ফের বড়ো মনের পরিচয়! মাত্র ৩০ টাকায় গরিবদের জন্য ভরপেট খাবারের ব্যবস্থা করলেন গায়ক অরিজিৎ সিং

নিজস্ব প্রতিবেদন: তারকা হওয়া সত্বেও একেবারে সাধারন মানুষ হয়ে রয়েছেন এরকম বহু সেলেব্রিটির খোঁজ কিন্তু আমরা কম বেশি এর আগেও পেয়েছি। এরকমই একজন মানুষ হলেন জনপ্রিয় গায়ক অরিজিৎ সিং। আসমুদ্রহিমাচলের মানুষ কিন্তু তাকে এক ডাকেই চেনে। কিন্তু ব্যক্তিগত জীবনে তার মতন মাটির মানুষ আর হয় না এ কথা কমবেশি অনেকেই স্বীকার করে নিয়েছেন। সেলিব্রেটি হওয়ার পরেও একেবারে সাধারন মানুষের মতন তার লাইফ স্টাইল দেখে আপনারাও অবাক হতে বাধ্য হবেন।

গানের শোয়ের জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তো বটেই বিদেশেও যাতায়াত লেগেই থাকে হামেশা। কিন্তু আর পাঁচজন যেখানে সাফল্য পেয়ে গ্রামের ভিটে ভুলে শহুরে জায়গা বেছে নেন থাকার ও কাজের জন্য সেখানেই ব্যতিক্রমী অরিজিৎ সিং। হয়তো কাজের জন্য তিনি মুম্বাইতে থাকেন তবে সময় পেলেই ছুটে আসেন তার গ্রামের বাড়ি অর্থাৎ মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ এর পৈত্রিক ভিটেতে। এমনকি ছেলে কেউ তিনি মুর্শিদাবাদের এক বেসরকারি স্কুলেই ভর্তি করেছেন।

তাকে দেখার পর এক ঝলকে কেউ বুঝতে পারবেন না তিনি জনপ্রিয় গায়ক অরিজিত সিং।স্কুটি চালিয়ে রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো থেকে বন্ধুদের সাথে আড্ডা সবই চলে। শুধু তাই নয়, নিজের গ্রামের গরিব দুঃখী মানুষদের জন্যও যথাসাধ্য কাজ করেন তিনি। গ্রামের বাচ্চারা যাতে ভালোভাবে শিক্ষা পায় তার জন্য ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানোর ব্যবস্থা করিয়েছেন তিনি। অর্থাৎ শুধুমাত্র কন্ঠে নয় কাজের ক্ষেত্রেও কিন্তু তিনি রীতিমতন সর্বসেরা একজন ব্যক্তিত্ব। সম্প্রতি অরীজিৎ সিং এর চরিত্রের আরো একটি দিক আমাদের সামনে উঠে এসেছে যা জানতে পারলে নিঃসন্দেহে তার ভক্তরা আপ্লুত হয়ে পড়বেন।

বাচ্চাদের জন্য তার সুশিক্ষার বন্দোবস্ত করার কথা তো সকলেই শুনেছেন।এবার গরিব মানুষদের জন্য সস্তায় খাবার বিতরণ করার ব্যবস্থা শুরু করলেন অরিজিৎ সিং। পাঠকদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি, নিজের গ্রাম জিয়াগঞ্জেই একটি ভাতের হোটেল খুলেছেন এই গায়ক।হোটেলের নাম দিয়েছেন, ‘হেঁশেল’। আসলে হোটেলটি গায়কের পরিবারেরই, এর আগে তাঁর বাবা হোটেলটি চালাতেন।

তবে এবারে এই হোটেলের দায়িত্বভার সম্পূর্ণ নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তিনি। সব থেকে বড় ব্যাপার এই হোটেলের সাহায্যে গ্রামের গরিব মানুষদের কথা ভেবে একটি অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন অরিজিৎ। সেলিব্রিটিরা সাধারণত নামিদামি হোটেলের উদ্যোগ নিয়ে থাকেন সেখানে আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের জন্য এই হোটেল খুলে সেরা বন্দোবস্ত করেছেন এই গায়ক। জানা যাচ্ছে এই হোটেলে গেলে মাত্র ত্রিশ টাকাতেই একেবারে ভর পেট খাবার খেতে পারবেন আপনি।

একেবারেই সত্যি ঘটনা এটি। সূত্রের খবর অনুযায়ী অরিজিৎ সিং এর এই হোটেলে আপনারা পৌঁছালে খুব সহজেই ৩০ টাকার মধ্যেই ভরপেট খাবারের থালি পেয়ে যাবেন।সবজি, পনির, মাংস থেকে শুরু করে মটন সবই থাকবে এই হোটেলে। আর দামটাও থাকবে সাধ্যের মধ্যেই। তাই সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে অত্যন্ত গরিব মানুষেরও কিন্তু এই দামে খাবার খেতে খুব একটা অসুবিধা হবে না।

অরিজিৎ সিং এর এই অভিনব উদ্যোগের কথা শুনে এবারে আরও একবার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠেছেন তার ভক্তরা। তিনি যে নিঃসন্দেহে একজন অত্যন্ত ভালো চরিত্র এর প্রমাণ আরও একবার দিয়ে দিলেন গায়ক। এই বিষয়ে আপনার ব্যক্তিগত কোনো মতামত থাকলে তা কিন্তু অবশ্যই আমাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button