ছোটোবড়ো সবার হবে দারুণ পছন্দ! খুব সহজ এই ঘরোয়া উপায়ে বানিয়ে দেখুন কাঁচা আমের টেস্টি ও মজাদার আমসত্ত্ব

নিজস্ব প্রতিবেদন: ছোট-বড় সবাই আমসত্ত্বের স্বাদে মুগ্ধ। কাঁচা বা পাকা আম দিয়ে তৈরি আমসত্ত্ব খেতে অনেক সুস্বাদু। সাধারণত বিভিন্ন আচারের দোকান থেকেই আমসত্ত্বসহ বিভিন্ন আচার কিনে খেয়ে থাকেন অনেকেই! আমসত্ত্বের উল্লেখ বাংলা সাহিত্যে বহুবার পাওয়া গেছে। চাইলে ঘরেও কিন্তু খুব সহজে তৈরি করে নিতে পারবেন মজাদার আমসত্ত্ব। এটি তৈরি করা খুবই সহজ।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা গোটা বছর ধরে থাকবে এমন কাঁচা আমের আমসত্ত্বের রেসিপি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে চলেছি। সুতরাং যদি আপনিও আমসত্বপ্রেমী হয়ে থাকেন তাহলে ভুল করেও আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি কিন্তু মিস করবেন না। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

কাঁচা আম থেকে আমসত্ত্ব তৈরির উপায়:

১) মোটামুটি আমসত্ত্ব তৈরি করার কাজে আপনাদের হাফ কেজি পরিমাণ কাঁচা আম নিয়ে নিতে হবে। এরপর ভালো করে আমের খোসা ছাড়িয়ে আমগুলিকে টুকরো করে কেটে নিন। এরপর একটি পাত্রের মধ্যে জল এবং সামান্য লবণ দিয়ে তার মধ্যে আমের টুকরোগুলোকে ভিজিয়ে রাখতে হবে। আমের মধ্যে অতিরিক্ত টকভাব থাকলে এভাবে লবণ জলে ভেজানোর ফলে সেটা চলে যাবে। মোটামুটি ঘন্টাখানেক সময় এরকম ভাবে ভিজিয়ে রাখার পর আপনাদের গ্যাসে একটি পাত্র বসিয়ে তাতে আমের টুকরোগুলোকে দিয়ে দিতে হবে। তবে তার আগে বারদুয়েক কিন্তু আপনারা আমগুলিকে সাধারণ জলে ধুয়ে নিতে ভুলবেন না যাতে অতিরিক্ত লবণ ভাবটা চলে যায়।

২) আঁচ মাঝারিতে রেখে আপনাদের আম ঢাকনা দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। সেদ্ধ হয়ে গেলে এটাকে অন্য একটি পাত্রে নামিয়ে নিন। এরপর একটি পাত্রের উপরে বড় ছাঁকনি রেখে তার সাহায্যে আমটাকে একটু চেলে নিতে হবে।। এতে খুব সহজেই পাত্রের মধ্যে সেদ্ধ আমের পিউরি পড়ে যাবে। গরম অবস্থাতেই আপনারা এই কাজটি করবেন কারণ ঠান্ডা হয়ে গেলে আম কিন্তু একটু শক্ত হয়ে যাবে।। আপনারা চাইলে ব্লেন্ড করেও এটাকে চেলে নিতে পারেন। এবার গ্যাসে আবারো একটি পাত্র বসিয়ে তার মধ্যে আমের সেদ্ধ পিউরি দিয়ে দিতে হবে।

) এবার এই পিউরির মধ্যে আপনাদের দিতে হবে একটি তেজপাতা, হাফ চামচ পরিমাণ লাল লঙ্কার গুঁড়ো , সামান্য পরিমাণে লবণ এবং এক কাপের থেকে বেশি পরিমাণ চিনি। মসলাগুলো কিন্তু আপনারা একটু নিজেদের স্বাদ অনুযায়ী বাড়িয়ে কমিয়ে নিতে পারেন। সামান্য একটু লঙ্কার গুঁড়ো অবশ্যই ব্যবহার করতে ভুলবেন না, তাহলে আমসত্ত্বের রং খুবই ভালো আসে। চিনি গলে গিয়ে একটু জল বেড়ে যেতে পারে, তাতে অসুবিধার কিছু নেই ভালো করে জ্বাল দিয়ে নিলেই হবে।

যখন এই পিউরি কিছুটা ঘন হয়ে আসবে তখন কিন্তু আপনাদের অনবরত এটাকে নাড়াচাড়া করতে হবে। ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে এটা অনেকটাই ঘন হয়ে যাবে তখন এর মধ্যে থেকে তেজপাতা গুলি তুলে দিতে হবে। তারপর ক্রমাগত এটাকে নাড়াচাড়া করবেন যাতে কোনভাবেই তলা না ধরে যায়। যে পাত্রে আপনারা আমসত্ত্বটাকে শুকাতে দেবেন সেটাতে একটু সামান্য পরিমাণে তেল ব্রাশ করে নিতে হবে। তারপর এটার মধ্যে আমসত্ত্ব দিয়ে ভালো করে ছড়িয়ে দিন।

আমসত্ত্ব টা কত দিনে শুকাবে এটা রোদের পরিমাণের উপর নির্ভর করবে। তবে খুব বেশি সময় সাধারণত লাগেনা। এভাবে সহজ পদ্ধতিতে আপনারা কিন্তু বাড়িতেই আমসত্ত্ব তৈরি করে দীর্ঘ সময়ের জন্য সংরক্ষণ করে নিতে পারেন। সংরক্ষণ করার জন্য কাচের জার ব্যবহার করা বেশি ভালো।

Back to top button