অবিকল মানুষের বাধ্য ছেলের মতো পড়াশোনায় ব্যস্ত ৩টি খুদে বাঁদর, ভাইরাল ভিডিও দেখে হাঁ নেটদুনিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন: সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথেই আমাদের জীবনের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়ছে নিত্যনতুন প্রযুক্তি। একটা সময় যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে শুধুমাত্র টেলিভিশন, টেলিফোন বা রেডিওর মতন প্লাটফর্ম গুলি বর্তমান থাকলেও আজকাল সেই সামাজিক যোগাযোগের জায়গা দখল করে নিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। লকডাউনের পর থেকেই তৃতীয় বিশ্ব সহ অন্যান্য অংশের দেশ গুলিতে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে।

শিশু থেকে বয়স্ক সকলেই আজকাল স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার কারণে ইন্টারনেট জগতের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছেন। ফেসবুক এবং instagram এর মতন প্লাটফর্ম গুলির জন্য আজকাল নেট মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ওঠে নানান ধরনের ফটো আর ভিডিও। এর মাধ্যমে যেমন আমরা বিভিন্ন প্রয়োজনীয় খবরাখবর জানতে পারি ঠিক তেমনভাবেই বিভিন্ন মজাদার জিনিসও দেখতে পাই। ঠিক এই কারণেই হয়তো সোশ্যাল মিডিয়াকে অনেকেই অবসর কাটানোর মাধ্যম হিসেবেও উল্লেখ করে থাকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিত্যদিন হরেক রকমের ভিডিও ভাইরাল হয়ে থাকে। সম্প্রতি আবারো এরকম একটি ভিডিও আমাদের চোখের সামনে উঠে এসেছে। এটি এমন একটি ভিডিও যা দেখে মানুষের চোখ রীতিমত ছানাবড়া হয়ে গিয়েছে বলা যায়।ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি মহিলা রীতিমতো মানব সন্তানের মতই মাতৃস্নেহে তিনটি ছোট্ট বাঁদর ছানাকে অতি যত্নে বড় করে তুলছেন। এমনকি ওই ছোট্ট বাঁদর ছানা গুলিকে লেখাপড়াও শেখাতে শুরু করে দিয়েছেন তিনি। ঠিক যেভাবে মানব শিশুদের লালন-পালন করা হয়ে থাকে সেভাবেই ওই বাঁদর ছানাদের পালন করা হচ্ছে।

একটু মনোযোগ সহকারে ভিডিও দেখলেই বুঝতে পারবেন ঐ বাদর ছানাগুলির মধ্যে দুটি ছেলে রয়েছে এবং একটি মেয়ে। ছেলে দুটি স্কুল ইউনিফর্মের প্যান্ট আর শার্ট পড়ে রয়েছে। অন্যদিকে মেয়েটির পরনে রয়েছে স্কার্ট এবং ব্লাউজ। মানব শিশুর মতই স্লেট পেন্সিল নিয়ে পড়াশোনা করছে তারা। এক ঝলকে দেখলে কিন্তু বাদর ছানাগুলিকে আপনাদের মানুষের থেকে একেবারেই আলাদা বলে মনে হবে না ভিডিওতে। শুধুমাত্র শারীরিক গঠনটাই ভিন্ন বলতে পারেন। ভিডিওর এক অংশে তো এটাও দেখা যাচ্ছে,ছানাগুলিকে ওই মহিলা ডায়েপারও পরিয়েছেন এবং স্কুটিতে পিছনে বসিয়ে তাদের সম্ভবত স্কুলে নিয়ে যাচ্ছেন।

দারুন ভাইরাল এই ভিডিওটি ‘মলি মাঙ্কি’ নামের একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল থেকে শেয়ার করা হয়েছে। জানা গেছে দীর্ঘদিন ধরেই ওই তিনটি বাদর ছানাকে লালন পালন করছেন ওই মহিলা। তার চ্যানেলে একটু ঘাঁটাঘাটি করলেই এরকম আরো নানান ধরনের বাদর সংক্রান্ত ভিডিও আপনারা পেয়ে যাবেন। প্রায় চার মাস আগে এই ভিডিওটি আপলোড করা হলেও এখনো পর্যন্ত প্রায় ৫৮ লক্ষ মানুষ এটি দেখেছেন এবং বহু মানুষ এটিকে শেয়ার করে নিয়েছেন। সত্যিই এটা মন ছুঁয়ে যাওয়ার মতন একটা ভিডিও। প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে আপনারাও আর সময় নষ্ট না করে দেখে নিন সেই ভিডিওটি।

Back to top button