জল খেতে গিয়ে খুদে হাতিকে আচমকা হামলা বিশালাকার কুমিরের, দেখতে পেয়ে তেড়ে এলেন মা হাতি, চরম ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়া এক আশ্চর্য জগত যেখানে প্রতিনিয়ত নানান ধরনের ঘটনা ভাইরাল হয়ে আমাদের চোখের সামনে উঠে আসে। বিগত দিনগুলোতে যেহেতু নেট মাধ্যমের ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে তাই এই ভাইরাল ঘটনাবলীর সংখ্যাও কিন্তু বাড়ছে। সত্যি কথা বলতে সোশ্যাল মিডিয়া মানুষের কাছে এখন একটি উল্লেখযোগ্য অবসর বিনোদন মাধ্যম।

এখানে যে বিনোদন বা আনন্দ পাওয়া যায় সেটা হয়তো টেলিভিশন কিংবা রেডিওতে ও মানুষ খুঁজে পান না। কোন রকমের বিশেষ খরচ ছাড়াই বাড়িতে বসে পৃথিবীর যেকোন প্রান্তের ঘটনা আপনারা জানতে পারবেন এমনটা কি ভেবেছিলেন কখনো? রেডিও টেলিভিশন অথবা সংবাদপত্রেও কিন্তু এত দ্রুত খবর ছড়িয়ে পড়ে না যতটা সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। কোন রকমের সাধারণ ভাইরাল ঘটনা হোক বা প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে শুরু করে বড় কিছু সমস্তই উঠে আসে এই প্লাটফর্মে।

সাধারণ মানুষও তাই যুগের পরিবর্তনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই প্লাটফর্মকে অত্যন্ত সহজ ভাবে নিজেদের জীবনের সঙ্গে যোগ করেছেন। শিশু থেকে বয়স্ক সবাই এখন এই নেট মাধ্যমের বাসিন্দা। যদিও বিশেষজ্ঞদের একাংশ এই সোশ্যাল মিডিয়াকে মোটেও ভালো চোখে দেখছেন না। কারণ নেট মাধ্যম ব্যবহার করার ফলস্বরূপ কিন্তু মানুষের মধ্যে নানান ধরনের সমস্যা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যার মধ্যে অন্যতম হলো মানসিক অবসাদ।পাশাপাশি অনেক অনলাইন বা সাইবার অপরাধের সংখ্যাও কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে এই ইন্টারনেট জগতের বাড়বাড়ন্তের কারণে।

ইন্টারনেটে যে সমস্ত ভিডিও বা ছবি ভাইরাল হয়ে ওঠে তার মধ্যে অন্যতম হলো বিভিন্ন জীবজন্তু সংক্রান্ত দৃশ্য। সাধারণত চট করে দেশ বিদেশের জঙ্গলে পা না রাখলে এই সমস্ত জন্তু-জানোয়ারের মুখোমুখি হওয়া সম্ভব নয়। তাই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই মানুষ নিজের এই চাহিদা পূরণ করে থাকেন। সম্প্রতি এমনি একটি বনের দৃশ্য ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় যা দেখে রীতিমতন অবাক সকলে। ভাইরাল ভিডিওর সেই দৃশ্য এতটাই ভয়ংকর যে মানুষ শিহরিত হয়ে উঠেছেন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি ছোট হাতি বনের ধারের কোন জলাশয়ে জল খেতে গিয়েছিল। প্রথমে কোন সমস্যাই হয়নি বেশ কিছুক্ষণ তাকে জল খেতে দেখা যায়। তবে এর পরেই আচমকা জলাশয়ের ঠিক ধার থেকে একটা কুমির উঠে আসে এবং হাতে টিকে আক্রমণ করে। বাচ্চা হাতিটি শক্তিশালী কুমিরের সাথে কিন্তু প্রথম অবস্থায় লড়াইতে একেবারেই পারছিল না। যদিও ঠিক এই সময়েই দেবদূতের মতন উপস্থিত হয়ে যায় বাচ্চা হাতিটির মা। সম্ভবত সে আশেপাশেই কোথাও ছিল। পশুপাখি হোক বা সাধারণ মানুষ সবার মধ্যেই কিন্তু সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসা বর্তমান। ছেলে মেয়েকে বিপদে পড়তে দেখলে যে কোন মা-ই এগিয়ে আসবে এটা স্বাভাবিক। এখানেও তার কোন রকমের ব্যতিক্রম হয়নি।

বাচ্চা হাতিটিকে এভাবে বিপদে পড়তে দেখে তার মা শুধুমাত্র এগিয়ে আসেন তাই নয়, নিজের জীবনের বাজি রেখে দীর্ঘ সময় ধরে ওই কুমিরটির সাথে লড়াই চালিয়ে যান। যদিও শেষ পর্যন্ত কি হলো সেটা ভিডিওতে দেখানো হয়নি! তবে মাত্র কয়েক মিনিটের এই ভিডিওটা বেশ উপভোগ করেছেন দর্শকেরা। মাত্র দু মাস আগে শেয়ার করা এই ভিডিওটি প্রায় ১ মিলিয়ন মানুষ দেখে নিয়েছেন। অনেকেই আবার কমেন্ট বক্সে সোশ্যাল মিডিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এই ধরনের দৃশ্য চোখের সামনে তুলে ধরার জন্য।

Back to top button