একদম সামান্য খরচে তৈরি করুন ৪ বেডরুমের বাড়ি! রইলো খরচের পরিমাণ সহ বাড়ির আধুনিক ডিজাইন

নিজস্ব প্রতিবেদন: মানুষের যে তিনটি মৌলিক চাহিদা প্রধান ভাবে লক্ষ্য করা যায় তার মধ্যে রয়েছে বাসস্থান। বর্তমানে গোটা দেশজুড়ে যেভাবে ঘন জনবসতি লক্ষ্য করা গিয়েছে তাতে একটা ভালো লোকেশনে বাড়ি খুঁজে পাওয়াটাই কিন্তু দুষ্কর। এই অবস্থায় সব থেকে ভালো উপায় হচ্ছে একটু কষ্ট করে নিজেদের প্রচেষ্টায় বাড়ি তৈরি করে নেওয়া। রেডিমেড সেকেন্ড হ্যান্ড বাড়ি কিনতে গেলে আপনারা কিন্তু বেশ কিছু সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন।

যেটা বাড়ি বানিয়ে নিলে আর আপনাদের হবে না। সবথেকে বড় ব্যাপার যদি আপনারা নিজে বাড়ি বানিয়ে নিতে পারেন সমস্ত জিনিস পরিকল্পনা করে তাহলে কিন্তু এটা একেবারে আপনাদের মনের মতন তৈরি হবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা সম্পূর্ণ বাজেটের মধ্যে একটি চার বেডরুমের বাড়ির ডিজাইন আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব। এই ধরনের একটা বাড়ি কিন্তু সাধারণ মধ্যবিত্ত ফ্যামিলির জন্য একেবারে যথেষ্ট। সুতরাং চলুন আর সময় নষ্ট না করে বাড়িটির পরিকল্পনা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

যখন আপনারা নতুন বাড়ি তৈরি করবেন যে জিনিসগুলো সবার প্রথমে মাথায় রাখবেন তা হল, বাড়ির ভিত কিন্তু আপনাদের একেবারে মজবুত রাখতে হবে। সুতরাং অবশ্যই ভালো মেটেরিয়াল ব্যবহার করবেন। বাড়ির স্ট্রাকচারে যেন কোনো রকম গলদ না থাকে। এবার আসা যাক বাড়িতে ডিজাইন এর কথায়। চারটি বেডরুম বিশিষ্ট বাড়ি তৈরি করতে চাইলে প্রবেশপথের শুরুতেই আপনারা কিন্তু ড্রইংরুম রাখতে পারেন।

ড্রয়িং রুমের ঠিক ডান দিকে থাকবে একটি মাস্টার বেডরুম, এবং এর বাম দিকেও একই রকম ভাবে থাকবে আরেকটি বেডরুম। ডানদিকে যে বেডরুমটি থাকবে তার সাথে আপনারা বাথরুম তৈরি করে নিতে পারেন। এই বাথরুমটির লাগোয়া খুব সহজেই তৈরি করে নেয়া যাবে কিচেন এবং অন্য আরও একটি মাস্টার বেডরুম। এবার আবারো ড্রইংরুমে ফেরত আসা যাক। এখান থেকে সোজা আপনারা একটি ডাইনিং স্পেস বা লিভিং এরিয়া টেনে দিতে পারেন। এই লিভিং এরিয়া থেকেই ছাদে যাওয়ার জন্য সিঁড়ি উঠানো যাবে।

এবার বাম দিকে যে রুমটি ছিল সেখানকার সোজাসুজি একটি কমন বাথরুম করতে পারেন। তার পাশেই করে দিতে পারেন স্টাডি রুম। লিভিং এরিয়ার বাম দিকে যে জায়গাটা ফাঁকা থাকবে সেখানে খুব সহজেই আরো একটি বেডরুম আপনারা তৈরি করে নিতে পারবেন। তবে যদি আপনাদের সদস্য সংখ্যা কম থাকে সেক্ষেত্রে ওটাকে বেডরুম না বানিয়ে কিন্তু স্টাডি রুম বা পুজোর ঘর বানিয়ে নিতে পারেন।

যেহেতু আপনারা পরিকল্পনা করে বাড়ি বানাচ্ছেন তাই অবশ্যই কমন বাথরুমে ইন্ডিয়ান এবং ওয়েস্টার্ন দুই ধরনের টয়লেট রাখার চেষ্টা করবেন। বাড়িতে কোন অতিথি আসলে নয়তো ব্যবহারের সমস্যা হতে পারে। যদি ফ্লোর টাইলস অথবা মার্বেলের ফিনিশিং দিতে চান তাহলে একটু বেশি খরচা পড়ে যাবে। সুতরাং আপনার বাজেট বেশি হলে সেই দিকে অবশ্যই চিন্তা ভাবনা করতে পারেন।

বাড়িটির বাইরের ডিজাইনের কথা যদি বলি সেক্ষেত্রে প্রবেশপথের দুই ধারে হালকা করে ডিজাইন করে একটু বেলকনি মতন করে নিতে পারেন। তবে যদি জায়গা না থাকে সেটার প্রয়োজন নেই। আজকে আমরা যার বেডরুম বিশিষ্ট যে বাড়িটির ডিজাইন আপনার সাথে শেয়ার করে নিলাম সেটা সমস্ত দিক বিবেচনা করে তৈরি করতে গেলে মোটামুটি ৩০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি খরচ পড়বে।

ভিডিওটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন- https://youtu.be/2T2Mww_-7Gc

তবে জমির টাকা কিন্তু আপনাদের অবশ্যই আলাদা করে ধরতে হবে। কারণ এই মূল্য বৃদ্ধির বাজারে একসাথে ৩০ লক্ষ টাকার মধ্যে এ ধরনের বাড়ি আর জমি পাওয়া খুবই দুষ্কর ব্যাপার। আমাদের আজকের শেয়ার করা এই বাড়ির ডিজাইনটি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না। যদি প্রতিবেদনটি বুঝতে কোথাও সমস্যা হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্যই সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।।

Back to top button