন সেক্ষেত্রে কিন্তু কোন রকম ডিফেক্ট থাকলে বা রং খারাপ হয়ে গেলে খুব সহজেই সেটা পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। যাদের গুণগত মান নিয়ে সন্দেহ রয়েছে তারা বাড়িতে বসেই একপিস শাড়ি অর্ডার করে কোয়ালিটি যাচাই করে নিতে পারেন। খুব সহজেই ক্যাশ অন ডেলিভারির ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।রেশম জামদানি ছাড়াও অন্যান্য বিভিন্ন শাড়ি যেমন হ্যান্ডলুম থেকে শুরু করে তাঁত,তসর থেকে শুরু করে প্রিন্ট সবকিছুই আপনারা এখানে পেয়ে যাবেন।

শাড়ির ব্যবসা শুরু করতে আগ্রহী থাকলে আপনারা এবার নিচের দেওয়া ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিটের ঠিকানায় যোগাযোগ করে নিতে পারেন। যদি আপনারা দূরের কোন জায়গা থেকে শাড়ি বা পণ্য কেনার কথা ভাবছেন সেক্ষেত্রে কিন্তু ভিডিও কলের ব্যবস্থাও রয়েছে।
Shop Name : Maa saree centre.
Prop : Gopal Mallick
Address – Gobindopur, Santipur,Nadia, west bengal.
Contact – 8250618635/7098149452.

Back to top button