স্বামী অভিষেকের মৃত্যুর পর এবার কি দ্বিতীয় বিয়ের সিদ্ধান্ত? স্পষ্ট জানালেন সংযুক্তা

নিজস্ব প্রতিবেদন: কাছের মানুষ দূরে চলে যাওয়ার কষ্ট যে কতটা বেদনাদায়ক তা কিন্তু সহজেই সকলে বুঝতে পারেন না। তবে একথাও সত্যি যে চিরজীবন কখনোই কেউ পৃথিবীতে থাকে না। তাই পুরাতন কে ভুলে নতুন কে সঙ্গী করেই হয়তো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানুষ এগিয়ে যায়। কিন্তু এমনও অনেক মানুষ রয়েছেন যারা হয়তো মানুষের স্মৃতিকেই আকড়ে ধরে বাঁচতে বেশি ভালোবাসেন। এ রকমই একজন মানুষ হলেন জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জির স্ত্রী সংযুক্ত চাটার্জী।

সকলেই প্রায় কমবেশি জানেন আচমকায় চলতি বছরের মার্চ মাসে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পরিবার-পরিজন এবং অনুরাগীদের ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জী। তারপর প্রায় সাত মাস সময় কেটে গিয়েছে। একমাত্র মেয়ে সাইনা ওরফে ডলকে নিয়ে বর্তমানে একাই জীবন কাটাচ্ছেন অভিষেকের স্ত্রী সংযুক্তা। অভিনেতার মৃত্যুর পর তাদের জীবনেও এসেছে কম বেশি নানান ধরনের পরিবর্তন। কিন্তু এই সবকিছুর মাঝেও কখনই তারা অভিষেকের স্মৃতিচারণ করতে বলেন না।

চলতি বছর দুর্গা পূজোটাও রীতি মতন একাই কাটিয়েছেন সংযুক্তা এবং সাইনা। বাড়ির পুজো বন্ধ করে সুদূর কেরলে ঘুরে এসেছিলেন তারা। কেরলের মনোরম শান্ত পরিবেশের মধ্যেই কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাগ করে নিয়েছিলেন অভিনেতা স্ত্রী। সেই পোস্টে দেখা যায় সংযুক্তা ও ডল হোটেলের রুম থেকে বাবার ফটো জড়িয়ে ধরে ছবি পোস্ট করে সংযুক্তা বলেন, “আসলে আমি ভাবতেই চাই না অভিষেক আমাদের সঙ্গে নেই। ও আছে সর্বক্ষণ। তাই বলতে চাই আমি, অভি আর ডল কেরল এসেছি।

তবে এই ছবিতে কিছু মানুষের মন্তব্য দেখে রীতিমতন ক্রুদ্ধ হয়ে ওঠেন সংযুক্তা চ্যাটার্জী। আসলে সংযুক্তার শেয়ার করা এই ছবিগুলিতে এক ব্যক্তি মন্তব্য করেন, “আপনি আবার বিয়ে করুন। নতুনভাবে নিজের জীবন শুরু করুন। এইভাবে কত দিন আর স্মৃতি আকড়ে বেঁচে থাকবেন”। এই কমেন্টেই ঘটেছে বিপত্তি।

ওই জনৈক নেটিজেনের এই কমেন্ট দেখার পর চুপ থাকতে পারেননি সংযুক্তা চ্যাটার্জি। উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন, “এমন কথা আর আপনি কখনো বলবেন না। অভি সারা ক্ষণ আমাদের সঙ্গে আছে। আমি মনে করি ভালবাসা এক বার হয়, বিয়েও এক বারই করা যায়। আমি শুধুই অভির। আর কারও না। পৃথিবীতে আমার কাছে অভি আর ডল ছাড়া আর কেউ গুরুত্বপূর্ণ নয়”। পরে সংবাদ মাধ্যমের সামনে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে প্রয়াত অভিনেতার স্ত্রী এই প্রসঙ্গে জানান,“আসলে একা মেয়ে দেখলেই মানুষ নানান ধরনের মন্তব্য করে।

অভি নেই, তাই অনেকে ভাবছে আমরা হয়তো অসহায়। আদতে তা একেবারেই নয়। আমরা আমাদের জীবন গুছিয়ে নিয়েছি। অনেকে তো আবার আমায় অভিনয় করার কথা বলেছিল। একা মেয়ে থাকলেই কি তাদেরকে দুর্বল ভাবতে হবে”?

প্রসঙ্গত চলতি বছরের মার্চ মাসে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন অভিনেতা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।অভিনয় ছিল তাঁর প্রাণ। লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন নিয়ে বাঁচতেন তিনি। শ্যুট করতে করতেই পৃথিবী ছেড়ে চলে যান অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। মৃত্যুর শেষ সময়েও শুটিং ফ্লোরেই ছিলেন তিনি। ধীরে ধীরে অসুস্থতা বাড়তে থাকায় তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।।

হাসপাতালে ভর্তির কথা চললেও তিনি বাড়িতে ফিরে আসেন এবং স্যালাইন নিয়ে শুয়ে পড়েন। এরপর রাত 1 টা বেজে 40 মিনিট নাগাদ প্রয়াত হন অভিনেতা। কেরিয়ারের শুরুর দিকে অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় বেশ কিছু সুপারহিট সিনেমাতে অভিনয় করলেও তারপর ধীরে ধীরে বড় পর্দায় কাজ বন্ধ করে দিয়েছিলেন তিনি। বর্তমানে ছোট পর্দার বিভিন্ন ধারাবাহিকে তার অভিনয় অত্যন্ত পরিচিত ছিল দর্শকম মহলে।

Back to top button