খাসির মাংস ফ্রিজে রাখলেই শক্ত হয়ে যায়! ট্রাই করুন এই দুর্দান্ত কার্যকরী ট্রিকস, মাংস হবে একদম নরম তুলতুলে

নিজস্ব প্রতিবেদন: একবারে অনেকটা করে মাংস বা মাছ কিনে নিয়ে আসলে সেটা কিন্তু আমরা ফ্রিজে রেখে দিয়ে থাকি। তবে লক্ষ্য করে দেখবেন ফ্রিজে রাখার পরে এই মাংস কিন্তু বেশ শক্ত হয়ে যায় বা কেমন ধরনের একটা ভাব চলে আসে। বিশেষ করে মাটান বা খাসির মাংসের ক্ষেত্রেই ব্যাপারটা সবথেকে বেশি আমরা দেখতে পারি।

আসলে সংরক্ষণ পদ্ধতিতে কিছু সমস্যা থাকার কারণেই কিন্তু এমন ঘটনা ঘটে থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই আপনাদের জন্য এমন কিছু টিপস নিয়ে চলে এসেছি যাতে ফ্রিজে রাখলেও কিন্তু মাটন বা খাসির মাংসের কোনরকম পরিবর্তন দেখা যাবে না। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আজকের প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

কিভাবে খাসির মাংস সংরক্ষণ করলে সেটা শক্ত হবে না?

১) কাটার পরে কিছুক্ষণ সময় নিয়ে ফ্রিজে রাখুন:

পশু জবাইয়ের পর ৩-৪ ঘন্টা মাংস শক্ত থাকে। এই অবস্থায় ফ্রিজে রাখলে একেবারে পাথর হয়ে যাবে। আবার জবাইয়ের পর বেশিক্ষণ বাইরে ফেলে রাখলে মাংস অনেক নরম হয়ে যায়। অন্ততপক্ষে তাই পশু জবাই করার তিন ঘন্টা সময়ের মধ্যে আপনারা মাংস ফ্রিজে রাখার চেষ্টা করবেন। তাহলে এটা কিন্তু খুব বেশি শক্ত বা খুব বেশি নরম হয়ে যাবে না।

২) খোলা অবস্থায় রাখবেন না:

মাংস কখনোই কিন্তু আপনারা খোলা অবস্থায় ফ্রিজে রাখবেন না।এই কাজগুলো মাংস শক্ত ও দুর্গন্ধময় করে ফেলে। ডিপ ফ্রিজের ঠান্ডা আবহাওয়ায় কোন জলীয় বাস্প থাকে না। এই ঠান্ডা হাওয়া মাছ-মাংসের উপর দিয়ে প্রবাহিত হলে ন্যাচারাল ময়েশ্চার শুকিয়ে ফেলে। তাই অবশ্যই কিন্তু আপনাদের ডিপ ফ্রিজে মাংস কাটার পর সংরক্ষণ করতে হলে ভালো কোন পলিথিন,ভ্যাকুয়াম-সিলড প্যাকেট, জিপ-লক প্লাস্টিক ব্যাগ, বা এয়ার-টাইট প্লাস্টিক ব্যবহার করতে হবে।

৩) ঠেসে রাখা থেকে বিরত থাকুন:

ফ্রিজে কখনোই চেপে চুপে বা ঠেসে মাংস রাখার চেষ্টা করবেন না এতে কিন্তু শক্ত হয়ে যাবে।মাংস ছোট ছোট টুকরা করে কেটে ব্যাগে বা বাটিতে রাখবেন। প্লাস্টিকের ব্যাগে মাংস রাখলে মধ্যে হালকা ফাঁকা রেখে পাশাপাশি কয়েকটা ব্যাগ রাখবেন।

৪) বেশি দিন পর্যন্ত ফ্রিজে সংরক্ষণ করবেন না:

যেহেতু ডিপ ফ্রিজ natural ময়েশ্চার শুকিয়ে ফেলে তাই খুব বেশিদিন কিন্তু এটা ফ্রিজে সংরক্ষণ না করাই ভালো।সাধারণ নিয়মে ৩-৫ দিনের বেশি মাংস সংরক্ষণ করা উচিত না। ঠান্ডায় যত কম থাকবে তত মাংসের পুষ্টিগুণ এবং কনসিসটেন্সি ঠিক থাকবে৷

যদি কোন কারনে মাংস শক্ত হয়ে যায় কিভাবে নরম করবেন:

১) থয়িং পদ্ধতি:

ইংরেজিতে শক্ত মাংস নরম করার প্রক্রিয়াকে ‘থয়িং’ বলা হয়। এই প্রক্রিয়ায় মাংস নরম করতে হয় মৃদুভাবে।রান্নার অন্তত একদিন আগে মাংস ডিপ ফ্রিজ থেকে নামিয়ে নর্মাল ফ্রিজে রাখবেন। এতে ঠান্ডা ও শক্ত ভাবটা কিছুটা কমে যাবে।ঠান্ডা জল দিয়ে ‘থ’ করতে পারবেন। মাংস নামিয়ে ঠান্ডা জলে ভিজিয়ে রাখলেই যথেষ্ট৷ ৫০০ গ্রাম পরিমাণ মাংস জলে নরম করতে বড়জোর এক ঘন্টা সময় লাগবে। পরিমাণ বেশি থাকলে সময় আরো কিছুটা বেশি রাখতে পারে।গরম জল বা মাইক্রোওয়েভ দিয়ে থয়িং একদমই করা যাবে না।।

২)লবনের ব্যবহার:

মাংস বের করে রান্না করা ঠিক এক ঘণ্টা আগে এর মধ্যে সি সল্ট মাখিয়ে রাখবেন। সাধারণ লবণ বা টেবিল সল্ট দেওয়া যাবে না। সি সল্ট মাংসের ভেতর ঢুকে শক্ত হয়ে যাওয়া প্রোটিন গলিয়ে ফেলবে। সাধারণ লবনের মধ্যে এই ক্ষমতা নেই।

৩) চা এবং রেড ওয়াইনের ব্যবহার:

যদি চা ব্যবহার করতে চান, তাহলে মাংসের পরিমাণ বুঝে এক কাপ বা দুই কাপ কড়া লিকারের ব্ল্যাক টি বানিয়ে নিন। ঠান্ডা করে তা দিয়ে স্টেক মেরিনেট করে রাখুন কিছুক্ষণ, নরম হয়ে যাবে। রেড ওয়াইন দিয়েও একই রকম ভাবে আপনারা কাজটি করতে পারেন।

৪) বিভিন্ন এসিডিক উপাদান ব্যবহার করুন:

এই ক্ষেত্রে আপনারা লেবুর রস অথবা ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন।অ্যাসিডিক উপাদান মাংসের মাসল ফাইবার নরম করে এবং স্বাদ বাড়ায়। লেবুর রস বা আনারসের পিউরি দিয়ে স্টেক মেরিনেট করতে পারেন। ভিনেগার ব্যবহার করলে অ্যাপেল সিডার, বালসামিক, বা সাধারণ ভিনেগার ব্যবহার করবেন।

৫)কফির ব্যবহার:

ভালো করে কড়া এক কাপ কফি বানিয়ে সেটাকে প্রথমে আপনাদের এই পদ্ধতিতে ঠান্ডা করে নিতে হবে। এটা দিয়ে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত খাসির মাংস মাখিয়ে রাখলেই কিন্তু সেটা একদম নরম হয়ে যাবে এবং রান্না করার উপযোগী হয়ে পড়বে।

Back to top button