একদম অল্প খরচে তৈরি করুন ৪ বেডরুমের বাড়ি, রইলো খরচের পরিমাণ সহ বাড়ির লেটেস্ট ডিজাইন

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যার সাহায্যে আমরা প্রচুর পরিমাণে আজকাল নানান ধরনের তথ্য সংগ্রহ করতে পারি। লক্ষ্য করে দেখবেন যে কোন সমস্যারই সমাধান কিন্তু এই সোশ্যাল মিডিয়াতে পাওয়া যায়। অবসর বিনোদন থেকে শুরু করে ব্যবসা কি নেই এখানে! যদিও আমাদের আজকের আলোচ্য বিষয়বস্তু এসব কিছুই নয়।

আজ আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি একটি চার বেডরুম বিশিষ্ট বাড়ির ডেকোরেশন বা ডিজাইন। আপনারা অনেকেই বাড়ি তৈরি করার সময় ঠিক কি ধরনের পরিকল্পনা করে সেটা তৈরি করবেন তা নিয়ে সমস্যায় পড়ে থাকেন। তাই আগে থেকে যদি আপনাদের কাছে একটা স্পষ্ট ধারণা থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু কোন রকমের সমস্যা হবে না। চলুন আর দেরি না করে শুরু করা যাক আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন।

আজ আমরা আপনাদের সাথে যে বাড়িটির ডিজাইন শেয়ার করে নেব সেটার প্রবেশপথের শুরুতেই রয়েছে একটা ছোট বারান্দা। এবার সেখান থেকে আপনারা চলে যেতে পারবেন ড্রয়িং রুমে। ড্রয়িং রুমের ঠিক ডানদিকে থাকছে গেস্টরুম। ড্রয়িংরুমে ঠিক বাঁদিকে আরও একটি মাস্টার বেডরুম আপনারা তৈরি করে নিতে পারেন খুব সহজেই।

সাধারণত মাস্টার বেডরুমের সাথে কিন্তু অ্যাটাচড টয়লেট রাখা হয় সুতরাং আপনারাও সেটা ঠিক সোজাসুজি একটু স্পেস রেখে করে নিতে পারেন। এবার ড্রয়িং রুমের সোজাসুজি এবং মাস্টার রুম থেকে একটু কোনাকুনি আপনারা করে ফেলতে পারেন ডাইনিং রুম। ড্রয়িং রুম থেকে ডাইনিং রুমে যাওয়ার রাস্তাটিতে আপনারা আর্চিং করে নিতে পারেন। ডাইনিং রুমের ঠিক ডান দিক থেকে আপনারা করতে পারেন সিঁড়ির ঘর বা ছাদে যাওয়ার উপরের ফ্লোরের রাস্তা।

এবার ডাইনিং রুম থেকে সোজা কিচেন এবং তার ঠিক ডানদিকে আরও একটি মাস্টার বেডরুম। এই মাস্টার বেডরুমের সাথে যে বাথরুমটি থাকবে সেটা চাইলে আপনারা কিচেনের পাশে করতে পারেন আবার চাইলে কিন্তু ঘরের কোনাকুনিও করতে পারেন। অন্যদিকে কিচেনের বাম দিকে আরও একটা বেডরুম বা স্টাডি রুম তৈরি করে নেবেন। যদি ঘরে সদস্য সংখ্যা বেশি না থাকে সেক্ষেত্রে ওটাকে পুজোরঘর হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন।। মোটামুটি বেশ ভালোভাবে ডেকোরেশন এবং মার্বেল ফিনিশিং করলে এই বাড়িটি তৈরি করতে আপনার কিন্তু প্রায় 30 থেকে 32 লক্ষ টাকার কাছাকাছি খরচ হবে।

তবে একটা কথা বলবো যদি আপনি চিরস্থায়ী বাসস্থান হিসেবে বাড়িটি তৈরি করতে চান তাহলে কিন্তু অবশ্যই ভালো ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করবেন। কারণ অনেক ক্ষেত্রেই সঠিক উপাদান না থাকার কারণে একটা সময়ের পর কিন্তু বাড়ি ভঙ্গুর হয়ে ওঠে। সুতরাং ভবিষ্যতে যেন সেরকম কোনো অবস্থার মুখোমুখি হতে না হয় তাই অবশ্যই একটু যাচাই করে নেবেন।। আজকের এই বাড়ির পরিকল্পনা আপনার কেমন লাগলো তা অবশ্যই শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না এবং প্রতিবেদনটি কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয়ে থাকলে অবশ্যই সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

ভিডিওটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন- https://youtu.be/vBokbzNIrFg

Back to top button