কলকাতার আশেপাশেই প্রপার লোকেশনে এই নতুন ঝাঁ চকচকে বাড়ি বিক্রি, ভুলেও করবেন না মিস

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রত্যেকটা মানুষের কাছে এই বাড়ি হচ্ছে এমন একটা জায়গা যেখানে সারা দিনের কাজের পর একটু হলেও শান্তি পাওয়া যায়। এবার সেই জায়গাটা যদি ভাড়া বাড়ি বা অন্য কারোর বাড়ি হয় তাহলে তো চিন্তার শেষ নেই। একটা সময়ের পর তাই মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষ সর্বদা চেষ্টা করেন যেভাবে হোক একটা নিজেদের বাড়ি তৈরি করার। যারা হয়তো এই নিজেদের বাড়ি তৈরি করার সুযোগ পান না তারা আবার চেষ্টা করেন সঠিক পরিকল্পনা সহ একটি রেডিমেড বাড়ি কিনে নেওয়ার।

বাড়ি তৈরি করাটা বেশ কঠিন কাজ হলেও এই রেডিমেড বাড়ির কেনা কিন্তু খুব একটা ঝামেলার নয়।। আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে পাঠকদের উদ্দেশ্যে তাই এরকমই একটি কম খরচে ভালো প্রপার্টি আপনাদের দেখাতে চলেছি। সম্প্রতি আপনারা যদি বাড়ি কেনার বা তৈরি করার কথা ভাবছেন একবার হলেও এই সম্পত্তিটা দেখে যেতে পারেন। চলুন তার আগে একবার এটি সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

আমাদের আজকের লোকেশন হল বৈঁচি। মিডিয়াম বাজেটের মধ্যে রয়েছে এই প্রপার্টিটা। স্টেশনের পাশেই একেবারে হাটা দূরত্বে তিন থেকে চার মিনিটের মধ্যে ২.৫ কাঠা জমির উপরে একটি বাড়ি বিক্রি রয়েছে এখানে। এটি একটি কর্নার প্লট যার একদিকে ১৫ ফুট আর অন্যদিকে দশ ফুটের রাস্তা রয়েছে। একেবারে সাধারণ ফ্লোরিং করে আর সুন্দরভাবে রং করে বাড়িটি তৈরি করা হয়েছে। মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষের বসবাসের উপযোগী রয়েছে এই বাড়ি। এবার আসুন এক ঝলক বাড়ির অন্দরমহল এর প্রতি নজর রাখা যাক।

বাড়িটিতে আপনারা পেয়ে যাচ্ছেন দুটি বেডরুম, একটা কিচেন এবং একটা বাথরুম। বাথরুমে ইন্ডিয়ান আর আমেরিকান দুটোরই কিন্তু সুযোগ সুবিধা আপনারা পেয়ে যাবেন। বাড়িটির চারপাশে কিন্তু খুব সুন্দর করে বাউন্ডারি ওয়ালও তৈরি করে দেওয়া হয়েছে।। এটি প্রায় ১২ বছরের পুরনো সম্পত্তি। সমস্ত দিক বিবেচনা করে এই বাড়িটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭ লক্ষ টাকা।

তবে বাড়ির অন্যান্য কাগজপত্র ঠিক থাকলেও এটিতে কিন্তু আপনারা লোন পাবেন না। নেওয়ার আগে অবশ্যই সমস্ত দিক যাচাই করে তারপরই এগোবেন। বাড়িটি থেকে একেবারে হাতের মুঠোতেই আপনারা স্কুল, বাজার থেকে শুরু করে ব্যাংক অথবা পোস্ট অফিস সব কিছুই পেয়ে যাবেন। অতএব যদি আগ্রহী থাকেন তাহলে আর এই সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া না করাই ভালো।
Contact : 9330887554.

Back to top button