হাইরোডে চলন্ত বাসে আচমকা শুঁড় দিয়ে হামলা বিশালাকার হাতির, নিমেষেই শেষ হয়ে গেলো সবকিছু! চরম ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়া এমন এক আশ্চর্য জগত যেখানে ছোট থেকে বড় বিভিন্ন ঘটনা খুব সহজেই ভাইরাল হয়ে থাকে যা আমাদেরকে অবাক করে রেখে দেয়। বিশেষ করে জীবজন্তু সংক্রান্ত বিভিন্ন ভিডিও এখানে কিন্তু ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে তেমন একটি ভিডিও সম্পর্কে আলোচনা করতে চলেছি। তবে তার আগেই এই অদ্ভুত ইন্টারনেট জগতের কিছু খুঁটিনাটি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব।

ইন্টারনেট আবিষ্কারের পর থেকেই মানুষের মধ্যে সবথেকে বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। এটা এমন একটা প্লাটফর্ম যেখানে খুব সহজেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন মানুষ। শিশু থেকে বয়স্ক সকলেই এখন সোশ্যাল মিডিয়ার বাসিন্দা। বিশেষ করে ফেসবুক এবং instagram এর মতো প্ল্যাটফর্ম গুলি এখন মানুষের কাছে অত্যাধিক জনপ্রিয়। লকডাউনের পর থেকেই তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতে এই সমস্ত অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার আরো বেড়ে গিয়েছে।

খুব সহজেই দূর দূরান্তের মানুষের সাথে আলাপ পরিচয় থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে কিন্তু অনেক কিছুই করা যায়। আজকাল নিজস্ব প্রতিভা বিকাশের জন্য বা ব্যবসার কাজেও সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাপক পরিমাণে সহায়তা করছে। সম্প্রতি এই নেট মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে উঠেছে একটি হাতির আক্রমণের ভিডিও। দেখা যাচ্ছে জঙ্গলের মাঝে থাকা একটি রাস্তায় আচমকারী একটি বিশালাকৃতির দাতাল হাতি উঠে এসেছে। রাস্তার মধ্যে থাকা প্রতিটি গাড়িকে থামিয়ে দিচ্ছে এই হাতিটি।

বোঝাই যাচ্ছে যে, সম্ভবত খাবারের খোঁজে হাতিটি জঙ্গল থেকে বাইরে বেরিয়ে এসেছিল। যদিও কোন গাড়ির চালকেরাই তাকে খাবার দেয়নি বরং ভয় পেয়ে তারা দ্রুত গাড়ি চালিয়ে যাবার চেষ্টা করে। গাড়িগুলোকে থামালেও হাতিটি শেষ পর্যন্ত কোন বড় দুর্ঘটনা ঘটায় নি। এই ভিডিওটি কোন অঞ্চলের সেটা যদিও এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি। তবে কমবেশি সকল নেটিজেনরাই ভিডিওটি দেখে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

কারণ মানুষের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কারণেই বন জঙ্গল ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় হাতিদের এভাবে নিজস্ব বাসস্থান ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে আসতে হচ্ছে।। এখানে পুরো দোষটাই যে মানব সমাজের তাতে কোন সন্দেহ নেই।। এই বিষয়ে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে পারেন। এখনো পর্যন্ত কয়েক লক্ষ মানুষ এই ভিডিওটি দেখেছেন এবং পছন্দ করেছেন। যদি আপনাদেরও প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই একটি লাইক আর কমেন্ট করে দিতে ভুলবেন না।

Back to top button