মাত্র ৪০০ টাকার কমেই পান সুন্দর ডিজাইনের বেনারসি, এখান থেকে কিনে শুরু করুন ব্যবসা, লাভ হবে ১২ মাস

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে অর্থ উপার্জনের জন্য বেশ কিছু নতুন পদ্ধতি অবলম্বন করা শুরু করেছেন মানুষ। লক্ষ্য করে দেখবেন চাকরি-বাকরির বাজার খারাপ হয়ে যাওয়ার পর থেকেই বিকল্প পদ্ধতি খোজার এই পন্থা মানুষের মধ্যে ব্যাপক প্রচলিত হয়ে পড়েছে। চাকরি ছাড়া উপার্জনের জন্য যে পদ্ধতিটার কথা আমাদের সবার প্রথমে মাথায় আসে তা হল ব্যবসা। তবে যে ব্যাপারটি সবথেকে চিন্তার তা হল ঠিক কি ধরনের ব্যবসা করলে সহজেই উপার্জন করা যাবে এবং কখনোই বাজার চাহিদা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না!

পুরনো ব্যবসার সঙ্গে যারা যুক্ত রয়েছেন তাদের এই সম্বন্ধে একটা স্পষ্ট ধারণা থাকলেও নতুন ব্যবসায়ীরা কিন্তু কিছুই জানেন না। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে তাই আমরা আপনাদের জন্যই নিয়ে এসেছি এমন একটি বিজনেস আইডিয়া যার বাজার চাহিদা কখনোই শেষ হওয়ার নয়। আজ আমরা বলবো পাইকারি দরে শাড়ি কিনে সেটা লোকাল মার্কেটে কিভাবে লাভ রেখে আপনারা বিক্রি করতে পারেন সেই ব্যবসার কথা। সকলেই জানেন বাজারের শাড়ির চাহিদা কেমন! তাই মনে হয় না এই ব্যবসার ভবিষ্যৎ নিয়ে আপনাদের আলাদা করে আর কিছু বোঝানোর প্রয়োজন রয়েছে।

কিভাবে ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন?

এই ব্যবসাটি শুরু করার জন্য প্রথমেই আপনাদের পাইকারি দরে শাড়ি কেনার জন্য একটা সুযোগ্য ঠিকানা সংগ্রহ করে নিতে হবে। তারপর সেখান থেকে পণ্য সংগ্রহ করে এনে খুব সহজেই আপনারা কিন্তু লোকাল মার্কেটে বেশ ভালো দাম রেখে সেগুলো বিক্রয় করতে পারেন। শুধুমাত্র লোকাল মার্কেট নয় আজকাল অনলাইন অনেক ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও কিন্তু শাড়ির বিক্রি শুরু হয়েছে।।

যদি আপনি সোশ্যাল মিডিয়ায় সচ্ছন্দ হয়ে থাকেন তাহলে এই ওয়েবসাইট গুলো কেউ খুব সহজেই কাজে লাগিয়ে বিক্রি করতে পারেন। তাই গৃহবধুরাও কিন্তু বাড়িতে বসেই ব্যবসা সহজেই করতে পারবেন। এবার আসা যাক অফলাইন বিক্রির কথায়। যখন আপনারা অফলাইন শাড়ি বিক্রি করতে চাইছেন তখন অবশ্যই বাড়ির মধ্যে একটা উপযুক্ত জায়গা বা বাজারের একটা ভালো জায়গায় দোকান থাকা আবশ্যক।

যদি আপনাদের কাছে এই মুহূর্তে জায়গা জোগাড় করার মতন মূলধন না থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু কোন ছোটখাটো দোকান ভাড়া নিয়েও কাজ শুরু করতে পারেন।। লাভের অংক যখন বাড়তে থাকবে তখন ধীরে ধীরে ব্যবসার পরিধি বিস্তার করার জন্য আপনারা দোকান কিনে সেটাকে বাড়িয়ে তুলবেন। চেষ্টা করবেন বাজারের একটা খুব ভালো জায়গায় দোকানটা নেওয়ার যাতে বিক্রির কোন সমস্যা না হয়। মনে রাখবেন একেবারে ওপেন মার্কেটে যে সমস্ত দোকান থাকে তাদের কিন্তু বিক্রি প্রচণ্ড বেশি রকমের হয়ে থাকে।

এই ব্যবসার ক্ষেত্রে মূলধন নিয়ে আপনাদের খুব একটা চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। কারণ মোটামুটি দশ হাজার টাকার মধ্যে পাইকারি দরে মাল কিনে আপনারা ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। মোটামুটি যে কোন সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষের কাছেই এই টাকার অংকটা থাকে। যেহেতু পাইকারি দরে মাল কিনছেন তাই লাখ লাখ টাকা প্রথমে বিনিয়োগ করার কিন্তু আপনাদের একেবারেই প্রয়োজন হচ্ছে না। সুতরাং নতুন ব্যবসায়ীরা একেবারে চোখ বুঝে নিশ্চিন্তে কাজটি শুরু করুন।

পাইকারি দরে শাড়ি বা পণ্য কেনার সুযোগ্য ঠিকানা:

আমরা আজকে আপনাদের সাথে এমন একটি ঠিকানা শেয়ার করে নিচ্ছি যেখানে কাতান বেনারসি আপনারা পেয়ে যাবেন মাত্র ৩৯৯ টাকা থেকে। এছাড়াও জারদৌসি এবং সানা সিল্কের মতন শাড়ি আপনারা এখানে পাচ্ছেন মাত্র ৩৫০ টাকার মধ্যে। ছাপার শাড়ি আর ময়ূর বেনারসি এখানে পেয়ে যাবেন যথাক্রমে ৬৫ টাকা আর ৫০০ টাকার মধ্যে। এছাড়াও নানান ধরনের শাড়ির কালেকশন রয়েছে প্রচুর পরিমাণে রং আর ডিজাইনের সম্ভার সহ। এখানে খুব সহজেই আপনারা অনলাইনে ক্যাশ অন ডেলিভারির মাধ্যমেও ভিডিও কলে দেখে জিনিস কিনে নিতে পারেন।
Maa laxmi saree centre
Prop – pintu Halder
Seller number : 9851687645/7001064665
Address: Haripur street(Das para kali temple), santipur,Nadia,west bengal.

Back to top button