অল্প খরচে তৈরি করুন সুন্দর দোতলা বাড়ি, রইলো খরচের পরিমাণ সহ বাড়ির আধুনিক ডিজাইন

নিজস্ব প্রতিবেদন: মানুষের প্রাথমিক চাহিদার মধ্যেই রয়েছে খাদ্য বস্ত্র এবং বাসস্থানের চাহিদা। একটা সময়ের পর তাই কমবেশি সকলেই নিজেদের বাড়ি তৈরি করার চেষ্টা করে থাকেন। কিন্তু ঠিক কি ধরনের পরিকল্পনায় বাড়ি তৈরি করলে তা সাধারণ মানুষের বসবাসের উপযুক্ত হবে এবং কোন সমস্যা হবে না সেটা নিয়ে অনেকের মধ্যেই কিন্তু স্পষ্ট কোন ধারণা নেই।।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে পাঠকদের সেই সমস্ত চিন্তাভাবনার কথা মাথায় রেখে আমরা একটি দোতলা বাড়ির ডিজাইন শেয়ার করে নিতে চলেছি। এই ডিজাইনটি অনুসরণ করলে একতলা আর দোতলা দুই ধরনের পরিকল্পনাই কিন্তু আপনারা খুব সহজে পেয়ে যাবেন। চলুন এবার সময় নষ্ট না করে ডিজাইনটি দেখে নেওয়া যাক।

বাড়িটির প্রবেশ পথের শুরুতেই একটা ছোট্ট প্যাসেজের মতন রাখা হয়েছে। এখানে স্কুটি বা বাইক জাতীয় কিছু পার্কিং করেও রাখতে পারেন আবার বসার জায়গাও করতে পারেন। এবার অন্দরমহলে ঢুকতেই একটা বড় ড্রয়িং রুম আপনারা পেয়ে যাচ্ছেন। ড্রয়িং রুম থেকে ঠিক সোজাসুজি গেলে ডাইনিং রুম এবং ড্রয়িং রুমের ঠিক বাম দিকে আপনারা পেয়ে যাচ্ছেন একটি মাস্টার বেডরুম।

এই মাস্টার বেডরুমের সাথে অ্যাটাচ টয়লেটের ব্যবস্থাও করতে ভুলবেন না। ডাইনিং রুম থেকে ঠিক সোজাসুজি একটা কমন টয়লেট এবং এই টয়লেটের পাশেই আপনারা তৈরি করে নিতে পারেন কিচেন। মধ্যিখানের যে ফাকা স্পেস থাকছে সেখানে খুব সহজেই সিঁড়ির ঘর এবং তার পাশে আরো একটা ছোট বেড রুম তৈরি হয়ে যাবে। অর্থাৎ ড্রয়িং রুম ছাড়া এখানে আপনারা দুটো বেডরুম আর ডাইনিং রুম পেয়ে যাচ্ছেন।

এবার আসুন দোতলার ফ্লোর প্ল্যান সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। এখানে কিন্তু গ্রাউন্ড ফ্লোর এর থেকে সামান্য কিছু পরিবর্তন চলে আসবে। প্যাসেজের জায়গাটিতে এখানে চলে আসবে সুন্দর বেলকনি এবং তার লাগোয়া পাশাপাশি দুটি বেডরুম। এই বেডরুমটার ঠিক সোজা অর্থাৎ ডাইনিং রুমের জায়গায় একটা ড্রইং রুম বা লিভিং এরিয়া আপনারা তৈরি করে নিতে পারেন। নিচের পরিকল্পনার মতোই এর কোনাকুনি আপনারা পেয়ে যাবেন পরপর দুটো টয়লেট।

এবার দুই দিকের দুটো বেডরুম এবং মাঝখানের সিঁড়ির স্পেসটা আপনাকে পরবর্তী ফ্লোরে নিয়ে চলে যাবে। পেছনের দিকের এই দুটো বেডরুমকে কিন্তু আপনারা স্টাডি রুম অথবা স্টোর রুম হিসেবেও কাজে লাগাতে পারেন যদি বাড়ির সদস্য সংখ্যা কম থাকে। সবমিলিয়ে এই বাড়িটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের প্রায় খরচ পড়বে ২৫ থেকে ৩০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি। ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন এবং জমির দাম আপনাকে অবশ্যই আলাদা ধরতে হবে। ডিজাইনটি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখার পর একটা কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

ভিডিওটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন- https://youtu.be/mCRrHXdFWyM

Back to top button