মহানায়কের কঠোর ব্যবহারে দারুণ কষ্ট পেয়েছিলেন অনুপ কুমার! জানেন কি ঘটেছিল সেদিন? রইলো সেই অজানা কাহিনী

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলা সিনেমার স্বর্ণযুগের দুই কিংবদন্তি অভিনেতা মহানায়ক উত্তম কুমার ও অনুপ কুমার। অভিনয় ছাড়াও তাদের অসাধারণ ব্যক্তিত্বে মজেছিল আপামর বাঙালি। তাদের জীবনের গল্প বলে শেষ করা যাবে না। খুব লাজুক প্রকৃতির মানুষ ছিলেন অনুপ কুমার। হাসি ঠাট্টা তিনি বরাবর থেকেই পছন্দ করতেন।অভিনয় জীবনে বড় মাপের নায়ক বা খলনায়ক এই জাতীয় চরিত্রে তাকে খুব একটা পাইনি আমরা।

তবে তার অভিনয় গুণে ছবিতে স্পার্শ্বচরিত্রও আকর্ষণীয় হয়ে উঠতো। পলাতক সহ দু একটি বাংলা ছবিতে তাকে আমরা নায়কের ভূমিকায় দেখেছি। উত্তম কুমার ও অনুপ কুমার এর মধ্যে সবথেকে বড় মিল ছিল যে দুজনেই ছিলেন খুব পরোপকারী মানুষ। আত্মীয় পরিজন হোক, বন্ধু বা সহকর্মী সবসময় তাদের বিপদে-আপদে পাশে দাঁড়াতেন তারা। উত্তম কুমার খুব ভালোবাসতেন এবং স্নেহ করতেন অনুপ কুমারকে। তবে একটি বার মহানায়কের ব্যবহারে দারুন কষ্ট পেয়েছিলেন অনুপ কুমার।

একবার অগ্রগামীর প্রযোজনায় তৈরি হচ্ছে একটি বাংলা ছবি। সেই ছবিতে নায়ক হিসেবে ছিলেন উত্তম কুমার। পরিচালক একটা চরিত্রে অনুপ কুমারকে নেবেন বলে ঠিক করলেন। স্টুডিওতে সবার সামনে একদিন এমনও বলে দিলেন, ‘অনুপ তুমি কিন্তু তোমার পার্ট দেখে নিও’। মাথা নেড়ে সম্মতি জানিয়েছিলেন অনুপ কুমার। তবে এর কয়েক দিন পরেই পরিচালক আবার বললেন,‘না অনুপ ছবিটায় তোমায় নেওয়া হচ্ছে না। উত্তম বলেছে ও অনেক খেটে খুটে ছবিটা করছে। তারপর যদি তুমি ঢুকে..” এত দূর পর্যন্ত বলেই কথা শেষ না করে থেমে গেলেন পরিচালক।

তাতে অনুপ বাবু শুধু বলেছিলেন, উত্তম এই কথা বলেছে? ব্যাস তিনি ছুটলেন সটান উত্তম কুমারের কাছে। গিয়ে সোজাই তাকে প্রশ্ন করলেন, “কিগো, তুমি নাকি আমায় বাদ দিতে বলেছ?” মহানায়ক সোজাসাপ্টা উত্তর দিলেন, হ্যাঁ বলেছি। তারপর মহানায়ক আবারো বললেন, “দেখ আমি অনেক খেটে খুটে ছবিটা করছি। এরপর তুই ঢুকলে..” তারপর তিনিও আর কথা শেষ করেননি। কেন তিনি এই কথা বলেছেন বা তার পরবর্তী কথাগুলো কিন্তু আজও রহস্য হয়েই রয়ে গিয়েছে ‌। আর কোন কথা বাড়াননি অনুপ কুমার।

তবে এর প্রতিদানে পরবর্তী ছবিতে একটি রোলের জন্য উত্তম কুমার দেখেছিলেন অনুপ কুমারকে। এরপরেও বহুবার উত্তম কুমারের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করেছেন অনুপ বাবু। এর মধ্যে রয়েছে রাজদ্রোহী, জীবন মৃত্যু, নিশিপদ্য, বিরাজ বউ, মৌচাক প্রভৃতি। পরবর্তীতে আর তাদের মধ্যে তেমন কোন সমস্যা হয়নি। বাংলার দুই মহান অভিনেতার এই অজানা কথা আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের সঙ্গে কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নেবেন। এই ধরনের আরো প্রতিবেদন পেতে চাইলে আমাদের পোর্টালের পাতায় নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button