বাড়িতে গোপাল থাকলে ভুলেও এই কাজ করবেন না! জেনে নিন কিভাবে করবেন গোপালের সেবা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের অনেকের পরিবারেই কিন্তু গোপাল প্রতিষ্ঠা করা হয়ে থাকে। কিন্তু আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন না বাড়িতে গোপাল প্রতিষ্ঠা করা থাকলে আমাদের অবশ্য কর্তব্য হিসেবে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। যদি আপনার বাড়িতেও গোপাল প্রতিষ্ঠা করা থাকে তাহলে কিন্তু ভুল করেও বিশেষ কিছু কাজ করবেন না।

লাড্ডু গোপালের সেবা করার কিন্তু বিশেষ কিছু নিয়ম রয়েছে। আপনারা অবশ্যই সেই সমস্ত নিয়ম মেনে তাকে বাড়ির সদস্য তথা পরিবারের একজন মেনে সেবা করবেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যদি আপনার বাড়িতেও গোপাল প্রতিষ্ঠা করা থাকে। বিস্তারিত জানতে হলে আমাদের এই প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

  • লাড্ডু গোপালের সেবা করার বিশেষ পদ্ধতি:

১) বাড়িতে সিংহাসনে প্রতিষ্ঠা মাত্রই কিন্তু লাড্ডু গোপালের প্রাণ প্রতিষ্ঠা হয়ে যায়। আলাদা করে তার প্রাণ প্রতিষ্ঠা করার কোন দরকার নেই। মনে ভাবাবেগ না থাকলে কখনোই বাড়িতে গোপাল প্রতিষ্ঠা করবেন না। কারণ গোপাল প্রতিষ্ঠা করলে কিন্তু নিয়মিত তার সেবা আপনাকে অবশ্যই করতে হবে।

২) একজন মানুষের ঘুম থেকে উঠে যেভাবে দৈনন্দিন কাজ শুরু হয় ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু গোপালের সেবা করতে হবে আপনাদের। ভগবান কিন্তু সব সময় ভাবের জন্য অপেক্ষা করে থাকেন তাই পুজো করার সময় আপনাকে অবশ্যই নিজের মনে সেই ভাব আনতে হবে। গোপাল ঘরে যেহেতু বসে রয়েছে তা মাটির মূর্তি হোক বা পাথরের তাকে কিন্তু আপনাকে নাম দিতে হবে। যেরকমভাবে আপনার পরিবারের সদস্যদের নাম থাকে ঠিক তেমনভাবেই গোপাল কেউ কিন্তু আপনাকে ভালোবেসে ডাকতে হবে।

৩) সিংহাসনে বসিয়ে দিলেই কিন্তু গোপালের প্রতি দায়িত্ব কর্তব্য শেষ হয়ে যায় না। ছোট বাচ্চাকে আপনারা যেরকম ভাবে যত্ন করেন ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু তাকে যত্ন করতে হবে আপনাকে।

৪) প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে লাড্ডু গোপালকে চান করিয়ে কিন্তু আপনাদের স্বচ্ছ বস্ত্র পরিয়ে দিতে হবে। প্রত্যেক ঋতু অনুযায়ী তার বস্ত্রের পরিবর্তন করতে হবে। অর্থাৎ শীতকালে মোটা বস্ত্র গরমকালে পাতলা বস্ত্র এভাবে।

৫) বাড়িতে গোপাল প্রতিষ্ঠা থাকলে কিন্তু যেভাবে আপনারা নিজেরা খাবার খান ঠিক তেমনভাবেই তাকে তিনবেলা খাবার দিতে হবে। গোপালকে খাওয়ানোর সময় আপনারা রাধারানীর নাম করতে পারেন। দেখবেন রাধারানীর নাম করলে কিন্তু গোপাল তাড়াতাড়ি খেয়ে নেবে।

৬) গোপালকে জাগ্রত করার জন্য আপনাকে নিজের সমস্ত চেষ্টা এবং সেবা তার উদ্দেশ্যে প্রদান করতে হবে। চেষ্টা এবং প্রকৃত ভাবনা ছাড়া কখনোই ভগবানকে লাভ করা যায় না।

৭) গোপালকে খাবার দেওয়ার আগে অবশ্যই ভালোভাবে যাচাই করে নেবেন খাবারের মধ্যে কোন আমিষ জাতীয় কিছু মিশ্রিত আছে কিনা। গোপালকে অনেকেই চকলেট চা ইত্যাদি দেন। সেগুলো দিলেও কিন্তু কোন সমস্যা নেই। তবে কোনোভাবেই আমিষ জাতীয় খাবার কিন্তু দেবেন না।

৮) বাইরে কোথাও ঘুরতে গেলে গোপালের জন্য জিনিস নিয়ে আসতে ভুলবেন না। যেমনভাবে আপনি বাড়িতে থাকা ছোট বাচ্চার জন্য কিছু নিয়ে আসেন ঠিক তেমন ভাবেই কিন্তু গোপালের জন্যও কিছু না কিছু নিয়ে আসবেন। আর হ্যাঁ সবশেষে বলবো বাড়িতে কিন্তু কখনোই লাড্ডু গোপালকে একা রেখে চলে যাবেন না। চেষ্টা করবেন একটা কিছুতে করে তাকে ভালোভাবে সঙ্গে নিয়ে যাবার। বাচ্চারা যেমন একা থাকতে পারে না লাড্ডু গোপালও কিন্তু ঠিক তেমনভাবেই একা থাকতে পারবে না।

Back to top button